পোস্টারঃ অক্টোবর ১৭-২৪, ফিলিস্তিনের প্রতিরোধকে সমর্থন জানান!

অক্টোবর ১৭-২৪, ফিলিস্তিনের প্রতিরোধকে সমর্থন জানান

আহমাদ সাদাত, জর্জ আবদাল্লা সহ ফিলিস্তিনের সকল কারাবন্দীদের মুক্তি চাই! 

সাম্রাজ্যবাদী ও প্রতিক্রিয়াশীলদের কারাগারে আটক সকল রাজবন্দীদের মুক্তির দাবীতে অমুষ্ঠিত সব ধরনের কার্যক্রমের প্রতি ‘লাল সংবাদ‘ সমর্থন জানাচ্ছে।

WEEKOFACTION-631x838

saadat-2015_Page_1-e1444318140830

Advertisements

তুরস্কঃ TKP/ML- TiKKO-র তিনজন মাওবাদী গেরিলা যোদ্ধা শহীদ হয়েছেন

kaypakkayahaberparti_0

tikko_gerillasi_sehit_dustu

গত বুধবার রাতে রাষ্ট্রীয় সেনাবাহিনীর সাথে সংঘর্ষে TKP/ML- TiKKO এর তিনজন মাওবাদী গেরিলা শহীদ হয়েছেন। পুলুর (ওভাচিক) এলাকার মারকান সাহভারদি গ্রামে তুরস্কের সেনাবাহিনী বড় ধরনের অপারেশন চালায়। এতে মাওবাদী TKP/ML- TiKKO এর তিনজন গেরিলা শহীদ হয়েছেন। দারসিম প্রদেশের ওভাচিক শহরের নিকটে সাহভারদি গ্রামে মিলিটারি অপারেশন চালানো হয় যাতে সহযোগিতা করে বিমান বাহিনী। সকাল ১১টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত এই অপারেশন চলে। এতে মিলিটারি ও TKP/ML-TiKKO এর গেরিলাদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ চলে। গ্রামবাসীদের প্রদত্ত তথ্য অনুযায়ী, মিলিটারীদের সাথে সংঘর্ষে ও বিমানবাহিনীর হেলিকপ্টার হামলার ফলে তিনজন মাওবাদী গেরিলা নিহত হয়। এছাড়াও, সাহভারদির ৪ জন গ্রামবাসীকে গ্রেফতার করে গেন্ডারমেরি মিলিটারি পোস্টে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

অনুবাদ সূত্রঃ http://www.nouvelleturquie.com/en/guerilla-en/pulur-3-tikko-fighters-have-been-martyred/

http://www.ozgurgelecek.net/manset-haberler/17186.html?task=view


পোস্টারঃ ATIK এর কারারুদ্ধ বন্দীদের মুক্তি চাই

upodutak_ENGLISH


তুরস্ক/ইস্তাম্বুলঃ ‘সন্ত্রাস বিরোধী’ অপারেশনে একজন নারী বিপ্লবীকে হত্যার চেষ্টা

12063659_153182725033212_5669827652962406272_n

dilek-dogan

ইস্তাম্বুলের প্রতিবেশী এলাকা আতাসেহির ও সারিয়েরে পুলিশের TMS বিভাগ একাধিক হামলা চালিয়েছে। সোমবার ভোরবেলা সারিয়েরের কুচুক আরমুতলু এবং আতাসেহিরের ১ নম্বর মায়িস এলাকায় পুলিশ যুগপৎ হামলা চালায় ও অনেককে গ্রেফতার করে। এই অপারেশন চলাকালীন দিলেক দোগান(২৫) নামে একজন বিপ্লবী নারীকে আত্মঘাতী বোমা হামলার পরিকল্পনার অভিযোগে গুলি করে হত্যার চেষ্টা করে পুলিশ। পুলিশ তার পরিধেয় কাপড় খুলে ফেলে। তাকে আশংকাজনক অবস্থায় ওকমেদানি স্টাডি ও রিসার্চ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। দিলেক দোগানকে হত্যা চেষ্টার পর হাসপাতালে আগত তার আত্মীয় স্বজনদেরকে হয়রানি করার চেষ্টা করা হয়। দিলেক দোগানের জন্য জরুরী ভিত্তিতে ও নেগেটিভ রক্ত প্রয়োজন।

অনুবাদ সূত্রঃ http://www.nouvelleturquie.com/en/women/istanbul-anti-terrorism-operation-1-revolutionary-slaughtered/


