প্রতিদিন কমরেড সিরাজ সিকদারের কবিতা- (১২) ‘ট্রেনের বাইরে রাত’

poster, siraj sikder, 17 X 22 inch, 2 colour, 2005

ট্রেনের বাইরে রাত

চাঁদনী রাত, হিমেল হাওয়া।

দ্রুতগামী ট্রেনে চলেছি আমরা।

আবছা আঁধারে

লাইনের ধারে

ঝোপ-ঝাড় গাছগুলো

দ্রুতবেগে চলে যায়।

ফালি ফালি আঁকাবাঁকা

পায়েচলা পথ-

আলেভরা ক্ষেতগুলো

মিশে গেছে গ্রামে।

ঝোপ-ঝাড়-গাছ-গাছালি;

ছনেঢাকা কুঁড়ের ছায়া;

মাঝে মাঝে ছোট ছোট খাল-

জলের রেখা;

ক্ষেতগুলো জলে ভরা

তার মাঝে আকাশের ছায়া;

আবছা রহস্য ঘেরা।

মাঝে মাঝে চমকে উঠে আলোর মেলা

আধুনিক কারখানা।

তার পাশে, আবছা আঁধারে

ছনে ঢাকা কুঁড়ের ছায়া-

ক্লান্ত শ্রমিকেরা

ঘুমিয়েছে মাটির বিছানায়।

অতিরিক্ত বোঝাই কামরায়

ক্লান্ত কমরেড ঘুমে ভেঙ্গে পড়ে।

বাইরে আলোর মশাল হাতে স্টেশন

ঝোপ-ঝাড়-গাছ-গাছালি-

দ্রুতবেগে চলে যায়।

তারপর আলেভরা ক্ষেত

দূরে বনের দেয়াল;

মেঘহীন আকাশ

মিটমিটে তারা

আধখানা চাঁদ

চলছে আমাদের সাথে।

ঐ আলগুলো কবে উঠে যাবে!

রাতেও কর্মব্যস্ত ক্ষেতগুলো

কবে জনগণের সম্পদ যোগাবে!

আলোয় উজ্জ্বল কারখানা-

তার পাশে আবছা আঁধারে-

ছনেঢাকা কুঁড়ের শ্রমিকেরা

কবে মানুষের মত বাঁচবে?


ভারতঃ অপহৃত ৩ ছাত্রকে মুক্তি দিল মাওবাদীরা

abducted_Students_2681645f

পুনে: গত ২৯শে ডিসেম্বর ছত্তিশগড়ে বস্তারের মাওবাদী এলাকায় অপহৃত তিন ছাত্রছাত্রীকে আজ মুক্তি দিয়েছে মাওবাদীরা। মুক্তির পর তারা সুকুমা জেলার চিন্তালপুরের CRPF ক্যাম্পে পৌঁছেছে। বস্তারের পুলিশ প্রধান কাল্লূরি তাদের মুক্তির বিষয়ে, দক্ষিণ বস্তারের সকল পুলিশি অভিযান স্থগিত করেছিল।

বিজাপুরে মাওবাদী অধ্যুষিত এলাকায় একটি পিস সাইকেল র‍্যালিতে যোগ দিয়েছিলেন তাঁরা। পুনে থেকে ওডিশা পর্যন্ত ছিল তাদের এই র‍্যালি।

‘ভারত জোড়ো’ অভিযানে যোগ দিয়েছিলেন তাঁরা। মহারাষ্ট্র, ছত্তিশগড় ও ওডিশায় শান্তির বার্তা দিতেই তাদের এই অভিযান। বিজাপুরের কাছে কুতরু-বাসাগোদা রোড থেকে তাদের অপহরণ করা হয় বলে অভিযোগ। ৩০ ডিসেম্বর ছত্তিশগড়ের বাস্তারের কাছে এই ঘটনা ঘটে। অপহৃত ছাত্রদের নাম আদর্শ পাতিল, বিলাস ভালাকে ও শ্রীকৃষ্ণ শেওয়ালে। শনিবার সুকমা থেকে ফোনে অপহরণের কথা জানায় এক অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি। এরপরই বাস্তার পুলিশকে এই অপহরণের কথা জানায় আইবি। মাওবাদী কমান্ডার পাপা রাও এই অপহরণ করেছে বলে পুলিশের অনুমান।

