বিপ্লবী চলচ্চিত্রঃ ‘Hearts and Minds’

এই মার্কিন তথ্যচিত্রে ছবি এবং ভিডিও চিত্র দিয়ে ভিয়েতনাম যুদ্ধের বিরুদ্ধাচরণ করতে মার্কিন সামরিক কর্মকর্তাদের সাক্ষাৎকার দেখানো হয়েছে। এতে লক্ষ লক্ষ ভিয়েতনামী সৈন্য ও নাগরিকদের হত্যার ন্যায্যতা তুলে ধরতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মিথ্যে বক্তব্য প্রচার করা হয়েছে।

movie_149372

Advertisements

ছবিঃ জার্মানির বার্লিনে মাওবাদী যুবকদের প্রতিরোধ

1

2

12507511_1659931967609430_5994917558134047944_n

12524081_1659932027609424_482072023181717702_n


কারারুদ্ধ অধ্যাপক সাইবাবা চিকিৎসার অভাবে তার হাত হারানোর শঙ্কা প্রকাশ করেছেন

saibabaprof

গাদচিরোলিতে জেলা ও দায়রা জজ আদালতে প্রধান বিচারকের কাছে হাতে লেখা একটি চার পৃষ্ঠার  চিঠিতে, কারারুদ্ধ দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক জি সাইবাবা বিশেষ চিকিৎসা সেবা চেয়েছেন এবং মাটিতে বসে খাবারের ব্যবস্থার কারণে তার স্বাস্থ্যের দ্রুত অবনতি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন। গত ৫ই জানুয়ারী তারিখে NDTV তে প্রচারিত এক চিঠিতে হুইলচেয়ার আবদ্ধ থাকা ইংরেজির এই অধ্যাপক দাবী করেন যে, তিনি শারীরিক ভাবে ৯০ ভাগ অক্ষম। তিনি বলেন, “আমি হার্ট, লিভার, স্নায়ু, কিডনি ও গলব্লাডার সহ বিভিন্ন ধরণের খুব খারাপ রোগে ভুগছি, জেলে যাওয়ার পূর্বে আমার কর্মক্ষম বাঁ হাতটি বর্তমানে ক্রমান্বয়ে প্যারালাইজ হয়ে যাচ্ছে। আমার বাম কাঁধের জন্যে Indian Spinal Injuries Centre (ISIC) এ নিয়মিত চিকিৎসা নিয়েছি,  যা কারাগারে গুরুতরভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আমার স্নানের জন্যে এবং পা, পেছনের মেরুদণ্ডের স্নায়ুর ব্যাথা কমাতে ও ক্ষতিগ্রস্ত বা হাতের জন্যে গরম জল দরকার- এই সুবিধা আমাকে আগে দেয়া হত, আমাকে আবারো একই সুবিধা দেয়ার আহবান রাখছি- এগুলো ছাড়া আমি বেঁচে থাকতে পারবো না”। সাইবাবা আগে থেকেই তার পা ব্যবহার করতে না পারার কারণে তিনি তার দৈনন্দিন কাজে হাতের উপরেই নির্ভরশীল আছেন। তিনি আরো বলেন, “আগে আমি রোগের জন্যে বিভিন্ন থেরাপি নিতাম, বর্তমানে সেগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়েছে, এতে আমার বাঁ হাত বেশ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে, পোলিও’র কারণে আমার দুই পা সহ শরীরের ৯০ ভাগই অক্ষম, যার ফলে আমি না পারছি দাঁড়াতে, না পারছি হাঁটতে । আমি হুইল চেয়ারে আবদ্ধ হয়ে গেছি, আমার বাঁ হাতটির চিকিৎসা না হলে, এক হাত নিয়েই বেঁচে থাকতে হবে। যা আমার জীবনকে অনেকটা অসম্ভব পরিণতির দিকে নিয়ে যাবে।”

উল্লেখ্য যে, মাওবাদীদের সাথে যোগাযোগের কারণে অভিযুক্ত অধ্যাপক সাইবাবার ৩১শে ডিসেম্বর ২০১৫ পর্যন্ত জামিন ছিল।

2A736FB200000578-3157571-Dr_G_Naga_Saibaba_47_as_born_and_grew_up_in_East_Godavari_in_And-a-12_1436654691635

অনুবাদ সূত্রঃ http://www.huffingtonpost.in/2016/01/14/saibaba-jail-treatment_n_8975794.html


ভারতঃ বস্তারে কথিত এনকাউন্টারের নামে ৪ মাওবাদীকে হত্যা করেছে পুলিশ!

