ছবিঃ নৃশংস নির্যাতন চালিয়ে মাওবাদী গেরিলা ‘বিদ্যাসাগর’ এবং ‘শ্রুতি থাঙ্গেল্লা’কে হত্যার প্রমাণ চিত্র

গত মঙ্গলবার ভোর রাতে ওয়ারাঙ্গল জেলা থেকে আগত দুই উজ্জ্বল ছাত্র/ছাত্রী কমরেড বিদ্যাসাগর(স্নাতক) এবং শ্রুতি থাঙ্গেল্লা (M.TECH) এতুনাগারাম বনে তেলেঙ্গনা পুলিশ সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে বলে প্রচার করছে রাষ্ট্র ।

কিন্তু হত্যা পরবর্তী হাসপাতালের ময়না তদন্ত ও পরবর্তীতে মৃতদেহের উপর বিভিন্ন আঘাত দেখে বোঝা যায় যে এই দুই মাওবাদীকে নৃশংস নির্যাতনের মাধ্যমে আগেই হত্যা করা হয়েছে এবং হত্যার পর মৃতদেহ ২টিকে এতুনাগারাম বনে নিয়ে গিয়ে পুনরায় মৃতদেহের উপর গুলি করে সাজানো বন্দুকযুদ্ধে হত্যার গল্প প্রচার করেছে তেলেঙ্গনা পুলিশ  ।

ঠিক যেমনটি- কিষেনজিকে হত্যার গল্পটি রাষ্ট্র বন্দুকযুদ্ধের নামেই সাজিয়েছিল।

11949344_686058368197383_1650010946796698216_n

12038328_686058331530720_7949722008924544116_n

12027781_686058238197396_5062623839664184995_n

12036795_686058318197388_3455172499242477949_n

12038268_686058258197394_5114140231318192677_n

11998847_686058234864063_5092147171983396776_n

11261797_686058308197389_7735017518641946388_n

12027620_686058288197391_7605644806197230301_n

12006359_686058371530716_792308212728505959_n

11260361_686058438197376_9173491477729301699_n

11261797_686058308197389_7735017518641946388_n

z

12006359_686058371530716_792308212728505959_n

11988460_686058391530714_5542942119459915384_n

12011235_686058298197390_9086723474359767897_n

12036389_686058271530726_2472265828520782529_n

12038285_686058251530728_8817326382874860068_n

Advertisements

ছবিঃ উজ্জ্বল মাওবাদীদের হত্যার প্রতিবাদে জনগণের বিক্ষোভ

মাওবাদী দুই উজ্জ্বল মেধাবী ছাত্র/ছাত্রী কমরেড বিদ্যাসাগর(স্নাতক) এবং শ্রুতি থাঙ্গেল্লা (M.TECH)কে নৃশংস নির্যাতন চালিয়ে হত্যার প্রতিবাদে কবি ভারাভারা রাওয়ের নেতৃত্বে জনগণের বিক্ষোভ

12004853_894543530599542_8503036679225716040_n

12036399_894542923932936_3869184990870260311_n

12039774_894542333932995_7352245060039744136_n

VARAVARARAO_2550026f


নেপালে নতুন সংবিধানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ

0,,18669072_303,00

নেপালের পার্লামেন্টে নতুন সংবিধান অনুমোদিত হয়েছে বলে জানিয়েছে গণমাধ্যম।

বুধবার নতুন সংবিধানের পক্ষে ৫০টি ও বিপক্ষে মাত্র ২৫টি ভোট পড়ে। নতুন এই সংবিধানের বিরুদ্ধে নেপালে বিক্ষোভ করছে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়গুলো। বিক্ষোভে এরই মধ্যে অন্তত ৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানায় গণমাধ্যম। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়গুলোর দাবি নতুন এই সংবিধানের আইনগুলো বৈষম্যমূলক।

এদিকে, দেশটিকে হিন্দু রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণার দাবিতে বিক্ষোভ করছে হিন্দু সংগঠনগুলো। নতুন সংবিধান অনুযায়ী সাতটি প্রদেশে বিভক্ত হবে নেপাল।