নিজেদের আপডেট রাখতে নিয়মিত ইংরেজি দৈনিক পড়ছেন মাওবাদী গেরিলারা

07nax12

জঙ্গলে ইন্টারনেট সুবিধা ও সপ্তাহে ৭দিন ২৪ঘন্টা টিভি চ্যানেলের সুবিধা না থাকা সত্ত্বেও মাওবাদীরা নিয়মিত ইংরেজি দৈনিক পড়ে নিজেদের আপডেট রাখছেন।

কর্তৃপক্ষ জানায়, বিহারের লক্ষীসরায়ী জেলার ঘন বনভূমিতে শীর্ষ মাওবাদীরা “সঠিক” তথ্যের জন্য কমপক্ষে তিনটি ইংরেজি সংবাদপত্র নিয়মিত পড়ছেন এবং বিশ্বব্যাপী ও তাদের নিজ দেশের সর্বশেষ উন্নয়নগুলির সাথে নিজেদের আপডেট রাখছেন। তিনটি ইংরেজী দৈনিক, যথাক্রমে দ্য স্টেটসম্যান, দ্য টেলিগ্রাফ ও দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়া পত্রিকাগুলো কঠোর গোপনীয়তার মধ্যে কোম্পানী তাদের কাছে পৌঁছে দেয়।

রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, তিনটি ইংরেজী খবরের কাগজ, মাওবাদীদের শক্তিশালী অবস্থান লখিসারাই জেলার কাজ্জরা বনভূমিতে সরবরাহের পর গোয়েন্দা সংস্থার নজরদারির পর কর্মকর্তারা নজরদারি আরো বাড়িয়েছে ।

সংবাদপত্রের ব্যবসার সাথে জড়িত এক ব্যক্তি বলেন, এই তিনটি জাতীয় ইংরেজি দৈনিকের ১৫০টিরও বেশি কপি লখিসারাই শহরে বিতরণের জন্যে পৌঁছে। তাদের মধ্যে, কয়েকটি কপি তাদেরকে কাজরা বনভূমিতে সরবরাহ করতে হয়। স্থানীয় সংবাদপত্রগুলিতে প্রচুর পরিমাণে তথ্যের অপ্রতুলতার জন্যেই  স্থানীয় সংবাদপত্রের পরিবর্তে ইংরেজ দৈনিকের উপর নির্ভর করে মাওবাদীরা।

“মাওবাদী সংগঠনের বেশির ভাগ শীর্ষ-অবস্থানের ক্যাডাররা ভালোই শিক্ষিত এবং ইংরেজির ভাল জ্ঞান রয়েছে তাদের। তাই তারা এই ইংরেজি দৈনিকগুলি পছন্দ করেছে, এটা অস্বাভাবিক কিছু নয়, “স্থানীয় সহকারী সুপারিনটেনডেন্ট পুলিশ- পবন কুমার উপাধ্যায় এই তথ্য জানান। উপাধ্যায় এই জেলায় মাওবাদী দমন অভিযানের দায়িত্বে রয়েছেন।

একটি সূত্র জানায়, ইংরেজি সংবাদপত্র পড়ার অন্য কারণ হচ্ছে, বিহারের গভীর দুর্ভেদ্য জঙ্গলে আশ্রয় নেয়া দক্ষিণ ভারত থেকে আসা বেশ ভালো সংখ্যক মাওবাদী নেতারা ভারতের দাপ্তরিক ভাষা হিন্দীতে খুব একটা স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন না। ফলে, তারা এই ইংরেজি সংবাদপত্রগুলোকে বেছে নিতে বাধ্য হয়।

অন্যান্য ইংরেজি দৈনিকের প্রতুলতা সত্ত্বেও তবে কেন এই তিনটি ইংরেজী দৈনিকের কাটতি বিহারে বেশী? “সম্ভবত, তাদের দৈনিকগুলোতে প্রতিদিন নতুন কাহিনী, সম্পাদকীয় এবং অন্যান্য বিষয় প্রকাশ করা হয় যা তারা সাধারণ মানুষের স্বার্থে প্রকাশ করে থাকতে পারে” বলে একজন কর্মকর্তা মন্তব্য করেন।

সূত্রঃ http://gulfnews.com/news/asia/india/maoists-read-english-dailies-to-keep-abreast-of-news-1.2142029

Advertisements

মুক্তির ৪ দিনের মাথায় মাওবাদী নেতা কোবাদ গান্ধীকে গ্রেফতার করেছে ঝাড়খণ্ড পুলিশ

patiala-district-patiala-bhushan-hindustan-maoist-leader_b198027a-e263-11e7-814a-000c05070a4c

গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিশাখাপত্তনম কারাগার থেকে মুক্তি লাভের পর, ঝুলে থাকা মামলায় ঝাড়খণ্ড পুলিশ আজ আবার গ্রেফতার করল মাওবাদী তাত্ত্বিক নেতা কোবাদ গান্ধীকে।  