ভারতে দলিতদের ওপর অত্যাচার বাড়ছে, যমুনানগরে যুবককে পুড়িয়ে হত্যা

রজত সিং

রজত সিং

হরিয়ানার ফরিদাবাদে এক দলিত পরিবারের দুটি শিশুকে জীবন্ত পুড়িয়ে হত্যার রেশ কাটতে না কাটতেই এবার এক দলিত যুবককে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা খবর প্রকাশিত হয়েছে।

হরিয়ানার যমুনানগরে রাদৌর জেলার মনসুরপুর গ্রামে মঙ্গলবার রাতে কয়েকজন দুর্বৃত্ত রজত সিং নামে ২১ বছর বয়সী দলিত যুবককে গায়ে কেরোসিন ঢেলে জীবন্ত পুড়িয়ে হত্যা করে। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় রাদৌর সিভিল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে চিকিৎসকরা তাকে যমুনানগর সিভিল হাসপাতালে রেফার করেন। তার অবস্থার অবনতি হলে চন্ডিগড় পিজিআইতে পাঠানো হয়। যদিও তার পরিবারের লোকজন তাকে মুলানা মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে যায়। কিন্তু রাত একটা নাগাদ ওই যুবক মারা যায়। গতকাল ময়না তদন্ত শেষে তার শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়।

এদিকে, ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর এক রিপোর্টে প্রকাশ, দেশে ২০১৩ সালে দলিতদের অত্যাচারের ঘটনা ছিল ৩৯ হাজার ৪০৮টি। ২০১৪ সালে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৭ হাজার ৬৪ হয়েছে।

২০০৯ সালে দলিত নিগ্রহের ঘটনা ছিল ৩৩ হাজার ৫৯৪ টি। ২০১০ সালে এই সংখ্যা ছিল ৩২ হাজার ৭১২। ২০১১ এবং ২০১২ সালে দলিত নিগ্রহের ঘটনা ছিল যথাক্রমে ৩৩ হাজার ৭৭৯ এবং ৩৩ হাজার ৬৫৫ টি।

২০১৩ সালে ৬৭৬ জন দলিতকে হত্যা করা হয় যদিও ২০১৪ সালে এই সংখ্যা ৭৪৪টিতে পৌঁছে।

নিগ্রহ এবং হত্যার পাশাপাশি দলিত মেয়েদের ধর্ষণের ঘটনাও গত ২০১৩ সালের তুলনায় ২০১৪ সালে বেড়েছে। এই দুই বছরে ধর্ষণের ঘটনা ছিল যথাক্রমে ২ হাজার ৭৩ টি এবং ২ হাজার ২৩৩টি।

অনুবাদ সূত্রঃ http://naidunia.jagran.com/state/delhi-ncr-now-dalit-man-burnt-alive-in-yamunanagar-526120


ভারতীয় সেনাবাহিনীতে নারী সেনাদের উপর যৌন হয়রানির অভিযোগ

Rehearsal for the Republic Day parade

ভারতের একজন নারী সেনা কর্মকর্তা তার কমান্ডিং অফিসারের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির মামলা করেছেন। এই বছরের প্রজাতন্ত্র দিবসে ‘নারী শক্তি’র প্রতীক হিসাবে কুচকাওয়াজে তিনি অংশ গ্রহণ করেছিলেন। ওই নারী কর্মকর্তার বাবা প্রতিরক্ষা মন্ত্রী মনোহর পরিকরকে কমান্ডিং অফিসারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য একটি চিঠি পাঠিয়েছেন। চিঠিতে তিনি অভিযুক্ত সেনা কর্মকর্তার শাস্তি স্বরূপ তাকে অন্যত্র বদলি করে পাঠানো হয়েছে বলে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন। প্রায় দুই মাস আগে এ ব্যাপারে অভিযোগ করা হয়। তবে কর্মক্ষেত্রে নারীদের যৌন হয়রানি কমিটি এ মাসের শুরুর দিকে অভিযোগটি আমলে নেয় এবং কমান্ডিং অফিসারের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করে। প্রতিরক্ষা বিভাগের সূত্র থেকে জানা যায়, যৌন হয়রানির বিষয়টির দিকে কর্তৃপক্ষের সজাগ দৃষ্টি রয়েছে এবং যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানান। ২৬ বছর বয়সী ক্যাপ্টেন রাজস্থানের আলওয়ার সামরিক স্টেশনের দায়িত্ব দেয়া হয় এবং ২০১৩ সালের মার্চ মাসে ভারতীয় সেনাবাহিনীর কমিশন লাভ করেন। অভিযোগকারী নারীর বাবা বলেন, এ বছরে ‘নারী ক্ষমতায়নে’ রাজপথে মিছিল করেছিল সেই সেনা কর্মকর্তার বাবা হিসেবে আমি গর্বিত। তবে তিনি এটাও বলেন যে, আমি আজ হতাশ কারণ আমার মেয়ে তার সিনিয়র কমান্ডিং অফিসার দ্বারা যৌন হয়রানির শিকার। নারী সেনা কর্মকর্তার বাবা চিঠিতে জানিয়েছেন, উচ্চ কর্মকর্তারা কমান্ডিং অফিসারের অন্যত্র পোস্টিং করেছে এবং সে ইউনিট ছেড়ে যাবার সময় আমার সন্তানের ভাবমূর্তি নষ্ট করার চেষ্টা করে।

