গুলশানের বর্বরোচিত হত্যাকান্ডের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ‘নয়া গণতান্ত্রিক গণমোর্চা’

নয়া গণতান্ত্রিক গণমোর্চা

মোবাইল: ০১৯১৫২২১৯৮০

বিবৃতি

তারিখ: ০৩-০৭-’১৬

গুলশানে জঙ্গী-মৌলবাদীদের বর্বরোচিত হত্যাকান্ডের নিন্দা ও প্রতিবাদ

ধর্মীয় মৌলবাদের স্রষ্টা সাম্রাজ্যবাদ, পৃষ্ঠপোষক দালাল শাসকশ্রেণি, রাষ্ট্রযন্ত্র ও আওয়ামী ফ্যাসিবাদী সরকারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হোন

১ জুলাই’১৬ রাত ৮-৩০ মিঃ এ একদল মৌলবাদী জঙ্গী অস্ত্র-গোলাবরুদসহ গুলশানের একটি অভিজাত রেস্তোরায় ঢুকে দেশি-বিদেশী বেশ কিছু নারী-পুরুষকে জিম্মি করে।  তারা রাতভর দেশি-বিদেশী ২০ জনকে জবাই করে হত্যা করে। পত্রিকায় প্রকাশ অস্ত্রধারীরা জঙ্গী নেতা সাইফুল্লাহ’র মুক্তি এবং হামলাকারী জঙ্গীরা নিরাপদে বের হয়ে যাওয়ার দাবী করেছিল। যদিও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এখন অস্বীকার করছেন জঙ্গীরা কোন শর্ত দেয়নি।  র‌্যাব-এর মহা পরিচালক বেনজির আহমেদ সাংবাদিকদের বলেছিলেন আমরা শান্তিপূর্ণ উপায়ে কিছু করা যায় কিনা চেষ্টা করছি।  কারণ প্রতিটি জীবন আমাদের কাছে মহামূল্যবান।  কিন্তু শান্তিপূর্ণ উপায়ে তারা কি কি চেষ্টা করেছে তার কোন তথ্য সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ করেনি।  বরং পুলিশ-প্রশাসন থেকে সাংবাদিকদের শাসিয়েছে এই বলে যে,তারা যেন ঘটনাস্থল থেকে দূরে অবস্থান করে এবং ঘটনার সরাসরি সম্প্রচার না করেন।  তা না হলে তাদেরকে জিম্মি উদ্ধার কাজে বাধাদানকারী হিসেবে চিহ্নিত করা হবে।  শেষে দেখা গেল সমস্ত বিভাগের ফোর্স যৌথ অভিযান চালিয়ে ২০ জনের প্রাণের বিনিময়ে ৬ জঙ্গীকে হত্যা করে ১৩ জনকে জীবিত উদ্ধার করে।  বিগত কয়েক বছর যাবত ধর্মীয় মৌলবাদী জঙ্গী গোষ্ঠী প্রগতিশীল লেখক, প্রকাশক এবং মুক্ত মনা ব্লগারদের হত্যা করছে একের পর এক।  আওয়ামী মন্ত্রীরা এমনকি প্রধানমন্ত্রী এর জন্য প্রগতিশীল লেখক-প্রকাশক এবং মুক্তমনা ব্লগারদের ধর্মের অবমাননাকারী বলে বিরোধীতা করে জঙ্গী মৌলবাদীদের পক্ষ নিয়েছে। তার পর একে একে বিদেশী, ধর্মযাজক, পুরোহিত, শিয়াদের উপর হামলা ও হত্যার ঘটনা যখন ঘটে চলেছে এবং প্রতিটি ঘটনায় আইএস তার দায়িত্ব শিকার করেছে ও করছে।  তখনও মন্ত্রীরা তারস্বরে বলছে দেশে কোন আইএস নেই এবং এর দায়ভার তাদের প্রতিপক্ষ বিএনপি-জামাতের উপর চাপিয়ে মূলত মৌলবাদী জঙ্গীদেরই রক্ষা করেছে ও বিকশিত হতে দিয়েছে।  সম্প্রতি সপ্তাহব্যাপী সরকারী অভিযানে জঙ্গী দমনের নামে যে ১৩ হাজার লোক গ্রেপ্তার করেছে যার অধিকাংশই বিএনপি-জামাত এর নেতা-কর্মী। গুলশান ঘটনার ক্ষেত্রেও সরকার একই বক্তব্যের পুনারাবৃত্তি করছে। সরকার বলছে এই হামলার সাথে আইএস’র সম্পর্ক নেই। তারা এটা বলে তাদের উপর মার্কিসসহ সাম্রাজ্যবাদের চাপ এড়াতে চাইছে এবং বিএনপি-জামাত’র কর্ম বলে দেখাতে চাইছে। সারা বিশ্ব জানে এই মৌলবাদী জঙ্গীদের সৃষ্টি ও পৃষ্ঠপোষকতা দিয়ে চলেছে মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ।  মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ মৌলবাদকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন দেশে আগ্রাসন ও অনুপ্রবেশের ষড়যন্ত্র করে নিজেদের স্বার্থ সিদ্ধি করছে।  দেশে জঙ্গীদের ধারাবাহিক হত্যাকান্ড এবং সর্বশেষে গুলশান হত্যাকান্ডের সাথে সাম্রাজ্যবাদ এবং দেশীয় শাসকশ্রেণির কোন গোষ্ঠীর যুক্ত থাকাটা অমূলক নয়। দালাল শাসকশ্রেণি ও সরকার দেশে এই মৌলবাদীদের জিইয়ে রাখছে তাদের শ্রেণিগত ও গোষ্ঠীগত স্বার্থেই। এদেশে জঙ্গী হামলায় মার্কিনের উদ্বিগ্নতা আজ দৃষ্টিগ্রাহ্য। গুলশান ঘটনায়ও মার্কিনসহ সাম্রাজ্যবাদীরা উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা প্রকাশ করেছে যা আওয়ামী লীগের বিপক্ষে এবং বিএনপি’র পক্ষে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।  তাই, কিছু দিন যাবৎ আওয়ামী মন্ত্রীরা এবং প্রধানমন্ত্রী বলে চলেছেন এই জঙ্গী হামলার পিছনে দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্র রয়েছে। এমনকি প্রধানমন্ত্রী গুলশানের হত্যাকান্ডের পরও তার ভাষণে বলেছেন দেশী-বিদেশী একটি চক্র বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে বানচালের অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়েছে। নিরাপত্তা বিশ্লেষকগণও বলছেন এই হামলাকে রাজনীতি থেকে বিচ্ছিন্ন করে দেখতে পারছি না। কিন্তু এই মৌলবাদী জঙ্গী তৎপরতা জিইয়ে রেখে বিএনপি-জামাতকে কোনঠাসা করার অপকৌশল আওয়ামী লীগের থাকলেও এখন তা তাদের জন্য বুমেরাং হয়ে দাঁড়িয়েছে। গুলশান হত্যাকান্ড তার প্রমাণ। আজ প্রধানমন্ত্রী যতই বলুক না কেন জঙ্গীদের তারা নির্মূল করবেন। কিন্তু তাদের পক্ষে তা সম্ভব নয়। কারণ ধর্মীয় মৌলবাদীরা বিচ্ছিন্ন কোন গোষ্ঠী নয়, এরা সাম্রাজ্যবাদী বিশ্বব্যবস্থার অংশ। এদের সৃষ্টিকারী ও পৃষ্ঠপোষক হচ্ছে সাম্রাজ্যবাদ, সম্প্রসারণবাদ, দালাল শাসকশ্রেণি এবং আওয়ামী সরকার নিজে। তারা নিজ নিজ স্বার্থে মৌলবাদীদের ব্যবহার করে। গুলশানের হতাহতরা এদের এই ঘৃন্য রাজনীতির শিকার।  আমরা এই বর্বরোচিত হত্যাকান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। একই সাথে মনে করি ধর্মীয় মৌলবাদের স্রষ্টা ও পৃষ্ঠপোষক সাম্রাজ্যবাদ, ভারতীয় সম্প্রসারণবাদ দালাল শাসকশ্রেণি, রাষ্ট্রযন্ত্র ও সরকার উচ্ছেদ ছাড়া ধর্মীয় মৌলবাদকে মোকাবেলা করা সম্ভব নয়।

বার্তা প্রেরক

বিপ্লব ভট্টাচার্য

সদস্য

নয়া গণতান্ত্রিক গণমোর্চা


13615089_1556569264650692_7192573051506520277_n

Advertisements


Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s