ভারতঃ ওঙ্কারেশ্বরের মানুষের ৩২দিনের জলসত্যাগ্রহের কি কোন গুরুত্ব আছে সরকারের কাছে?

khandwa-unmoved-by-police-crackdown-protesters-continue-to-observe-jal-satyagraha_040913112655

১১ এপ্রিল থেকে ১৩ মে টানা ৩২ দিন জলের মধ্যে দাঁড়িয়ে সত্যাগ্রহের করা পর প্রশাসনের আশ্বাসে জলসত্যাগ্রহ প্রত্যাহার করে নেয় মধ্যপ্রদেশের খান্ডোয়া জেলায় নর্মদার ধারের ঘোগলগাঁওয়ের জনা কুড়ি মানুষ । বিকল্প জায়গা দেওয়ার জন্য ২ মাসের সময় চেয়েছিল প্রশাসন। ১ মাসের বেশি সময় কেটে গেলেও এখনও সেই বিষয় তেমন কিছু শোনা যায়নি।

তাঁরা জলসত্যাগ্রহ করেছিলেন ওঙ্কারেশ্বর বাঁধের উচ্চতা বৃদ্ধির জেরে তাদের গ্রামের চাষের জমি ডুবে গেছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন ৪০০জন। আর সেই জলের মধ্যে দাঁড়িয়েই চলছিল তাঁদের জলসত্যাগ্রহ। সরকারের তেমন কোন  হেলদোল ছিল না। নর্মদা উপত্যকা উন্নয়ন পর্যদের এক কর্তার দাবি ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের তারা ক্ষতিপূরণ দিয়েছিলেন, সেই টাকা ও বিকল্প জমি না নিলে তাদের কী করার আছে। কিন্তু কৃষকদের অভিযোগ জমি দেওয়ার কথা বললেও সে জমি তাঁদের দেওয়া হয়নি। কয়েকদিন আগে সরকারের পক্ষ থেকে কিছু বিকল্প জমি উচ্ছেদ হওয়া গ্রামবাসীদের দেখান হয়। গ্রামবাসীদের অভিযোগ সেজমি চাষ যোগ্য নয়।

আজ পর্যন্ত ৩১ দিন ধরে প্রায় ২৪ ঘন্টা করে জলের মধ্যে দাঁড়িয়ে থাকায় অনেকেরই চর্মরোগ দেখা দিয়েছে। এর আগে ২০১২ সালে একই কারণে এই গ্রামের বাসিন্দারা জলসত্যাগ্রহ করেছিলেন।

( ছবি ndtv এর সৌজন্যে)

সুত্রঃ  http://satdin.in/?p=2309

Advertisements


Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.