কুষ্টিয়ায় কথিত বন্দুক যুদ্ধে ‘লাল পতাকা’র সদস্য নিহত

স

পূর্ব বাংলার কমিউনিস্ট পার্টি(এমএল-লাল পতাকা)’র সক্রিয় সদস্য আব্দুল কুদ্দস ওরফে সাগর(৪৫) গত ৫ এপ্রিল, বৃহস্পতিবার ভোর রাতে কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার কয়া ইউনিয়নের গড়াই নদীর চরে র‌্যাবের সাথে কথিত বন্দুক যুদ্ধে নিহত  হয়েছে।

নিহত আব্দুল কুদ্দস ওরফে সাগর রাজবাড়ী জেলার বরাট ইউনিয়নের উড়াকান্দা এলাকার তারক আলীর ছেলে। তিনি এলাকায় বালুর ব্যবসা করতেন।

সাগর চরমপন্থী সংগঠন `লাল পতাকার’ সদস্য বলে র‌্যাব কর্মকর্তা মুহাইমিনুল হক জানান ।

সাগরের স্ত্রী চম্পা খাতুন bdnews24.comকে বলেন, গত ২৯ মার্চ রাত ১০টার দিকে বাড়ি থেকে রেব হন সাগর। এরপর থেকে তার কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না।

এদিকে র‌্যাব কর্মকর্তা মুহাইমিনুল বলেন, নাশকতা তৈরির উদ্দেশ্যে একদল সন্ত্রাসী ঘোড়াঘাট এলাকার গড়াই নদীর চরে গোপন বৈঠক করছে খবর পেয়ে র‌্যাব সদস্যরা সেখানে অভিযান চালায়।

“র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা গুলি ছোড়ে। জবাবে র‌্যাবও পাল্টা গুলি করে। গোলাগুলির এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটে। পরে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সাগরকে পাওয়া যায়।”

তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন বলে মুহাইমিনুল জানান।

তিনি বলেন, গোলাগুলির ঘটনায় দুই র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।  

ঘটনাস্থল থেকে একটি বন্দুক ও গুলি উদ্ধারের কথাও জানিয়েছে র‌্যাব।  

 

Advertisements