ভারতঃ বিপ্লব তীব্রতর হবে, সতর্ক করে দিলেন মাওবাদী নেতা

vlcsnap-2015-11-13-16h58m23s618

খারিয়ার, ১৩ নভেম্বরঃ উড়িষ্যা-ছত্তিসগড় সীমান্তের কাছে উড়িষ্যার একটি দৈনিক পত্রিকার সাংবাদিকদের কাছে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে দেশ জুড়ে তীব্র খরা দেখা দেয়ায় আশংকা প্রকাশ করে সিপিআই (মাওবাদী) এর নেতা বলেছেন কেন্দ্রের কৃষক বিরোধী স্বৈরাচারী নীতিমালার বিরুদ্ধে বিপ্লব তীব্রতর হবে।

সিপিআই (মাওবাদী) এর নুয়াপাড়া-সোনপুর বিভাগীয় কমিটির মুখপাত্র বুধুরাম পাহাড়িয়া বলেন, দেশে যখন ভয়াবহ খরা দেখা দিয়েছে, কৃষক সম্প্রদায় চরম দুর্দশার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে তখন সরকার বিদেশী কোম্পানির কাছে খনি তুলে দিতে ব্যস্ত। এদেশে ১৯৪৩ থেকে ১৯৯৯ সালের মধ্যে ৪০ লাখের বেশী মানুষ খরায় মৃত্যুবরণ করেছে। পাহাড়িয়া বলেন, বিদেশী কোম্পানিদেরকে ধরে রাখা এবং জলবায়ু পরিবর্তনই এর জন্য দায়ী।

কেন্দ্রের বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকারকে আক্রমণ করে মাওবাদী নেতা উল্লেখ করেন, উন্নয়নের কথা বলে দেশের কাছে মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিদেশী কোম্পানির হাতে দেশের খনি ও খনিজ সম্পদ তুলে দিচ্ছে কেন্দ্র। পাহাড়িয়া বলেন, “সেচ প্রকল্প নিয়ে সরকার নীতিমালা তৈরি করেছে কিন্তু বাস্তবে তারা বিদেশী প্রতিষ্ঠানের কাছে পানি সরবরাহ করছে। এতে করে পানি দূষণ হচ্ছে ও ফলশ্রুতিতে জলবায়ু পরিবর্তন হচ্ছে। কৃষি ক্ষেত্রে জলবায়ু পরিবর্তন বড় ধরনের প্রভাব ফেলেছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উচ্চাকাঙ্ক্ষী ‘Make in India’  প্রচারণা বিষয়ে তীব্র সমালোচনা করে পাহাড়িয়া বলেন, “Make in India’ প্রচারণার মাধ্যমে দেশের উন্নয়নকে তরান্বিত করার বাজনা বাজিয়ে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী, আবার সেইসাথে তিনি কৃষকদেরকে দেশের মেরুদণ্ড আখ্যা দিয়েছেন। কিন্তু বাস্তবে ‘Make in India’  হয়ে গেছে ‘Take from India’। বর্তমানে উড়িষ্যা ও ছত্তিসগড়ের অধিকাংশ অঞ্চলে তীব্র খরা চলছে কিন্তু রাজ্য সরকার বা কেন্দ্র সরকার কেউই কৃষকদের জন্য কোন সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা দেয়নি। যা দেয়া হয়েছে তা সমুদ্রে এক ফোঁটা জলের মতই।

মাওবাদী নেতা আরো বলেন, “প্রধানমন্ত্রী বিশ্বভ্রমণের আনন্দে মেতে আছেন। এই পরিস্থিতিতে কৃষকদের স্বার্থ রক্ষা করার কথা যেসব রাজনৈতিক দলের তারা তাদের নিজেদের রাজনৈতিক পুঁজি তুলতে ব্যস্ত।” তিনি বলেন, তীব্র খরার কারণে কৃষকেরা আত্মহত্যা করতে শুরু করেছে। পাহাড়িয়া এ পরিস্থিতিতে কৃষকদের আত্মহত্যা না করে সরকারের কৃষক বিরোধী নীতিমালার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান। প্রতি একর শস্যের ক্ষয়ক্ষতির জন্য মাওবাদীরা ৪০০০০ রুপি ক্ষতিপূরণের দাবী জানিয়েছে। এছাড়াও মৃত কৃষকদের পরিবারের জন্য ৫ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণ ও কাজের সুযোগ প্রদান, সকল দরিদ্র জনগণের জন্য সেচ সুবিধা, এক বছরের জন্য বিনা খরচে বীজ ও সার প্রদান এবং রেশন কার্ড প্রদানের দাবী জানিয়েছে মাওবাদীরা।

তিনি বিভিন্ন রাজনৈতিক দলকে তাদের দলীয় স্বার্থ নির্বিশেষে কৃষকদের স্বার্থে লড়াই করার আহ্বান জানান।

অনুবাদ সূত্রঃ http://www.orissapost.com/will-intensify-revolt-warns-maoist-leader/

Advertisements


Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.