ভারতীয়দের বন্য মানুষ মনে করতেন উইন্সটন চার্চিল: ব্রিটিশ ইন্ডিপেন্ডেন্ট

উইন্সটন চার্চিল

উইন্সটন চার্চিল

ব্রিটেনের সাবেক প্রধানমন্ত্রী উন্সটোন চার্চিল ভারতীয়দেরকে বন্য মানুষ বলে মনে করতেন। এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ পত্রিকা ‘ইন্ডিপেন্ডেন্ট’।

১৯৪৩ সালে ভারতে বাংলাভাষী অধ্যুষিত অঞ্চলে দুর্ভিক্ষের সময় সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী চার্চিল বলেছিলেন, তিনি ভারতীয়দের ঘৃণা করেন। তারা বন্য মানুষ এবং বন্য ধর্মে বিশ্বাসী। খরগোশের মতো জন্মহারের কারণেই এমন দুর্ভিক্ষ হয়েছে বলে দাবি করেছেন চার্চিল।

১৯৪৩ সালের দুর্ভিক্ষে ৪০ লাখ বাংলাভাষী মারা যায়। অথচ ওই সময় ভারত থেকে খাবার নেওয়া হয়েছে ব্রিটিশ সৈন্যদের জন্য এবং খাবার রপ্তানি হয়েছে গ্রিসে।

পত্রিকাটি লিখেছে, ব্রিটিশ শাসনকালে ভারতের কয়েকটি দুর্ভিক্ষে এক কোটি ২০ লাখ থেকে দুই কোটি ৯০ লাখ মানুষ মারা যায়। খাদ্যের অভাবে এসব দুর্ভিক্ষের সময় লাখ লাখ টন গম ভারত থেকে ব্রিটেনে নিয়েছে ব্রিটিশরা।

Advertisements

তিউনিশিয়ায় চাকরীর দাবিতে বিক্ষোভ, তুমুল সংঘর্ষ, নিহত পুলিশ

y

তিউনিশিয়ায় চাকরির দাবিতে ডাকা বিক্ষোভে সমাবেশে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের তুমুল সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে বিক্ষোভকারীদের হামলায় অন্তত একজন পুলিশ নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র।

বুধবার উত্তর আমেরিকার দেশ তিউনিশিয়ার কাজারেইন শহর যেন পরিণত হয় রণক্ষেত্রে। দেশটির বেকারত্বের হার ১৫ দশমিক ৩ শতাংশ বেড়ে যাওয়ায় জনগণ বিক্ষোভ সমাবেশ ডাকলে মঙ্গলবার কারফিউ জারি করা হয়। বুধবার কারফিউ উপেক্ষা করেই বিক্ষোভকারীরা প্রতিবাদ জানায় এবং পুলিশ স্টেশনে হামলা চালায়। এ ঘটনার পর পুলিশের তাদের তুমুল সংঘর্ষ হয়। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ার গ্যাস ছুড়ে পুলিশ।

z

এক বিক্ষোভকারী বলেন, ‘আমরা আমাদের কাজের অধিকার রক্ষা করার চেষ্টা করছি। এটাই এখন সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণের একমাত্র উপায়। আমরা পাঁচ বছর ধরে আমাদের দাবির বিষয়টি জানিয়ে আসছি কিন্তু তারা কোনো সারা দেননি।’

গত মঙ্গলবার বেকারত্বের কারণে তিউনিসিয়ার এক তরুণ আত্মহত্যা করার ২ দিন পর পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ কাজারেইনে চাকরির দাবিতে আন্দোলনরত বিক্ষুদ্ধ জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ারগ্যাস নিক্ষেপ করেছে পুলিশ।

আরব বসন্তের সূতিকাগার তিউনিসিয়ার কাজারেইন প্রদেশের রাজধানীতে মঙ্গলবার বিক্ষোভকারী ও পুলিশের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষে পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয় বলে তিউনিসিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা ট্যাপ জানিয়েছে।