মঙ্গলবার ৫টি মামলায় জামিন পাওয়া গান্ধী, আমরাবাদ থানায় মাওবাদীদের হামলা সংক্রান্ত একটি মামলার ট্রায়ালে যোগ দিতে আজ তেলেঙ্গানার নাগারকুরনুল জেলার আচাম্পেটে জুনিয়র ফার্স্ট ক্লাস ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এসেছিলেন। মাওবাদীদের বিস্ফোরক দিয়ে সাহায্যের জন্যে তাকে এই মামলায় অভিযুক্ত করা হয়। মামলাটি ২০১০ সাল থেকে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছিল।

আদালত থেকে বেরিয়ে আসার পরই ঝাড়খন্ড পুলিশ তাকে নিজেদের হেফাজতে নেয়। এরপর পুলিশ তাকে হায়দ্রাবাদে নিয়ে গিয়ে নামপল্লী ফৌজদারী আদালতে হাজির করে। আদালতের অনুমতি পাওয়ার পর, গান্ধীকে বোকারো’তে নেয়া হয়, যেখানে ২০০৭ সালে তাকে একটি মামলার মুখোমুখি হতে হয়।

সব মিলিয়ে তার বিরুদ্ধে আটটি মামলা রয়েছে। কিন্তু, তিনি তিনটি মামলায় নির্দোষ ছিলেন।

বিপ্লবী লেখক সমিতি ও সিভিল লিবার্টিজ কমিটি কোবাদ গান্ধী’র ‘অনৈতিক গ্রেফতার’ এর নিন্দা জানিয়েছেন।

সূত্রঃ http://www.hindustantimes.com/india-news/days-after-release-maoist-ideologue-kobad-ghandy-arrested-by-jharkhand-police/story-FjPWUMqmDHtvofm0yZbYYO.html


শ্রমিক আফরাজু‌ল হত্যার প্রতিবা‌দে ‘গেরুয়া ফ্যা‌সিবাদ ও সাম্প্রদা‌য়িকতা‌বি‌রোধী’ সংগঠ‌নের সমাবেশ অনুষ্ঠিত

25436437_1663560470425911_1246439436_n

উগ্র হিন্দুত্ববাদী শ‌ক্তির দ্বারা বাংলা থে‌কে উত্তর ভার‌তের মালদায় কাজ কর‌তে যাওয়া শ্রমিক আফরাজু‌লের হত্যার প্রতিবা‌দে, গেরুয়া ফ্যা‌সিস্ট আরএসএস-‌বি‌জে‌পির সংঘ প‌রিবা‌রের জন‌বি‌রোধী কার্যকলাপকে ধিক্কার জা‌নি‌য়ে বি‌ভিন্ন প্রগ‌তিশীল ও গণতা‌ন্ত্রিক সংগঠন, গেরুয়া ফ্যা‌সিবাদ ও উগ্র সাম্প্রদা‌য়িকতা‌বি‌রোধী সংগঠ‌নের যৌথ উদ্যো‌গে ১৫ই ডি‌সেম্বর দুপু‌রে মধ্য কলকাতার ওয়ে‌লিংটন স্কোয়ার থে‌কে ধর্মতলা পর্যন্ত এক‌টি প্রতিবাদী মি‌ছিল হয়, মি‌ছি‌লের শুরু‌তে এবং শে‌ষে সং‌ক্ষিপ্ত সভাও হয়, মি‌ছিল থে‌কে এক‌টি প্রতি‌নি‌ধিদল যায় কেন্দ্র নিযুক্ত রাজ্যপা‌লের কা‌ছে স্মারক‌লি‌পি জমা দি‌তে। সভায় বক্তব্য রা‌খেন সংগ্রামী বাম আন্দোল‌নের নেতা সুশান্ত ঝা, অ‌ধিকার রক্ষার সংগঠন ‘গণতা‌ন্ত্রিক অধিকার রক্ষা স‌মি‌তি’ (এপি‌ডিআর/ APDR)- এর সভাপ‌তি তাপস চক্রবর্তী সহ প্রগ‌তিশীল-গণতা‌ন্ত্রিক ছাত্রছাত্রী আন্দোলন, যুব আন্দোলন, নাগ‌রিক আন্দোলন ও সাংস্কৃ‌তিক আন্দোল‌নের কর্মীরা, সম‌রেশ বসুর গল্প অবলম্বনে নি‌র্মিত নাটক ‘আদাব’ প‌রি‌বেশন ক‌রেন প্রগ‌তিশীল সাংস্কৃ‌তিক কর্মীরা, সাম্প্রদা‌য়িকতার বিরু‌দ্ধে লড়াই‌য়ের সংহ‌তি‌তে সংগীত প‌রি‌বেশন ক‌রেন ‘‌কোরাস’-এর সাংস্কৃ‌তি কর্মীরা।

25395220_1663561403759151_61539350_n