naxals-main

ভারতের ছত্তিশগড় রাজ্যের বিজাপুর জেলায় বাস্তারের একটি জঙ্গলে পুলিশের সঙ্গে কথিত এনকাউন্টারে চার মাওবাদী নিহত হয়েছেন। পুলিসের বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত মাওবাদী দমন ইউনিটের সঙ্গে আজ শুক্রবার সংঘর্ষ হয় মাওবাদীদের। আর তাতেই নিহত হয় এই ৪ মাওবাদী গেরিলা। মিডিয়ার কাছে অন্তত এমনটা দাবি করেছে পুলিস। বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে জানানো হয়, আজ ভোরে রাজ্যের রাজধানী রায়পুর থেকে প্রায় ৪৭০ কিলোমিটার দূরে বিজাপুরে এ ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ জানিয়েছে। জেলা পুলিশ-প্রধান কানাই লাল ধ্রুব বলেন, তুমুল বন্দুকযুদ্ধের পর এক নারী ও তিনজন পুরুষ মাওবাদীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে চারটি আগ্নেয়াস্ত্র ও চারটি চাইনিজ হাত-গ্রেনেড উদ্ধার হয়েছে। পুলিশের ভাষ্য, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালাতে গেলে তাদের সঙ্গে মাওবাদীদের বন্দুকযুদ্ধ হয়।

উল্লেখ্য যে, গত সোমবার সিপিআই-মাওবাদী কেন্দ্রীয় জোনাল মুখপাত্র প্রমজিত গত শুক্রবারে আওরঙ্গবাদে ৪ মাওবাদীকে হত্যার প্রতিশোধ নেয়ার হুমকি দিয়েছিলেন। তিনি অভিযোগ করেন, তাদের ৪ সহকর্মীকে নিরাপত্তা কর্মীরা গ্রেফতার করে ভুয়া এনকাউন্টারের নামে হত্যা করেছে। প্রমজিত বলেন, কমরেডদের আত্মোৎসর্গ কখনই বৃথা যাবে না এবং পুলিশের উপরই এর প্রতিশোধ নিতে হবে।

অন্যদিকে সিপিআই মাওবাদীর এক সাব জোনাল কমান্ডারকে গ্রেফতার করল ঝাড়খণ্ডের পুলিস। জগনারায়ণ যাদব ওরবে বিশালজি নামের ওই মাও নেতার মাথার দাম ছিল ৫ লক্ষ টাকা।

অনুবাদ সূত্রঃ http://www.thehindu.com/news/national/other-states/four-maoists-killed-in-bastar-encounter/article8111181.ece


ফিলিপিনের মাওবাদী আর্মিতে যুবকদের যোগদান বৃদ্ধি পাওয়ায় উদ্বিগ্ন সরকারী বাহিনী

1935491_1654414064827887_8666907650141027459_n

ফিলিপিনের সরকারের সম্মিলিত সামরিক বাহিনী (The Armed Forces of the Philippines-AFP/এএফপি), কর্ডিলেরা অঞ্চলে ফিলিপিনের কমিউনিস্ট পার্টির সশস্ত্র শাখা- নিউ পিপলস আর্মি(NPA)তে যুবকদের যোগদানের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত এই যুবকদের অধিকাংশই রাজধানী ম্যানিলা থেকে আসছে।

এদেরই একজন কমান্ডার কুরিন, এই নারী গেরিলা ফিলিপিনের একটি শীর্ষ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজ ছাত্রী, স্নাতক উত্তীর্ণ হবার পর তিনি ফরেন সার্ভিসে চাকরীর জন্যে আবেদন করেন। কিন্তু চাকরীতে ভাড়ায় কাজ করতে বললে তিনি তা প্রত্যাখ্যান করে, নিউ পিপলস আর্মিতে যোগ দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন। আরেকজন নারী গেরিলা আছেন নাম- কারহা, তিনি ফূগাওয়ের কিউপিদিলিমানের সাবেক সাংবাদিক ও ছাত্রী । এমন আরো অনেক গেরিলা আছেন, যারা দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিগ্রী নেয়ার পর রাষ্ট্রীয় বৈষম্য ও শোষণের কারণে মাওবাদী NPA আর্মিতে যোগ দেন।

একজন বিশেষজ্ঞ বলেছেন, সরকার তরুণদের মধ্যে অসন্তোষের মাত্রা  বাড়িয়ে নিজেদের শত্রু তৈরি করছে।

কিন্তু The Armed Forces of the Philippines-AFP/এএফপি বলছে, কমিউনিস্ট দলে যুবকদের যোগদান করা থেকে ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে তথ্যমূলক শিক্ষার শক্তিশালী কার্যক্রম চলতে থাকবে।

অনুবাদ সূত্রঃ

http://news.abs-cbn.com/video/nation/regions/v1/01/14/16/afp-alarmed-over-increasing-number-of-youth-joining-npa


ছবিঃ ICSPWINDIA- ভারতের গণযুদ্ধকে সমর্থন করুন!

PosterMay14


বিপ্লবী চলচ্চিত্রঃ ‘The Baader Meinhof Complex’

আন্দ্রিয়াস বাঁদের, উলরিকে মেইনহফ এবং গুদ্রুন এন্সলিন এর নেতৃত্বে পশ্চিম জার্মানীতে একটি মার্কসবাদী-লেনিনবাদী সংগঠন রেড আর্মি ফ্যাকশনের সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত এই চলচ্চিত্র।  মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ ও পুঁজিবাদের বিরুদ্ধে জার্মান শহরে তারা একটি কৌশলী গেরিলা যুদ্ধ চালায়।

poster

Streaming Link:
Full Movie from TheVideos.tv