ভারতঃ অপহৃত ছাত্ররা জানিয়েছে নকশাল ও গ্রামবাসীরা কোন দুর্ব্যবহার করেনি

pune-youth-759

ছত্তিশগড়ে গত মাসে নকশালদের দ্বারা অপহরণের পাঁচদিন পর মুক্তি প্রাপ্ত পুনের তিন ছাত্র গতকাল জানিয়েছে নকশালরা তাদের সাথে কোন প্রকার দুর্ব্যবহার করেনি। তারা গাদচিরোলিতে পুলিশ সুপারিনটেনডেন্ট সন্দীপ পাতিলের উপস্থিতিতে এক সংবাদ সম্মেলনে নকশাল-অধ্যুষিত এলাকায় কঠোর জীবন সম্পর্কে জানতে এসে বন্দিদশার সময় তাদের অভিজ্ঞতা বলেন। অপহৃত ৩ ছাত্র- আদর্শ পাতিল, বিলাস ভালাকে ও শ্রীকৃষ্ণ শেওয়ালে-কে বিজাপুর জেলার বাসাগুদা গ্রাম থেকে গত ২৯শে ডিসেম্বর অপহরণ করে ২রা জানুয়ারি নকশালরা মুক্তি দেয়।

ছাত্ররা জানান, নকশালদের কাছে বন্দী থাকা অবস্থায় তাদের সাথে কোনরূপ দুর্ব্যবহার করা হয়নি। এই ছাত্ররা বিজাপুরে নকশাল অধ্যুষিত এলাকায় একটি পিস সাইকেল র‍্যালিতে যোগ দিয়েছিলেন। গত ২০শে ডিসেম্বর শুরু করা এই যাত্রায় পুনে থেকে ওডিশা পর্যন্ত ছিল তাদের এই র‍্যালি। ‘ভারত জোড়ো’ অভিযানে যোগ দিয়েছিলেন তাঁরা। মহারাষ্ট্র, ছত্তিশগড় ও ওডিশায় শান্তির বার্তা দিতেই তাদের এই অভিযান ছিল।

ছাত্ররা বলেন, “আমরা আমাদের অভিযানের অংশ হিসাবে দূরবর্তী এবং মাওবাদী প্রভাবিত আদিবাসী অঞ্চলে মানুষের জীবন অধ্যয়ন করতে গিয়েছিলাম এবং আমরা সম্পূর্ণরূপে তাদের উপস্থিতি সম্পর্কে জানতাম। কিন্তু নকশালরা অপহরণ করবে, এটা আশা করিনি”।

“গত ২৯শে ডিসেম্বর আমরা ছত্তিসগড়ের বাসাগুদা গ্রামে বিরতি দেই, ওই সময় সাধারণ পোশাক পড়া কিছু লোক এসে আমাদের সাথে সাক্ষাৎ করে হাত বেঁধে ফেলে, তখনি আমরা বুঝতে পারলাম যে অপহৃত হয়েছি। যদিও গ্রামবাসী আমাদের খাবার দিয়েছিল।”

“পরের দিন নকশাল ইউনিফর্ম পড়া একজন লোক আমাদের কাছে এসেছিলেন এবং আমাদের সফরের উদ্দেশ্য সম্পর্কে খোঁজ-খবর নেন”। আমাদের মানিব্যাগে কিছু টাকা ছিল, কিন্তু নকশালরা ও গ্রামবাসীরা সেগুলো স্পর্শ করেনি। তারা আমাদের ব্যাগ, ক্যামেরা, মোবাইল ইত্যাদি চেক করেছিল। জানুয়ারির ২ তারিখে আমরা ছাড়া পাই।”

পুনের ছাত্ররা বলেন, “আমরা সম্পূর্ণরূপে একটি ভিন্ন পৃথিবী দেখেছি, যেখানে মানুষ এখনও বঞ্চনার মধ্যে বসবাস করছেন। তারা বিদ্যুৎ, পুষ্টিকর খাবার বা ভাল জামাকাপড় থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছে “।

অনুবাদ সূত্রঃ http://www.business-standard.com/article/pti-stories/students-say-they-weren-t-ill-treated-by-naxals-in-captivity-116010501134_1.html



Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.