গ্রেফতার হওয়া মাওবাদী নেত্রী ‘অন্নপূর্ণা’ বিপ্লবের মাধ্যমে পরিবর্তনে বিশ্বাসী

মাওবাদী নেত্রী ভুত্তাম অন্নপূর্ণা

মাওবাদী নেত্রী ভুতাম অন্নপূর্ণা

গ্রেফতার হওয়া মাওবাদী নেত্রী ভুথাম অন্নপূর্ণা বলেছেন যে পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণের কোন অভিপ্রায় তার ছিল না এবং এখনো তিনি বিপ্লবী মতাদর্শের প্রতি আকৃষ্ট আছেন।

অন্নপূর্ণা- যিনি পদ্মা, অরুণা এবং সুগুনা নামেও পরিচিত ছিলেন, তিনি বলেন, “আমি অসুস্থ, আমি বিশ্রাম নিতে পাঁচদিন আগে আমার বোনের বাড়িতে এসেছিলাম। আমি এখনো আমার ভবিষ্যত সম্পর্কে কোন সিদ্ধান্ত নিইনি।” মানুষের আশা-প্রত্যাশা শুধুমাত্র একটি বিপ্লবের মাধ্যমে অনুধাবন করা যায়। “আমি এখনো বিশ্বাস করি যে, শুধুমাত্র বিপ্লবের মধ্য দিয়ে সমাজ তার পরিবর্তন প্রত্যক্ষ করবে। যেহেতু আমরা একই বিশ্বাস করি, তাই আমরা একই কারণে লড়ছি”- গুন্টুর গ্রামীণ এসপি কে নারায়ণ নায়েক এর উপস্থিতিতে তিনি সংবাদমাধ্যমকে এই কথা জানান।

এই মাওবাদী নেত্রীকে গ্রেফতারের একদিন পর বুধবারেই এসপি তাকে জনসমক্ষে নিয়ে আসে। নায়েক বলেন, জন্মসূত্রে পিদুগুরাল্লা মন্ডলের মধ্যে জুলাকাল্লু’র অধিবাসী অন্নপূর্ণা(৪৪), জননাট্য মণ্ডলের সক্রিয় সদস্য তার ভাই ভুতাম মাস্তানের মাধ্যমে বিপ্লবী সাহিত্যের প্রতি আকৃষ্ট হন। ক্লাস টেনে পড়াকালীন তিনি গাদ্দার ও অন্যদের সাথে মিলে মান্দালি আয়োজিত অনুষ্ঠানে অংশ নিতেন। পরবর্তীতে ১৯৯৪ সালে, তিনি চন্দ্রভাঙ্কা নকশাল গ্রুপে যোগ দেন এবং গ্রুপ কমান্ডার নানে নরসিংহ রেড্ডি ওরফে গাঙ্গান্নাকে বিয়ে করেন। গুন্টুর এবং প্রাকাসাম জেলায় এবং অন্ধ্র-ওড়িশা বর্ডার (AOB), দণ্ডকারণ্যে এবং ছত্তিসগড় এলাকায় মাওবাদী কার্যক্রমে জড়িয়ে পরার পর, তিনি ডিসিএম ক্যাডার নেতা হিসেবে উন্নীত হন।

তাকে, দুই পুলিশ SIs এবং ৯ কনস্টেবল হত্যাসহ বিভিন্ন মামলার আসামি করা হয়েছে এবং ২০০০-২০১০ সাল পর্যন্ত কিছু অন্য পুলিশ সংবাদদাতার অজুহাতে। এছাড়াও প্রাণঘাতী অস্ত্র রাখার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা বিচারাধীন রয়েছে। এছাড়া তার মাথার জন্যে নগদ ৫লাখ টাকার পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছিল। এদিকে গত মঙ্গলবার, বল্লাপল্লি মন্ডলের রামাপুরাম গ্রামে তার আসার খবর পেয়ে ভিনুকোন্ডা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে এবং একই সাথে আরো কিছু বিপ্লবী বই উদ্ধার করা হয়।

অনুবাদ সূত্রঃ newindianexpress

Advertisements

ইতালিঃ আন্তর্জাতিক সাপ্তাহিক পদক্ষেপ (০২-০৯ই এপ্রিল) পালিত

ভারতের গণযুদ্ধের সমর্থনে

IMG_20160409_200008335

IMG_20160409_184907242


‘২৪শে এপ্রিল মাওবাদী শহীদ কমরেড নবীন বাবুর ৫ম বার্ষিকী স্মারক বক্তৃতা’ – DSU

12998535_1284961351520083_5937627806967151263_n

jnuতে ফের সক্রিয় হচ্ছে মাওবাদীদের সমর্থক ছাত্র সংগঠন বলে পরিচিত DSU। কানহইয়া -উমরদের বিতর্কের মধ্যে এবারও DSU আগামী ২৪ এপ্রিল JNU এর প্রাক্তন ছাত্র তথা পুলিসের গুলিতে নিহত নবীনের স্মরণে এক স্মারক বক্তৃতার আয়োজন  করেছে ডেমোক্র্যাটিক স্টুডেন্ট ইউনিয়ন। এই নিয়ে পঞ্চমবার। ২০০০ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি অন্ধ্রে পুলিসের গুলিতে নিহত হন JNU এর প্রাক্তন ছাত্র তথা তৎকালীন CPIML (PW) কেন্দ্রীয় সদস্য নবীন বাবু। ৩৫ বছরের নবীন JNU তে Phd করা ছেড়ে সর্বক্ষণের রাজনৈতিক কর্মী হয়েছিলেন।