ভারতঃ জল চাই! তাই ১৪৪!

india_drought_quer

অনাহারে নাহি খেদ,বেশি খেলে বাড়ে মেদ । হীরক রাজার দেশে এটাই নিদান ছিল । ডিজিটাল ইন্ডিয়াতেও প্রায় এমন ধারা নিদান মহারাষ্ট্রে। জল নেই । খেত শুকিয়ে কাঠ । গলা ভেজানোর মতো ২ ফোঁটা জলও এখন মহার্ঘ লাতুরে । তবে এসব কথা বলা বারণ । কারণ গোটা জেলায় জারি ১৪৪ ধারা । প্রশাসনিক যুক্তি, তেষ্টায় রাশ টানতে না পারলে দাঙ্গা বাঁধতে পারে । খরা প্রতিবছরই নিয়ম করে আসে । মাটির নিচের জলস্তর নামতে নামতে ধরাছোঁয়ার বাইরে । অথচ পেটের তাগিদে মাঠে বীজ বুনতে হয় কৃষককে । ফসলের আশায় নেওয়া ঋণের বোঝায় নুয়ে পড়ে পিঠ । ঋণের ফাঁসে চলতি বছরেই আত্মঘাতী হয়েছেন অন্তত ১০জন কৃষক । সরকার মানেনি সেকথা । মানে না । তাহলে লাতুরের সাধারণ মানুষ কী করবেন? সেকথা ভাবার সময় নেই সরকারের । কারণ ‘জাতীয়তা’র জোড়াতাপ্পি দিয়ে শাসনের রশি হাতে রাখার তাদের একমাত্র কাজ । মানুষের জন‍্য জলের বন্দোবস্ত করা সেখানে গৌন । কিন্তু নাগরিকের ন্যূনতম অধিকার রক্ষা কি জাতীয়তাবাদের মধ্যে পড়ে না? না কি ভারত-পাক ক্রিকেট ম্যাচের মেঠো উন্মাদনাই শুধু জাতিরক্ষার একমাত্র কেন্দ্র ও পরিধি?

সূত্রঃ satdin.in

Advertisements

ভারতঃ মহারাষ্ট্রে পুলিশের কথিত এনকাউন্টারে ২জন মাওবাদী নারী গেরিলাকে হত্যা

naxals2

রবিবার সন্ধ্যায় মহারাষ্ট্রের গাদচিরোলি জেলার এতাপল্লিতে পুলিশের কথিত এনকাউন্টারে ২জন মাওবাদী নারী গেরিলাকে হত্যা করা হয়েছে।

ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ (নাগপুর রেঞ্জ) রবীন্দ্র কদম বলেন, “ছত্তিসগঢ় সীমান্তের কাছাকাছি বিকেল ৫টার দিকে আমাদের সি-৬০ কমান্ডো এবং একটি যৌথ গঠিত প্লাটুন ১৫ এর সাথে কাসানুর দলমের এই এনকাউন্টার সংঘটিত হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ২টি ৩০৩ বন্দুক ও বিভিন্ন কাঁধ ব্যাগ উদ্ধার করা হয়। এই ২০১৬ সালে এটি পুলিশের জন্য প্রথম প্রধান সাফল্য। “

অনুবাদ সূত্রঃ http://indianexpress.com/article/india/india-news-india/gadchiroli-2-women-maoist-cadres-killed-in-encounter/