তুরস্কে কমিউনিস্ট পিকেকে গেরিলাদের হামলায় ৩ সেনা ও ১ পুলিশ নিহত

_84573766_84542769

কুর্দি জনগণের উপর তুরস্ক সরকারের বিমান হামলার প্রতিবাদে কুর্দি অধ্যুষিত দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে কমিউনিস্ট পিকেকে গেরিলাদের হামলায় ৩ সেনা ওঁ এক পুলিশ নিহত হয়েছে।

দিয়ারবেকির অঞ্চলের একটি চায়ের দোকানে কমিউনিস্টরা হামলা চালালে এই পুলিশ কর্মকর্তা গুলিবিদ্ধ হয়ে প্রাণ হারান। এ হামলার সঙ্গে পিকেকে জড়িত বলে তুর্কি রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যম অভিযোগ করেছে।

এদিকে, দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলীয় সিরনাক অঞ্চলের সিজরি শহরে তুর্কি সেনাদের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে সন্দেহভাজন এক পিকেকে সদস্য নিহত হয়েছে।

অন্যদিকে, আজ বৃহস্পতিবার তুরস্কের সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে জানায়, দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলীয় সিরনাক অঞ্চলে আর্মি ব্যাটেলিয়নের উপর পিকেকে গেরিলাদের হামলায় ৩ সেনা নিহত হয়েছে। সেনাবাহিনীর কম্যান্ডো, ড্রোন, হেলিকপ্টার গানশিপ দিয়ে পিকেকের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে।

তুরস্ক সম্প্রতি সিরিয়ার অভ্যন্তরে আইএসআইএল এবং উত্তরাঞ্চলীয় ইরাকের পিকেকে’র অবস্থানের ওপর সামরিক হামলা শুরু করেছে।

সন্ত্রাসবাদ দমনের আড়ালে কুর্দি কমিউনিস্ট দল পিকেকে কে দমনের জন্যই তুর্কি সরকার সিরিয়ায় আইএসআইএল-অবস্থানে হামলা চালাচ্ছে বলে অনেকেই মনে করছেন। অন্য কথায় তাদের মতে আইএসআইএল-অবস্থানে তুর্কি হামলার বিষয়টি একটি আই-ওয়াশ মাত্র। কারণ, তুর্কি সরকার আইএসআইএল-কে নানা সময়ে অস্ত্রসহ নানা ক্ষেত্রে সহায়তা দিয়ে এসেছে বলে নানা তথ্য-প্রমাণ প্রকাশিত হয়েছে।

সূত্রঃ http://www.reuters.com/article/2015/07/30/us-mideast-crisis-turkey-attack-idUSKCN0Q412W20150730

http://www.bbc.com/news/world-middle-east-33719831

Advertisements

কমিউনিস্ট গেরিলাদের বিরুদ্ধে তুরস্কের বিমান হামলা জোরদার

Turkish-F-16_3386016c

প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান কুর্দি কমিউনিস্ট গেরিলাদের(পিকেকে-PKK) সাথে শান্তি আলোচনার সম্ভাবনা নাকচ করে দেয়ার পর ইরাকের উত্তরাঞ্চলে অবস্থান নিয়ে থাকা পিকেকে যোদ্ধাদের ওপর বিমান হামলা জোরদার করেছে তুরস্ক। আইএস বিরোধী কুর্দিদের ওপর হামলাকে তুরস্কের কৌশলগত ভুল বলে মন্তব্য করেছেন ইরানি সেনা প্রধান।

31-Turkey-Blast-EPA-v2
ইরকের উত্তরাঞ্চলীয় পার্বত্য এলাকা আমাদিয়া এখন প্রায় জনশূন্য। কমিউনিস্ট কুর্দি গেরিলাদের দমনের নামে গত রোববার থেকে এখানে বিমান হামলা শুরু করে তুরস্ক। কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টি–পিকেকে-র সাথে শান্তি আলোচনা নয়। মঙ্গলবার তুর্কি প্রেসিডেন্টের এমন বক্তব্যের পর বুধবার রাত থেকে বিমান হামলার মাত্রা আরও বাড়িয়ে দেয় তুরস্ক। প্রাণভয়ে এলাকাটি ছেড়ে পালাচ্ছে সাধারণ মানুষ।

স্থানীয় এক ব্যক্তি বলেন, “বিমান হামলার ভয়ে বাড়ি ঘর ছেড়ে পালিয়েছে গ্রামের অর্ধেক মানুষ। ক্ষেতের সব ফসল নষ্ট হয়ে গেছে আমাদের। সারাক্ষণই উৎকণ্ঠায় দিন কাটছে। আমরা চাই তুরস্ক সরকার আর পিকেকে এ সমস্যার শান্তিপূর্ণ সমাধান করবে।”

