আমেরিকা বলেছে- বিচারবহির্ভূত হত্যা ও গুম বাংলাদেশে সবচেয়ে ভয়াবহ সমস্যা, অথচ আমেরিকাতেই প্রতিদিন ৩৩ জন বিচার বহির্ভূত হত্যার শিকার

MXGM-Report-Every-36-hours-w563

আমেরিকা বলেছে, বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মানবাধিকার লঙ্ঘন ও বিচারবহির্ভূত হত্যার ঘটনা ধারাবাহিকভাবে ঘটালেও সরকার কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। বিচারবহির্ভূত হত্যা ও জোর করে তুলে নিয়ে গুম বাংলাদেশে মানবাধিকারের ক্ষেত্রে সবচেয়ে ভয়াবহ সমস্যা। এর পরই রয়েছে অনলাইন ও গণমাধ্যমে মত প্রকাশে নানা প্রতিবন্ধকতা, খুবই নিম্নমানের কর্মপরিবেশ ও শ্রম অধিকার না থাকা।

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় দুপুরে মার্কিন স্টেস্ট ডিপার্টমেন্ট থেকে ২০১৪ সালের মানবাধিকার পরিস্থিতির ওপর একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। ওয়াশিংটনে স্টেট ডিপার্টমেন্টে সংবাদ সম্মেলনে এ প্রতিবেদন প্রকাশ করেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি। ওই প্রতিবেদনে বাংলাদেশ সম্পর্কে এমন মূল্যায়ন করা হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, আইনশৃংখলা বাহিনীর কোনো সদস্য অপরাধ করলে কিংবা কাউকে অন্যায়ভাবে হত্যা করলে, বলতে গেলে তিনি কোনো শাস্তির মুখোমুখিই হন না। এটি বাংলাদেশে মানবাধিকারের ক্ষেত্রে ভয়াবহতম সমস্যা।

অথচ-

যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিদিন আগ্নেয়াস্ত্রের গুলিতে গড়ে ৩৩ জন মানুষ বিচার বহির্ভূত হত্যার শিকার হচ্ছে। সম্প্রতি প্রকাশিত ফেডারেল প্রশাসনের একটি প্রতিবেদনে এই তথ্য পাওয়া যায়।

প্রতিবেদনের ফলাফল অনুযায়ী গত ১৯ জুনের আগ পর্যন্ত আড়াই বছরে বন্দুকের গুলিতে ২৯ হাজার ৭ শ’ ৯৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর এই হতাহতের বড় একটি অংশ শিশু-কিশোর। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, চার্চ, রেস্টুরেন্ট ও জনসমাগমে এসব অতর্কিত হামলা হয়েছে।

সর্বশেষ সাউথ ক্যারোলাইনার চার্লস্টনে শত বছরের পুরনো গির্জায় এক বন্দুকধারীর গুলিতে ৯ জন নিহত হন।

B9f7lvsIAAAMU6f



Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.