বাংলাদেশঃ মার্কসবাদী শিল্প সাহিত্যের কাগজ ‘খনন’ এর আগস্ট ‘১৭ সংখ্যা বেরিয়েছে

20751511_1436426656438227_1757569254_n

প্রাপ্তি স্থানঃ ঘাস ফুল নদী(প্রথা বিরোধী প্রকাশনা), আজিজ সুপার মার্কেট(নীচ তলা), শাহবাগ, ঢাকা

Advertisements

গোর্খা জাতিসত্তার পক্ষে কলকাতা শহরে নকশালপন্থীদের কনভেনশন

gorkhaland-759

বাংলা ভাগ হতে দেবো না, বাংলা ভাগের চক্রান্ত ব্যর্থ করুন, এই চেনা স্লোগানের বিপরীতে অন্য স্বর শোনা গেল মঙ্গলবার ভারতসভা হলে। সিপিআই(এমএল) গোষ্ঠীর কয়েকটি পার্টি ও কিছু গণসংগঠনের ডাকে এদিন এক কনভেনশনে গোর্খা জাতিসত্তাকে সম্মান জানিয়ে তাদের পৃথক গোর্খাল্যান্ড রাজ্য গঠনের গণতান্ত্রিক দাবির সমর্থনে বক্তব্য রাখলেন একাধিক বক্তা। পাহাড়ে রাজ্য প্রশাসন যে ভাবে জুলুম নামিয়ে এনে সেখানকার মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার হরণ করতে চাইছে তার বিরুদ্ধেও প্রতিবাদ জানানো হয়। গোর্খাদের দীর্ঘ অর্থনৈতিক বঞ্চনা, তাদের জাতিসত্তাকে অবদমিত করে রাখার রাষ্ট্রীয় জুলুমবাজীর যৌক্তিক ও ঐতিহাসিক ব্যাখ্যা করেন এদিনের কনভেনশনে আসা একাধিক ব্যক্তি। কনভেনশনে অবিলম্বে পাহাড়ে রাষ্ট্রীয় নিপীড়ন বন্ধের দাবি তোলা হয়। নকশালপন্থী সিপিআই এমএল, সিপিআই এমএল এসওসি, সিপিআই এমএল নিউ- ডেমোক্রেসি ছাড়াও গণসংগ্রাম মঞ্চ, শ্রমিক কৃষক সংগ্রাম কমিটি ছিল এই কনভেনশনের আহ্বায়ক। কনভেনশনে গৃহীত সদ্ধান্তের ভিত্তিতে গণসচেতনতা বাড়ানো ও আন্দোলনের রুপরেখা তৈরি করার কথা ঘোষণা করা হয়। ভারতসভা হলের এই কনভেনশন আবারও দেখিয়ে দিল এ শহর এখনও অন্য স্বরকে ধারণ করার ক্ষমতা ধরে।

সূত্রঃ satdin.in


মাওবাদী মোকাবিলায় মোবাইল, সড়কে জোর কেন্দ্রের

498921-jpg_343336_1000x667

মাওবাদীদের মোকাবিলায় মোবাইল ফোনের যোগাযোগকে আরো গুরুত্ব দিতে চাইছে কেন্দ্র। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের সঙ্গে বোঝাপড়ার ভিত্তিতে ইতিমধ্যে মাও প্রভাবিত এলাকায় ২০০০ মোবাইল টাওয়ার স্থাপন করেছে টেলিযোগাযোগ মন্ত্রক। দ্য হিন্দু পত্রিকায় প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী গত ৮ অগস্ট স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের সঙ্গে মাও প্রভাবিত ৬ রাজ্যের বৈঠকে ঠিক হয়েছে এই সব অঞ্চলে মোবাইল টাওয়ার  সড়ক ও বিমান পরিষেবার উন্নতির উপর জোর দেওয়া হবে। পর্যবেক্ষকদের একাংশের মতে  এই সব এলাকায় সড়ক তৈরি যে আসলে মাওবাদীদের শায়েস্তা করার জন্য, এলাকার উন্নয়নের জন্য নয় তা একপ্রকার স্বীকার করে নেওয়া হল এই বৈঠকে।

সূত্রঃ satdin.in

 


ট্রেন থেকে সিপিআই(মাওবাদী)’র কেন্দ্রীয় কমিটির প্রাক্তন সদস্য তুষার ভট্টাচার্যকে গ্রেফতার

Naxalite-leader-Tusharkranti-Bhattacharya

সিপিআই(মাওবাদী)’র  কেন্দ্রীয় কমিটির প্রাক্তন সদস্য তুষার ভট্টাচার্যকে নাগপুরের কাছে চলন্ত ট্রেন থেকে মঙ্গলবার গ্রেফতার করল গুজরাট পুলিস। মঙ্গলবার গ্রেফতার করল গুজরাট পুলিস। তুষারের  স্ত্রী নাগপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপিকা সোমা সেন  সাংবাদিক বৈঠকে দাবি করেন এক পুরনো মামলায় গুজরাট পুলিস তাকে গ্রেফতার করেছে। ২০১০ সালের যে মামলায় এই মাওবাদী নেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে সেই সময় তিনি জেলে ছিলেন বলে দাবি করেছেন সোমা। ২০০৭ সালে তুষার ভট্টাচার্যকে গ্রেফতার করে বিহার পুলিস। বেশ কয়েকবছর জেলে থাকার পর তিনি ছাড়া পান। সোমা সেন জানিয়েছেন স্বাস্থ্যের কারণে তিনি অধিকাংশ সময় বাড়িতেই থাকতেন। হিন্দুস্তান টাইমসের রিপোর্ট অনুযায়ী বাঙালি হলেও  তুষার তেলেঙ্গানাতেই মাওবাদী আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত হন। কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হিসাবে উত্তর ভারতের বেশ কয়েকটি রাজ্যে সংগঠনের দায়িত্বেও ছিলেন তিনি।

ছবি – nagpur today এর সৌজন্যে

rahul-sharma-gujarat-ips

সূত্রঃ satdin.in