অপর এক ব্যক্তি বলেন, “আমার পাশের বাড়িতেই বোমা হামলা হয়েছে। এতে ক্ষতি হয়েছে আমার বাড়িরও। এরকম চলতে থাকলে কোন মানুষই থাকতে পারবে না এই গ্রামে।”

তুরস্কের পক্ষ থেকে সেদেশের কুর্দীদের সন্ত্রাসী হিসেবে চিহ্নিত করা হলেও ইরান কুর্দীদের গণ্য করছে আইএস বিরোধী শক্তি হিসেবে। কুর্দি বাহিনীর ওপর এ ধরনের হামলাকে তুরস্কের কৌশলগত ভুল বলে মন্তব্য করেছেন ইরানের সেনা প্রধান মেজর জেনারেল হাসান ফিরোজাবাদি।

সূত্রঃ http://somoynews.tv/pages/details/%E0%A6%95%E0%A7%81%E0%A6%B0%E0%A7%8D%E0%A6%A6%E0%A6%BF-%E0%A6%9C%E0%A6%99%E0%A7%8D%E0%A6%97%E0%A6%BF%E0%A6%A6%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%B0%E0%A7%81%E0%A6%A6%E0%A7%8D%E0%A6%A7%E0%A7%87-%E0%A6%A4%E0%A7%81%E0%A6%B0%E0%A6%B8%E0%A7%8D%E0%A6%95%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%A8-%E0%A6%B9%E0%A6%BE%E0%A6%AE%E0%A6%B2%E0%A6%BE-%E0%A6%9C%E0%A7%8B%E0%A6%B0%E0%A6%A6%E0%A6%BE%E0%A6%B0


ভারতঃ ‘রাষ্ট্র বিশ্বায়নের একটি এজেন্ট’ – কবি ভারাভারা রাও

কবি ও লেখক ভারাভারা রাও

কবিলেখক ভারাভারা রাও

কবি ও লেখক ভারাভারা রাও বলেছেন, এদেশে বিশ্বায়নের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার একটি মডেল দাঁড় করাতে সক্ষম হয়েছে মাওবাদী পার্টি।

মঙ্গলবার শহীদ স্মরণ সপ্তাহ পালন উপলক্ষ্যে এক বক্তব্য প্রদান কালে তিনি বলেন, মাওবাদীরা শোষণমুক্ত, নিপীড়নমুক্ত ও ব্যক্তি সম্পত্তি মুক্ত একটি আত্মনির্ভরশীল সমাজের স্বপ্ন দেখেছিল।

তিনি বলেন, “বিশ্বায়নের নীতিমালাকে ছড়িয়ে দেয়ার এজেন্টে পরিণত হয়েছে রাষ্ট্র। মাওবাদীরাই একমাত্র পার্টি যারা বিশ্বায়নের নীতিমালার বিরুদ্ধে লড়াই করছে। এদেশের অরণ্য এলাকাগুলো কর্পোরেটদের হুমকির মুখে পড়েছে, কারণ ঐসব এলাকায় প্রাকৃতিক সম্পদের খনি রয়েছে এবং সস্তায় শ্রমিক পাওয়া যায়। এ কারণে অরণ্য এলাকা মাওবাদীদের কার্যক্রমের কেন্দ্রবিন্দু”।

তিনি উল্লেখ করেন, “সংবিধানে অরণ্যের সম্পদের উপর আদিবাসীদের অধিকার দেয়া হলেও দেশের অধিকাংশ অরণ্য যৌথ বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে”। তিনি আরো বলেন, গ্রিন হান্ট, থান্ডারবোল্ট ও বিজয়া ইত্যাদি অপারেশনের নামে দরিদ্র আদিবাসীদের উপর সহিংসতা চালাচ্ছে রাষ্ট্র।তিনি বলেন, আপাতবিরোধী হলেও এটা সত্য যে একটি গণতান্ত্রিক দেশের গোটা উত্তর-পূর্ব ও কাশ্মিরে শাসন চালাচ্ছে আর্মি। তিনি বলেন যতদিন শ্রেণী থাকবে ততদিন শ্রেণী সংগ্রাম থাকবে।

জনগণ যে শোষণ ও নিপীড়নকে জয় করতে পারে তার মডেল হল ছত্তিসগড়ের দণ্ডকারণ্যে মাওবাদী পার্টির গঠিত সরকার।

