“কমিউনিস্ট নীতিশাস্ত্রের উপরে” – কমরেড নাদেজদা ক্রুপাস্কায়া

1_30_13069_1305551411

Advertisements

ইউক্রেনের কমিউনিস্ট রাজবন্দীদের মুক্ত করুন

prisoners in ukraine


কুর্দিস্তান: নারীবাদ ও প্রতিরোধক্ষমতা – আমাদের বোনেরা সংগ্রাম করছেন

kurdish solidarity


ভারতঃ ২০১৫ সালে বস্তার ও বিহারে নকশাল সহিংসতার পরিসংখ্যান

back2.tif

২০১৫ সালে  ছত্তিসগড়ের বস্তার অঞ্চলে মাওবাদীদের আক্রমণে নিরাপত্তা বাহিনীর ৪৭ জন সদস্য নিহত হয়েছে, গুরুতর জখম হয়েছে ১১৫ জন, ৪৭ জন ব্যক্তিকে পুলিশের চর অভিযোগে খতম করেছে মাওবাদীরা। কথিত মাওবাদী নামে আত্মসমর্পণ করেছে ৩২৭জন! পক্ষান্তরে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে নিহত হয়েছেন ৪৬ জন মাওবাদী, উদ্ধার করা হয়েছে  একটি একে -47, একটি SLR, একটি 303 বন্দুক এবং চারটি 9 মিমি পিস্তল সহ ১৬৭টি অস্ত্র উদ্ধার করা হয়- ছত্তিসগড় পুলিশের মাওবাদী দমন ইউনিট (Anti-Naxal Operation (ANO) unit) গত বুধবার এই পরিসংখ্যানটি প্রকাশ করেছে।

অপরদিকে বিহারে ২০১৫ সালে ৫২৭ জন মাওবাদীকে গ্রেফতার করেছে নিরাপত্তা বাহিনী। যদিও ২০১৫ ও ২০১৪ সালে মাওবাদীদের কোন প্রশিক্ষণ শিবির ধ্বংস করতে পারেনি নিরাপত্তা বাহিনী। এখানে গত কয়েক বছর ধরে বেশ কয়েকটি গ্রামে ” প্রতিষ্ঠা করেছে মাওবাদীরা।  ২৩টি মাওবাদী অধ্যুষিত এলাকায় ৮৫টি নতুন থানা স্থাপন করেছে বিহার সরকার, এর মধ্যে নির্মাণাধীন ৪৩টি থানার কাজ ২০১৬ সালের মার্চের মধ্যে শেষ হবে বলে সুত্র জানাচ্ছে। এ ছাড়াও রাজ্য সরকার কেন্দ্রের কাছে সবচেয়ে বেশী মাওবাদী অধ্যুষিত ৬টি জেলায় আরো ৪০টি নতুন থানার অনুমোদন চেয়েছে।

অনুবাদ সূত্রঃ 

http://www.thehindu.com/news/national/other-states/140-people-killed-in-bastar-naxal-violence-in-2015/article8103681.ece

http://timesofindia.indiatimes.com/city/patna/527-Maoists-arrested-in-2015-in-Bihar/articleshow/50568562.cms


বাংলাদেশঃ ‘২০শে জানুয়ারী শহীদ আসাদ দিবস পালন করুন’- জাতীয় ছাত্রদল

12467944_10208518321381442_2043043426_n


তুর্কি সংকটের জন্য এরদোগান দায়ী: নোয়াম চমস্কি

নোয়াম চমস্কি

নোয়াম চমস্কি

তুরস্কের চলমান সংকটের জন্য তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগানকে দায়ী করেছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ভাষাবিদ, দার্শনিক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক নোয়াম চমস্কি। তিনি বলেছেন, সন্ত্রাসবাদের বিষয়ে এরদোগানের মধ্যে দ্বৈত অবস্থান ও কপটতা রয়েছে এবং তিনি সন্ত্রাসীদেরকে সমর্থন দিচ্ছেন। এর আগে সন্ত্রাসীদের প্রতি নোয়াম চমস্কির সহানুভূতি রয়েছে এবং তিনি সন্ত্রাসকে পাশ কাটিয়ে যাচ্ছেন বলে এরদোগান অভিযোগ করেছেন।

গত মঙ্গলবার তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহরের একটি পর্যটন কেন্দ্রের কাছে বোমা বিস্ফোরণে অন্তত ১১ জন নিহত ও ১৫ জন আহত হওয়ার পর এরদোগান নোয়াম চমস্কিকে ‘কথিত বুদ্ধিজীবী’ বলে তীব্র সমালোচনা করেছিলেন। তুরস্কের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় কুর্দি শহরগুলো থেকে তুর্কি সেনাদের অবরোধ তুলে নেয়ার আহ্বান সম্বলিত একটি চিঠিতে নোয়াম চমস্কি গত মাসে সই করেছিলেন।

রাজধানী আংকারায় তুরস্কের রাষ্ট্রদূতদের এক সম্মেলনে দেয়া বক্তৃতায় এরদোগান নোয়াম চমস্কিকে বোমা হামলার স্থানটি পরিদর্শনের আমন্ত্রণ জানান। ব্রিটিশ পত্রিকা দ্যা গাডির্য়ানকে এক ই-মেইলে চমস্কি এ আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান করে বলেছেন, “আমি যদি তুরস্ক যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিই তাহলে এরদোগানের আমন্ত্রণে নয় বরং বহু বছর ধরে যারা হামলার শিকার সেই কুর্দিসহ দেশটির বহু সাহসী ভিন্নমতাবলম্বীর আমন্ত্রণে যাব।”

চমস্কি বলেছেন, “ইস্তাম্বুল হামলার জন্য তুরস্ক উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আইএসআইএল বা দায়েশকে দায়ী করছে কিন্তু এরদোগান নিজেই তাদেরকে এবং আন-নুসরা ফ্রন্টকে বিভিন্নভাবে সহায়তা করেছে যাদের কর্মকাণ্ডকে আলাদা করা কঠিন। এখন কুর্দি-বিরোধী অভিযানের বিরুদ্ধে যারা কথা বলছেন এরদোগান তাদেরকেই অত্যন্ত তিরস্কারপূর্ণ ভাষায় সমালোচনা করছে। এই কুর্দি যোদ্ধারাই ইরাক ও সিরিয়ায় দায়েশের স্থল অভিযানে প্রধান বাধা ছিল।”

গত মাসে চমস্কি ও আরো কয়েকশ পণ্ডিত ব্যক্তি এক খোলা চিঠিতে তুরস্কে বিরোধী কুর্দিদের ওপর সামরিক অভিযানের নিন্দা জানিয়েছেন এবং তুরস্কের চলমান সংকটের জন্য এরদোগানকে দায়ী করেছেন।

edrogan-nazi