উল্লেখ্য যে, দীর্ঘদিন ধরে ভারতীয় নৌ, স্থল ও বিমান বাহিনীতে উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা তাদের নিম্ন স্তরের নারী কর্মকর্তাদের যৌন হয়রানি করে আসছে, তা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মিডিয়াতে প্পচারিত হয়ে আসছে।

সূত্রঃ http://www.thecitizen.in/NewsDetail.aspx?Id=5545&ARMY%2FOFFICER%2FSEXUALLY%2FASSAULTED%2FBY%2FSENIOR


ভারতঃ মাওবাদী বিরোধী অভিযানে হেলিকপ্টার দিয়ে হামলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার

11254160_1168066293209590_6978471362157151772_n

ভারতে মাওবাদী বিরোধী অভিযানে হেলিকপ্টার দিয়ে হামলা চালানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। দেশটির  ছত্তিশগড়ের বাস্তার এলাকায় মাওবাদী গেরিলাদের বিরুদ্ধে পাল্টা হামলার চালানোর জন্য ভারতীয় বিমান বাহিনীর এমআই-১৭ হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হবে।  আত্মরক্ষার্থে এ জাতীয় পাল্টা হামলা চালানো হবে বলে খবরে দাবি করা হয়েছে।

বাস্তার এলাকায় মাওবাদী গেরিলা বিরোধী অভিযানে ভারতীয় বিমান বাহিনীর চারটি হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হচ্ছে। এর মধ্যে কেবল এমআই-১৭ দিয়েই আকাশ থেকে হামলা চালানো সম্ভব।

মাওবাদী গেরিলা বিরোধী অভিযানের সহকারী মহাপরিচালক আর কে ভিজ বলেছেন, পাল্টা বা প্রতিশোধমূলক হামলা চালানোর অনুশীলন করা হয়েছে। এখন থেকে মাওবাদীরা হেলিকপ্টার লক্ষ্য করে গুলি চালালে তার জবাব দেয়া হবে।  পাল্টা হামলার জন্য এমআই-১৭ ব্যবহার করা হবে বলে জানান তিনি।

সাধারণ ভাবে নিরাপত্তা বাহিনীর শিবিরে রেশন পৌঁছে দেয়া বা আহত জওয়ানদের উদ্ধারে হেলিকপ্টার ব্যবহার হয়। মাওবাদী গেরিলা নিয়ন্ত্রিত এলাকার আকাশ দিয়ে উড়ে যাওয়ার সময় হামলার শিকার হয় এ কাজে নিয়োজিত হেলিকপ্টার। এ জাতীয়  হামলায় অনেক কমান্ডো নিহত এবং হেলিকপ্টার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

আর এ প্রেক্ষাপটে হেলিকপ্টার থেকে হামলার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এ জাতীয় পাল্টা হামলার কৌশল তৈরির জন্য ভারতীয় বিমান বাহিনী, ছত্তিশগড়ের পুলিশ বাহিনী এবং বিএসএফ একযোগে কাজ করেছে।

ভারতীয় বিমান বাহিনীর এমআই-১৭ হেলিকপ্টার

ভারতীয় বিমান বাহিনীর এমআই-১৭ হেলিকপ্টার

অনুবাদ সূত্রঃ http://indianexpress.com/article/india/india-news-india/chhattisgarh-iaf-practise-air-attacks-on-naxals-addl-dg/