ওয়েস্টার্ন ঘাট এলাকায় মাওবাদী কার্যক্রমের প্রশংসা করে লেখক বলেন ঝাড়খণ্ড, ছত্তিসগড় ও ওয়েস্টার্ন ঘাটে পার্টি তাদের ঘাঁটি বিস্তার করার প্রচেষ্টা চালাচ্ছে।

তিনি বলেন, “মাওবাদী কর্মী ভার্ঘিসের সময় থেকে ওয়েস্টার্ন ঘাট এলাকায় সশস্ত্র সংগ্রামের ধারা চলে এসেছে। সরকার অপারেশন থান্ডারবোল্টের মাধ্যমে এই সংগ্রামকে ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা চালিয়েছে। সাম্প্রতিককালে, তারা মুরালি, রূপেশ ও সাইনার মত নেতাদের গ্রেফতার করেছে। এই গ্রেফতারের ফলে আন্দোলন বাধাগ্রস্ত হলেও তারা পুনরায় সংগঠিত হয়ে পাল্টা আঘাত হানবে”।

পরাত্তাম এম এন রাভুন্নি এর নেতা অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন।

সূত্রঃ

http://www.thehindu.com/news/national/kerala/state-an-agent-of-globalisation/article7475974.ece


বিপ্লবের গান – ‘বিপ্লবের রক্ত রাঙা ঝাণ্ডা উড়ে আকাশে, সর্বহারা জনতা জিন্দাবাদ বাতাসে’

fist-fight-red-communism-revolution-socialism


যে স্থানটিতে আইএস জঙ্গিরা জনগণকে জবাই ও নির্যাতন করেছিল, ঠিক একই স্থানে YPG যোদ্ধারা আইএসের পতাকা নামিয়ে ফেলে নিজেদের পতাকা উত্তোলন করে।
উল্লেখ যে, গত ২৭শে জুলাই কুর্দি YPG এর গেরিলা বাহিনী রণকৌশলগত ভাবে গুরুত্বপূর্ণ সারিন শহরটি আইএসের কাছ থেকে মুক্ত করে।

YPG, কমিউনিস্ট দল কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টি(পিকেকে-PKK) এর সহযোদ্ধা সংগঠন।

tumblr_ns9bbkuldW1sx76vio1_400

tumblr_ns9bbkuldW1sx76vio2_400


যখন আমি কুর্দি জনগণের বিরুদ্ধে আইএসের নৃশংসতা ও ইয়েজেদি নারীদের দাস হিসেবে বিক্রির কথা খবরে দেখলাম, তখনই আমি কমিউনিস্ট দল কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টি(পিকেকে-PKK)তে যোগদানের সিদ্ধান্ত নিই। আমি আইএসের বিরুদ্ধে ইয়েজেদি নারীদের জন্য প্রতিশোধ নিতে চাই। এটা কোন বিষয়ই না যে, এই যুদ্ধে আমি প্রাণ হারাতে পারি। আমি জানি, কেন যুদ্ধ করছি। আমি আইএসকে তাদের আচরণের প্রাপ্য শিক্ষাটাই দেব।

পিকেকের নারী মুক্তিযোদ্ধা 

'পিকেকে'র নারী মুক্তিযোদ্ধা

‘পিকেকে’র নারী মুক্তিযোদ্ধা


ভারতঃ চালসানি প্রসাদের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছে সিপিআই(এমএল) মাওবাদী

চালসানি প্রসাদ

চালসানি প্রসাদ

গত ২৫শে জুলাই বিপ্লবী লেখক সংঘ বা ভিরাসম(Viplava Rachayithala Sangham) এর অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা চালসানি প্রসাদের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছে সিপিআই(এমএল) মাওবাদী অন্ধ্র-তেলেঙ্গানা প্রাদেশিক কমিটি। এই দুই প্রাদেশিক কমিটির মুখপাত্র যুগেন্দর দেব এক বিবৃতিতে জানান, চালসানি প্রসাদের মৃত্যু বিপ্লবী আন্দোলনের জন্য এক বড় ক্ষতি এবং তিনি লেখার মাধ্যমে তার সারাটা জীবন নিরীহ আদিবাসী জনগণের অধিকারের জন্যে লড়াই করে যান।

দেব বলেন- তার দুর্দান্ত মার্কসবাদী ভাবাদর্শ শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিপ্লবী রাজনীতি সম্পর্কে সচেতনতা তৈরিতে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

সূত্রঃ http://www.thehindu.com/news/cities/Hyderabad/chalasani-mourned/article7475928.ece