বিপ্লবী চলচ্চিত্রঃ ‘Cuba: An African Odyssey’

আন্তর্জাতিকতাবাদ এবং বিশ্বজুড়ে বিপ্লবী সংগ্রামের একটি মডেল হিসেবে কিউবা দাঁড়িয়ে আছে। এই তথ্যচিত্রে আফ্রিকান ঔপনিবেশিক আন্দোলন এবং কিউবার মধ্যেকার সম্পর্ক, কঙ্গোতে সিম্বা বিদ্রোহীদের চে গুয়েভারা কর্তৃক প্রশিক্ষণ ও অ্যাঙ্গোলার গৃহযুদ্ধে কিউবার হস্তক্ষেপের বিষয় রয়েছে।

cubaafricanodyssey_thumb

১ম পর্ব

২য় পর্ব

এই চলচ্চিত্রটির ঐতিহাসিক বিষয় সম্পর্কে জানতে ক্লিক করুন – 

https://lalshongbad.wordpress.com/2015/04/30/%E0%A7%AB%E0%A7%A6-%E0%A6%AC%E0%A6%9B%E0%A6%B0-%E0%A6%AA%E0%A6%B0%E0%A6%83-%E0%A6%95%E0%A6%99%E0%A7%8D%E0%A6%97%E0%A7%8B%E0%A6%A4%E0%A7%87-%E0%A6%95%E0%A6%AE%E0%A6%B0%E0%A7%87%E0%A6%A1-%E0%A6%9A/

Advertisements

ভারতঃ ৪ কমরেড হত্যার বদলা নেয়ার হুমকি মাওবাদীদের

maobadi-655x360

আওরঙ্গবাদ জেলায় ৪ মাওবাদীকে হত্যার ৩ দিন পর আওরঙ্গবাদের এসপি বাবু রাম সব স্টেশন হাউস কর্মকর্তা (SHOs)-দের জরুরি বৈঠক ডেকেছে এবং মাওবাদীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে নামার নির্দেশ জারী করে। এ সময় এসপি তাদের নিজ নিজ এলাকায় টহল জোরদার করা ও জেলায় এনকাউন্টার পরবর্তী মাওবাদীদের আন্দোলনের উপর নজর রাখতে SHOs- দের নির্দেশ দেয়।

এদিকে, সোমবার সিপিআই-মাওবাদী কেন্দ্রীয় জোনাল মুখপাত্র প্রমজিত গত শুক্রবার মাওবাদীদের হত্যার প্রতিশোধ নেয়ার হুমকি দিয়েছে। তিনি অভিযোগ করেন, তাদের ৪ সহকর্মীকে নিরাপত্তা কর্মীরা গ্রেফতার করে ভুয়া এনকাউন্টারের নামে হত্যা করেছে।  প্রমজিত বলেন, কমরেডদের আত্মোৎসর্গ কখনই বৃথা যাবে না এবং পুলিশের উপরই এর প্রতিশোধ নিতে হবে।

এখানে উল্লেখ করা যেতে পারে যে, মাওবাদীরা এর আগে মালি, সিমরা, ধীবরা এবং তান্দাওা পুলিশ স্টেশন ও মদনপুর জেলার একটি সিআরপিএফ ক্যাম্পে আক্রমন করেছিল।

উল্লেখ্য,  গত শুক্রবার বিহারে ভুয়া এনকাউন্টারের নামে এই মাওবাদীদের গুলি করে হত্যা করেছিল CRPF। বিহারের ঔরঙ্গাবাদ জেলার জঙ্গলে এই সংঘর্ষে AK 47 রাইফেল সহ প্রচুর অস্ত্রশস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার হয়েছে বলে জানিয়েছিল পুলিশ।

অনুবাদ সূত্রঃ http://timesofindia.indiatimes.com/city/patna/Maoists-threaten-to-take-revenge-of-killing-of-4-colleagues/articleshow/50537263.cms


ভারতঃ দক্ষিণ ছত্তিসগড়ে রেডক্রসের সাবেক প্রধান কর্মকর্তাকে পুলিশের হুমকি

Flag_of_red_cross_pictures

দক্ষিন ছত্তিসগড়ের আদিবাসীদের বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে লেখালেখির কারণে আগে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা নেতৃত্বে থাকা, [International Committee of The Red Cross [ICRC] ] ছত্তিসগড়ে রেডক্রসের সাবেক প্রধান কর্মকর্তা, ফ্রিল্যান্স লেখক মালিনী সুব্রামানিয়ামকে স্থানীয় পুলিশ হুমকি দিয়েছে। দি হিন্দু পত্রিকার সুত্রে জানা যাচ্ছে, রবিবার রাতে পুলিশ তার জগদলপুরস্থ বাসভবনে গিয়ে জানতে চায়- কেন তিনি বনে যান এবং আদিবাসীদের ইস্যু নিয়ে লেখালেখি করছেন? এ সময় মিসেস সুব্রামানিয়াম ঐ কর্মকর্তাদের অফিসের নিয়মিত সময়সূচিতে দেখা করতে বলেন। রেডক্রসের সাবেক এই প্রধান কর্মকর্তা তার মেয়েকে নিয়ে দক্ষিন ছত্তিসগড়ের প্রধান শহর জগদলপুরেই বাস করছেন। এর আগে দক্ষিন ছত্তিসগড়ে পুলিশ কর্তৃক সহায়তা পাওয়া একটি স্থানীয় সংগঠন ‘সামাজিক একতা মঞ্চ’ তাকে ঐ অঞ্চলের মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয় নিয়ে লেখালেখি থেকে বিরত থাকতে বলেছিল।  মিসেস সুব্রামানিয়াম ঘনিষ্ঠ সূত্রে দি হিন্দুকে বলেন, ২০ সদস্যের ‘সামাজিক একতা মঞ্চ’ এর একটি দল তার কাছে গিয়ে জানতে চায়- কেন তিনি পুলিশের বিরুদ্ধে লিখছেন এবং মাওবাদীদের বিরুদ্ধে নয় কেন ?

 মিসেস সুব্রামানিয়াম, একটি ডিজিটাল নিউজ পোর্টাল এ দক্ষিণ ছত্তিসগড়ের বস্তার অঞ্চলে সাংবাদিকদের গ্রেফতার, মিথ্যে আত্মসমর্পণ ও আদিবাসীদের দমন করতে ‘ধর্ষণ’কে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করার বিষয় নিয়ে ধারাবাহিক নিবন্ধ লিখেছিলেন। তার এবং অন্যান্য সাংবাদিকদের তদন্ত জাতীয় মানবাধিকার কমিশন কর্তৃক [এনএইচআরসি] অনুসন্ধানে ভুমিকা রেখেছিল। এর আগে তিনি দক্ষিণ ছত্তিসগড়ে ICRC-র প্রধান কর্মকর্তা থাকাকালীন মাওবাদী-অধ্যুষিত বিজাপুর ও সুকমা জেলার গ্রামের ভিতরে ভালো মানের ২টি মেডিকেল ক্লিনিক স্থাপন করেছিলেন।

icrc

অনুবাদ সূত্রঃ http://www.thehindu.com/news/cities/kolkata/former-red-cross-boss-threatened-in-south-chattisgarh/article8092596.ece