সংঘর্ষে ৩ পুলিশসহ কমপক্ষে ২৩ জন আহত হয়েছেন বলে ট্যাপ জানিয়েছে। আহতরা অধিকাংশ টিয়ার গ্যাস দ্বারা আক্রান্ত হয়েছেন।
এ ঘটনায় স্থানীয় প্রশাসন মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬ টা থেকে বুধবার ভোর ৫ টা পর্যন্ত কারফিউ জারি করেছে।

x

গত রবিবার কাজারেইন প্রদেশের রিদা ইয়াউয়ি নামের এক তরুণ চাকরিপ্রার্থী সম্ভাব্য সরকারি চাকরি প্রাপ্ত প্রার্থীদের তালিকায় নিজের নাম না থাকার হতাশায় আত্মহত্যা করে।

ইয়াউয়ি একটি বৈদ্যুতিক খাম্বায় উঠে নিজেকে শেষ করার হুমকি দেয়। এরপর খাম্বার বিদ্যুৎ পরিবাহী তারে নিজের শরীর জড়িয়ে আত্মহত্যা করে। সরকার ইয়াউয়ির আত্মহত্যার ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে।

কাসেরিন শহরটি আলজেরিয়া সীমান্তের নিকট জেবেল ইক চাম্বি পর্বতের পাদদেশে অবস্থিত।

বিশ্বব্যাংক জানিয়েছে, বর্তমানে তিউনিসিয়ায় বেকারত্বের হার প্রায় ১৫.৩%। ২০১১ সালে আরব বসন্তের পর এ হার ছিল ১৬.৭%। কিন্তু বিপ্লব পূর্ববর্তী সময়ে তিউনিসিয়ার বেকারত্বের হার ছিল মাত্র ১৩%।

আরব বসন্তের ফলে তিউনিসিয়ার রাষ্ট্রীয় নেতৃত্বে পরিবর্তন আসলেও জনসাধারণের ভাগ্যের খুব একটা পরিবর্তন ঘটেনি। চাকরির দাবিতে তরুণের আত্মহত্যা তিউনিসিয়ার জনগণকে নাড়িয়ে দিয়েছে। বহুবিধ সমস্যায় জর্জরিত তিউনিসিয়ার জনগণ আবারো নিজেদের অধিকার আদায়ে সহিংস হয়ে উঠেছে। আবারো বিক্ষোভে উত্তাল আফ্রিকার দেশটি।

সূত্র: আলজাজিরা


পোস্টারঃ মাওবাদী- PCm ইতালি

locandinaansione021667_001 (3)


ভারতঃ ছত্তিশগড়ে তল্লাশির নামে নারীদের ধর্ষণের অভিযোগ নিরাপত্তাকর্মীদের বিরুদ্ধে

adivasi-woman-rape

ছত্তিশগড়ের বিজাপুর ও সুকমার একাধিক গ্রামে ১২ থেকে ১৪ জানুয়ারির মধ্যে তল্লাশির নামে একাধিক নারীকে গণধর্ষণ করেছে নিরাপত্তা কর্মীরা। এছাড়া শ্লীলতাহানি করা হয়েছে বহু নারীর। এমনটাই দাবি করা হয়েছে মানবাধিকার সংগঠন ও নারী সংগঠনের এক যৌথ তথ্য অনুসন্ধান রিপোর্টে। সংগঠনের তরফে সম্প্রতি যে ৪ মাওবাদীকে সংঘর্ষে মারা হয়েছে বলে পুলিস দাবি করেছে তা আসলে সাজান। নিহতদের মধ্যে ১৩ বছরের এক শিশুও ছিল। সংগঠনগুলির তরফে cdro , wss তামিলনাডুর ও cpdr এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ছত্তিশগড় জনগণের উপর রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের প্রতিবাদ করা হয়েছে।

বিস্তারিত রিপোর্টটি পড়ুনঃ countercurrents.org


বিপ্লবী চলচ্চিত্রঃ ‘Romero’

এল সালভাদরে, গেরিলা যুদ্ধকে দমন করার উদ্দেশ্যে সরকারের সন্ত্রাসী প্রচারণা ও ডেথ স্কোয়াডের বিরুদ্ধে নতুন বিশপ ‘রোমেরো’ জোরালো ভাবে কথা বলেন। ফলে, একে রাষ্ট্রদ্রোহিতা হিসেবে দেখা হয় এবং এতে করে আক্রান্ত যাজকদের সংখ্যা বেড়ে যায় এবং এমনকি সরকার গীর্জাগুলো বন্ধ করে দেয়।

