‘গণ প্রজাতান্ত্রিক চীন’ এর ঘোষণা দিচ্ছেন কমরেড মাও সে তুং(ভিডিও)

Advertisements

ভারত/মুম্বাইঃ সিপিআই(মাওবাদী)-র কেন্দ্রীয় সদস্য ‘অনুরাধা গান্ধী’ স্মারক বক্তৃতা (৭ম)

anuradha_gandhi_india_maoist

অনুরাধা গান্ধী(১৯৫৪- ১২ই এপ্রিল, ২০০৮), ভারতীয় বিপ্লবের একজন নেতৃস্থানীয় সংগঠক ও চিন্তাবিদ। তিনি ছিলেন মুম্বাই ও নাগপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজ বিজ্ঞানের অধ্যাপক এবং এই দুই শহরে গণতান্ত্রিক অধিকার রক্ষা কমিটির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। পরবর্তীতে তিনি ভারতের কেন্দ্রীয় বনাঞ্চলে জনগণের উপর অন্যায় আচরণের বিরুদ্ধ আন্দোলনে যুক্ত হন এবং সিপিআই(মাওবাদী)-র কেন্দ্রীয় সদস্য ও কেন্দ্রীয় মহিলা উপ কমিটির প্রধান হিসেবে মুখ্য ভূমিকা পালন করেন। তিনি ছিলেন দৃঢ়, নির্ভীক এবং দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহণকারী. দূরদর্শী বিবেচক। ১৯৮৩ সালে তিনি কেন্দ্রীয় সদস্য কোবাদ গান্ধীকে বিয়ে করেন। দুঃখজনক ভাবে ২০০৮ সালের এপ্রিলে সেরেব্রাল ম্যালেরিয়াতে আক্রান্ত হয়ে তিনি মারা যান। মৃত্যুর দিনটিতেও তিনি নারী ক্যাডারদের নেতৃত্বের দক্ষতা উন্নয়নের উপর প্রশিক্ষণ দিয়েছিলেন ।

12074666_10153750458387009_3103231769510384160_n


ভারত/হায়দ্রাবাদঃ ১১ই অক্টোবর ‘এনকাউন্টার মুক্ত তেলেঙ্গনা’ দাবীতে জনসভা

Poster_05-06-2015_English_Colour-copy-1024x791


মার্কসবাদী গেরিলা দল ZPRA পরিচিতি –

9_149491

জিম্বাবুয়ে আফ্রিকান পিপলস ইউনিয়নের আর্মড উইং জিম্বাবুয়ে পিপলস রেভ্যুলুয়েশন আর্মি। রোদশিয়ার গেরিলা এ দলটি সংক্ষেপে ZPRA/জেডপিআরএ নামে অধিক পরিচিত। মূল দলের সঙ্গে কিছুটা স্বতন্ত্রতা বজায় রেখে গেরিলা দল জিম্বাবুয়ে পিপলস রেভ্যুলুয়েশন আর্মি মার্ক্সিস্ট-লেলিনিস্ট মতাদর্শে উজ্জীবিত। অন্যদিকে মূল রাজনৈতিক দল জিম্বাবুয়ে আফ্রিকান পিপলস ইউনিয়ন মাওবাদী মতাদর্শকে পাথেয় হিসেবে মেনে নিয়েছিল। রোদেশিয়ান সরকারের নৈরাজ্য আর অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সরব হয়ে যাত্রা শুরু করে এ গেরিলা দলটি। নিজ দেশ এবং নিজস্ব গোত্রের অস্তিত্ব ও স্বাধীনতা রক্ষার্থে সোচ্চার হয়ে ষাটের দশকেই গেরিলা দল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে ZPRA/জেডপিআরএ। যাত্রার শুরু থেকেই আর্মড এ উইং গেরিলা ও মিলিটারি উভয় প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষিত হয় সুদক্ষভাবে। তবে স্থানীয় জনগণের স্বতঃস্ফূর্ত সহযোগিতায় দলটি নিজেদের গুপ্ত ঘাঁটিতে বেশ বহাল তবিয়তেই ছিল। মূল রাজনৈতিক দল ছাড়াও স্থানীয় জনগণ ও এএমসির সহযোগিতা পেয়েছিল বরাবরই। ZPRA/জেডপিআরএ রোদেশিয়ান সরকারের সঙ্গে বেশ কয়েকটি গেরিলা হামলায় লিপ্ত হয়। তবে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য গেরিলা হামলা হিসেবে ধরা হয় রোদেশিয়ান বুশ ওয়্যার যুদ্ধ। এ যুদ্ধের পর পরই গেরিলা দল ZPRA/জেডপিআরএ প্রায় বিলুপ্ত হয়ে পড়ে। আশির দশকের পর থেকে এ গেরিলা দলটির কোনো উপস্থিতি টের পাওয়া যায় না। জাতীয়তাবাদী নেতা জেসন মায়োর নেতৃত্বে গেরিলা এ দলটি প্রথম আত্মপ্রকাশ করে ১৯৬৮ সালে। দীর্ঘ ১২ বছরের স্থায়িত্বকালে গেরিলা এ দলটি সর্বাধিক সচল ছিল ১৯৭৯ সালে। এ সময়ে দলটির উল্লেখযোগ্য কমান্ডার ছিল আলফ্রেড নিকিতা ম্যাঙ্গেনা ও লুকাউট মাকুসু।

51YRXxpnZXL._SY344_BO1,204,203,200_