যুক্তরাষ্ট্রে দাঙ্গার কেন্দ্রস্থলে পরিণত হয়েছে বাল্টিমোর

images (1)

 

images (2)bal

baltimore-riot

 

সুত্রঃ  http://samayikprasanga.in/epaper.php?pn=5

Advertisements

মণিপুর মাওবাদী কমিউনিস্ট পার্টির অভিযোগের প্রতি নিন্দা জানালো প্যাল্লেলবাসী

1497612_360657930759502_1127118187381473234_n

ইম্ফল, ৫ জুন, ২০১৫: ৫ মে প্যাল্লেলে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা নিয়ে ঐ এলাকার জনগণ একটি সাম্প্রদায়িক উদ্বেগ ছড়ানোর চেষ্টা করেছিল, মণিপুর মাওবাদী কমিউনিস্ট পার্টির এই অভিযোগকে প্যাল্লেলবাসীরা অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে নিয়েছে। বৃহস্পতিবার স্থানীয় সংবাদপত্রে প্রকাশিত মণিপুর মাওবাদী কমিউনিস্ট পার্টির বিবৃতির প্রতি প্যাল্লেলে অনুষ্ঠিত এক জনসভায় নিন্দা জানানো হয়। এতে বলা হয়, ৩০শে মে আসাম রাইফেল কর্তৃক নিহত নারী কর্মীর হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে ৩ জুন জাতীয় মহাসড়কে এলাকাবাসীর ডাকা বন্ধ পালনে প্যাল্লেলবাসী কোন ধরণের বিঘ্ন সৃষ্টি করেনি। সভায় বলা হয়, সাধারণ বন্ধ এর বিঘ্ন ঘটিয়ে প্যাল্লেলের এলাকাবাসী সাম্প্রদায়িক সংঘাত উস্কে দিতে চেয়েছিল এ ধরণের অভিযোগ ভিত্তিহীন। বিভিন্ন সম্প্রদায়ের বসতি প্যাল্লেলে শান্তি বজায় রাখার ব্যাপারে জনসভার আহ্বায়ক, প্যাল্লেল গ্রাম পঞ্চায়েতের উপ প্রধান মুতুম প্রকাশ সকলের কাছে সহযোগিতা প্রার্থনা করেন।

সূত্রঃ http://e-pao.net/GP.asp?src=32..060615.jun15


ভারতঃ আম্বেদকর-পেরিয়ার স্টাডি সার্কেলের স্বীকৃতি ফিরিয়ে দিল IIT-M

IITM

আন্দোলনের চাপে অবশেষে রবিবার  IIT M এর  আম্বেদকর-পেরিয়ার স্টাডি সার্কেলের( APSC) স্বীকৃতি বাতিলের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে নিল কর্তৃপক্ষ।

APSCকে স্বীকৃতি বাতিল  করার সময় ITM এর অধিকর্তা বলেছিলেন,  IITর নাম ব্যবহার করে রাজনীতি করছে সংগঠন। নরেন্দ্র মোদি ও হিন্দুদের বিরুদ্ধে নাকি বিদ্বেষ ছড়ানো হচ্ছে। অন্যদিক APSC তরফে জারি করা প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে দাবি করা হয়েছিল  IIT M এর মধ্যে দীর্ঘদিন ধরেই বিবেকান্দ স্টাডি সার্কেল, বন্দেমাতরম, হরে রাম হরে কৃষ্ণ ইত্যাদি নানা নামে দক্ষিণপন্থীরা তাদের আদর্শ ও মত প্রচার করে এসেছে। APSC-র তরফে দাবি করা হয়েছে গত ১ বছর ধরে তারা ছাত্রদের মধ্যে লিফলেট বা সভার মাধ্যমে দেশের বেশ কিছু সমস্যাকে তুলে ধরেছে। যেমন কৃষিতে হামলা- কয়লা প্রকল্প, কৃষিতে জিএম এর প্রভাব, শ্রম আইনের সংশোধন। তাছাড়া IIT M এ হিন্দি চাপিয়ে দেওয়ার প্রতিবাদেও সরব হয়েছে তারা। এর সঙ্গে ভগত্ সিং ও আম্বেদকরের প্রাসঙ্গিকতা নিয়েও আলোচনা সভার আয়োজন করেছে APSC। APSC র দাবি এগুলোর কোনটাই দেশের সংবিধানের বিরোধী নয়। APSC জানিয়েছে জনসাধারণের করের টাকায় তৈরি হওয়া IIT জনসাধারণের উন্নতির স্বার্থে কাজ করা উচিত। তাই তারা IITM এর অধিকর্তার আদেশ মানবেনা বলে জানিয়েছে।

 APSC  দাবি ক্যাম্পাসের এক RSS সমর্থক স্মৃতী ইরানির দফতরে  একটি চিঠি ও তাদের বিলি করা একটি লিফলেট পাঠান। এর পরই  সরকারের তল্পিবাহক অধিকর্তা জানিয়েছেন IIT M এর কোন সভা ঘর ব্যবহার করতে পারবে না APSC।  স্টাডি সার্কেলের আগে IIT র নাম ব্যবহার করতে পারবেন না APSC। এর পরই দেশজুড়ে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রতিবাদ শুরু হয়।

সুত্রঃ http://www.satdin.in/index.php/13-2014-04-07-17-10-23/2393-iit-m