চলচ্চিত্রটি একটি সত্য গল্পের উপর ভিত্তি করে নির্মিত হয়, ১৯৮০ সালের মার্চে রোমেরো’কে হত্যা করা হয়।

romero-movie-poster-1989-1020211042


ফিলিস্তিনি কমরেডদের প্রতি বিপ্লবী ঐক্যের সম্ভাষণ! -PYO

6166_521831317991051_1968052845641904428_n

লেবাননের ফিলিস্তিনি যুব সংগঠন (PYO)- ঔপনিবেশিক ইউরোপে, নেদারল্যান্ডে সংগ্রামরত, সমষ্টিগত মুক্তির জন্য আপনাদের নতুন সংগঠন গঠন করায় অভিবাদন জানাচ্ছি ও আমরা আমাদের উষ্ণ শুভেচ্ছা এবং সংহতি জানাচ্ছি।

লেবাননে ফিলিস্তিনি শরণার্থী হিসেবে আমরা প্রতিদিন ইহুদিবাদ ও সাম্রাজ্যবাদ, পুঁজিবাদ ও প্রতিক্রিয়াশীল, সাম্প্রদায়িকতা এবং নিপীড়নের অপরাধ মোকাবিলা করে যাচ্ছি। আমরা ইহুদিবাদী উপনিবেশবাদের ভয়াবহতা থেকে আমাদের ভূখণ্ডকে মুক্ত করতে এবং ফিরে পেতে  গত ৬৮ বছর ধরে সংগ্রাম করে যাচ্ছি।

আমরা ফিরে পেতে ও মুক্তির জন্যে এই সংগ্রাম শুরু করেছি, আমরা জানি যে আমরা একটি বিপ্লবী ফ্রন্ট আকারে বিশ্বের নিপীড়িত জনগণকে সাথে নিয়ে, সাম্রাজ্যবাদ-বিরোধী, উপনিবেশবাদ বিরোধী ও পুঁজিবাদী বিরোধী যোদ্ধাদের সাথে নিয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে মুক্তি ও সমাজতন্ত্রের জন্য আমাদের সমষ্টিগত সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছি।

এমন একটি সময়ে আপনাদের যাত্রা, যখন আপনার দেশের ভিতরে এবং আমাদের দেশের মধ্যে ফ্যাসিবাদ, বর্ণবাদ ও ইউরোপীয় সাম্রাজ্যবাদসমূহ নিপীড়িত জনগণের জন্যে একটি বাড়তি হুমকি- আপনারা একটি সত্য ও বিকল্প বিপ্লবী হিসেবে ঐ সব শক্তির মুখোমুখি হয়ে এই পথের নেতৃত্ব দিচ্ছেন ও জনগণের কাছে নিজেদের উপস্থাপন করেছেন।

একসাথে, আমরা বিজয় অর্জন করবো, এবং একসাথে, আমরা আমাদের মুক্তিযুদ্ধকে আঁকড়ে ধরবো।

একটি স্বাধীন ফিলিস্তিন এবং একটি মুক্ত বিশ্বের জন্য!

অনুবাদ সূত্রঃ http://www.revolutionaireeenheid.nl/


ছত্তিশগড়ে মাওবাদী নারী ‘কমান্ডার’কে হত্যা করা হয়েছে

201009LDP004

গত ১৯শে জানুয়ারী বিজাপুর জেলার বেদ্রে থানাধীন বায়নর গ্রামে নিরাপত্তা বাহিনীর(SFS) কর্মীদের সাথে কথিত এনকাউন্টারে ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি মাওবাদী (সিপিআই-মাওবাদী)-র  জরিনা নামে একজন নারী কম্যান্ডার নিহত হয়েছেন।

কথিত এনকাউন্টারের  নামে হত্যার পর বরাবরের মত এক বিবৃতিতে পুলিশ জানাচ্ছে- “বিজাপুর জেলার বায়ানর জঙ্গলে দুপুর ১২-১২.৪৫টার মধ্যে পুলিশ ও মাওবাদীদের মধ্যে এনকাউন্টারের ঘটনাটি ঘটে। এই সময় এনকাউন্টারে একজন মাওবাদী নারী কম্যান্ডার নিহত হন। এনকাউন্টারের স্থান থেকে একটি ১২ বোরের রাইফেল, একটি দেশীয় বন্দুক উদ্ধার করা হয়”

অনুবাদ সূত্রঃ http://www.satp.org/satporgtp/detailed_news.asp?date1=1/20/2016&id=3#3