অনুবাদ সূত্রঃ http://www.thehindu.com/news/national/other-states/abducted-maharashtra-students-released-by-maoists/article8061221.ece


ভারতঃ মাওবাদী নাগেশেকে ঠান্ডা মাথায় হত্যা করেছে পুলিশঃ অভিযোগ মানবাধিকার ফোরামের

01KKNMSHI-W049__02_2680010f

শুক্রবার মানবাধিকার ফোরাম (Human Rights Forum) অভিযোগ করে, মাওবাদী নাগেশ বন্দুকযুদ্ধে নিহত হননি, পুলিশ তাকে ঠান্ডা মাথায় হত্যা করেছে। মানবাধিকার ফোরামের পক্ষ থেকে ভি এস কৃষ্ণের নেতৃত্বে ছয় সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি অন্ধ্র প্রদেশের চিন্তুর মন্ডলের মাল্লামপেতা গ্রাম ও ছত্তিসগড়ের সুকমা জেলার কোন্তা ব্লকের পুসুগুদেম গ্রাম পরিদর্শনে যায়। কমিটির পক্ষ থেকে অভিযোগ, ২৮শে ডিসেম্বর দুপুরবেলা পুসুগুদেম গ্রাম থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরে সাদা পোশাক পরিহিত পুলিশের বিশেষ দলের তিনজন সদস্য নাগেশকে গুলি করে হত্যা করে।

কৃষ্ণ অভিযোগ করেন, “পরে পুলিশ নাগেশের মৃতদেহ অন্ধ্র প্রদেশের সীমান্ত পার করে মাল্লামপেতা গ্রামের সীমানায় একটি ট্যাংকের পাশে ফেলে রাখে এবং এই হত্যাকান্ডকে বন্দুকযুদ্ধ বলে প্রচার করে।” মানবাধিকার ফোরামের দাবী, এই ঘটনায় জড়িত পুলিশদের আইন অনুযায়ী শাস্তি প্রদান করা হোক। নিরস্ত্র নাগেশকে গ্রেফতার করার সব ধরনের সুযোগ থাকা সত্ত্বেও পুলিশ তাকে গুলি করে হত্যা করে। এই তদন্ত কমিটির সদস্যদের মধ্যে ছিলেন মানবাধিকার ফোরামের সম্পাদক শেখ খাদের বাবু ও নির্বাহী কমিটির সদস্য কে সুধা ও ওয়াই রাজেশ।

অনুবাদ সূত্রঃ http://www.thehindu.com/news/national/andhra-pradesh/it-wasnt-an-encounter-hrf/article8056149.ece


তুরস্কে যৌথ বাহিনীর অভিযানে ১২জন কমিউনিস্ট কুর্দি যোদ্ধা নিহত

কমিউনিস্ট পিকেকে গেরিলা

কমিউনিস্ট পিকেকে গেরিলা

তুরস্কের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় এলাকায় দেশটির যৌথ বাহিনীর অভিযানে নিহত হয়েছে অন্তত ১২জন কমিউনিস্ট কুর্দিস্তান ওয়ার্কার্স পার্টি(পিকেকে)’র যোদ্ধা। এছাড়াও, এ অভিযানে নিহত হন এক তুর্কি সেনা ও দুই পুলিশ কর্মকর্তা।

দেশটির সেনাবাহিনী ও স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানায়, শুক্রবার দেশটির দিয়ারবাকির শহরে কমিউনিস্ট কুর্দি যোদ্ধাদের অবস্থান লক্ষ্য করে বিপুল সংখ্যক ট্যাঙ্কের মাধ্যমে এই অভিযান চালানো হয়।

এসময়, যৌথ বাহিনীর সদস্যরা কয়েকটি ভবন লক্ষ্য করে ট্যাঙ্ক থেকে গোলা ছুঁড়লে কমিউনিস্ট কুর্দি যোদ্ধারাও সেনাবাহিনীকে লক্ষ্য করে রকেট হামলা চালায়। এসময় দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে নিহত হন এক সেনা ও অন্তত ১২ কুর্দি যোদ্ধা।

এর আগে, বৃহস্পতিবার দেশটির সিজার ও সুর শহরে কমিউনিস্ট কুর্দি যোদ্ধাদের রকেট হামলায় নিহত হয় দুই পুলিশ সদস্য।