ফিলিপাইনে আইএসের পর প্রেসিডেন্ট দুয়ার্তের টার্গেট মাওবাদী কমিউনিস্টরা

npa-4

ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুয়ার্তে জানিয়েছেন, ‘আইএস বোকাদের দমনের পর এবার তার লক্ষ্য কমিউনিস্ট বিদ্রোহীদের উৎখাত করা।’ কয়েকটি হামলার পর কমিউনিস্ট বিদ্রোহীদের সঙ্গে শান্তি আলোচনা বাতিল করে এ লক্ষ্যের কথা জানিয়েছেন বন্দুকভক্ত প্রেসিডেন্ট বলে পরিচিত দুয়ার্তে।

বৃহস্পতিবার দুয়ার্তে মারাউই সিটির একটি সামরিক ঘাঁটি পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি সেনাদের উদ্দেশে বলেন, আইএসের সঙ্গে জড়িত সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোর সঙ্গে লড়াইয়ের পর তারা কমিউনিস্ট বিদ্রোহীদের দমনে যুদ্ধে নামবেন।

দুয়ার্তে বলেন,  এখানে ওই বোকাদের (আইএস) দমনের পর আমরা নিউ পিপল’স আর্মির বিরুদ্ধে নতুন অভিযান শুরু করব।

নিউ পিপল’স আর্মি হচ্ছে কমিউনিস্ট পার্টি অব দ্য ফিলিপাইনের সশস্ত্র বাহিনী।

দুয়ার্তে আরও বলেন, তাদের আমি আর আলোচনা করতে চাই না। তারা আমাদের অনেক সেনাদের হত্যা করেছে, অনেক পুলিশ সদস্যকে হত্যা করেছে। ভাবতে পারেন বাজারে যাওয়ার সময় দুই সেনাকে হত্যা করা হয়েছে। এটা আমাকে ক্ষুব্ধ করেছে।

চলতি সপ্তাহের শেষের দিকে নেদারল্যান্ডসে কমিউনিস্ট বিদ্রোহীদের সঙ্গে সরকারের মধ্যস্ততাকারীদের সঙ্গে শান্তি আলোচনায় বসার কথা ছিল। কিন্তু দুয়ার্তের নিরাপত্তারক্ষীদের উপর হামলার পর আলোচনাটি বাতিল করা হয়েছে।

শুক্রবার দুয়ার্তের মুখপাত্র আর্নেস্টো আবেলা সাংবাদিকদের বলেন, মেনে নেওয়ার মতো শর্তে উভয় পক্ষ রাজি না হওয়া পর্যন্ত সবকিছু স্থগিত করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত কয়েক দশক ধরেই ফিলিপাইনে কমিউনিস্ট ও মুসলিম বিদ্রোহীরা সশস্ত্র সংগ্রাম করে আসছে। দেশের বিভিন্ন অংশে সরকারি সেনাদের ওপর হামলা চালাচ্ছে তারা।

সূত্র: আল জাজিরা।


ফিলিপিন্সে মাওবাদী হামলায় প্রেসিডেন্ট গার্ডের ৫ সৈন্য আহত

maoist

 


আইএস জঙ্গি দমনে মাওবাদীদের সমর্থন চাইলেন ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট ‘দুতার্তে’

npa-11

ফিলিপিন্সের মারাবিতে ইসলামপন্থী আইএসআইএস জঙ্গিদের সঙ্গে সেনাবাহিনীর চলমান সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা ১শ’ জন ছাড়িয়ে গেছে। এরমধ্যে কেবল রোববারই নিহত হয় অন্তত ১৯ জন। জঙ্গিদের নিয়ন্ত্রণ থেকে মারাবি শহর পুনরুদ্ধারে গেল সপ্তাহে শুরু হওয়া এ অভিযানে এরইমধ্যে পালিয়ে গেছে হাজার হাজার মানুষ। জঙ্গিদের নির্মূলে সরকারকে সহায়তা করতে এগিয়ে আসার জন্য মরো মুসলিম বিচ্ছিন্নতাবাদী ও মাওবাদীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে।

লানাও দেল সুর প্রদেশের একটি আশ্রয় কেন্দ্রে রোববার ত্রাণ বিতরণ করে ফিলিপিন্স কর্তৃপক্ষ। মারাবি শহরে জঙ্গিদের সঙ্গে সেনাবাহিনীর চলমান সংঘর্ষ থেকে বাঁচতে যারা পালিয়ে এসেছে সেই সব শরণার্থী এসব কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছেন। গেল সপ্তাহে শুরু হওয়া সংঘাতের কারণে ঘর-বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছে মিনদানাও দ্বীপের হাজার হাজার মানুষ। এছাড়াও, জঙ্গিদের হাতে আটকা পড়ে আছে ২ হাজার বেসামরিক নাগরিক। বন্দী করে রাখা হয়েছে, এক খ্রিষ্টান যাজককে।

পালিয়ে আসা এক নারী বলেন, ‘যুদ্ধের কারণে মৃত্যুভয় আমাদের তাড়া করে ফিরছে। বন্দুকের নলের সামনে থেকে কোনো রকমে জীবন বাঁচিয়ে পালিয়ে এসেছি। আমরা সরকারের সহযোগিতা চাই।’

আরেক নারী বলেন, ‘পালিয়ে আসার পর আমরা অসুস্থ হয়ে পড়েছি। সরকার আমাদের ওষুধ সরবরাহ করছে। আশা করি, খুব শিগগিরই এই অবস্থার পরিবর্তন হবে।’

ফিলিপিন্সের মারাবি শহরে জঙ্গিগোষ্ঠীর সঙ্গে সেনাবাহিনীর গেল ছয়দিনের সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা ১শ’ জন ছাড়িয়ে গেছে। জানা গেছে, নিহতদের অধিকাংশই সাধারণ মানুষ। এরইমধ্যে কেবল রোববারই সহিংসতায় মারা যায় অন্তত ১৯ বেসামরিক।
পুলিশ জানায়, রোববার সকালে আটজনের মরদেহ শহরের বাইরে থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। এদের সবাই পেশায় কাঠমিস্ত্রি। পুলিশের ধারণা, কোরআন পড়তে না পারায় জঙ্গিরা তাদের হত্যা করে।

এদিকে, বিচ্ছিন্নতাবাদ পরিত্যাগ করে দক্ষিণাঞ্চলে চলমান জঙ্গিবিরোধী অভিযানে অংশ নিয়ে সরকারকে সহযোগিতা করার জন্য মুসলিম মরো গেরিলা ও মাওবাদীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে। জোলো দ্বীপের একটি সামরিক ঘাঁটিতে দেওয়া বক্তৃতায় তিনি মাওবাদীদের শান্তি আলোচনার মাধ্যমে কট্টরপন্থী দমনের লড়াইয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানান। জঙ্গি দমনে মাওবাদীদের সমন্বয়ে একটি আলাদা বাহিনী গঠনেরও প্রস্তাব করেন দুতার্তে।

তিনি বলেন, ‘মোরো ইসলামিক লিবারেশন ফ্রন্ট এবং মোরো ন্যাশনাল ফ্রন্টের সদস্যের প্রতিও আমার আহ্বান আপনারা আমাদের সামরিক বাহিনীতে অংশ নিন। আমরা আপনাদের সেনা সদস্য হিসেবে সাদরে গ্রহণ করবো। সেনা সদস্যদের মতোই আপনাদের সকল সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা হবে। আমি জানি, তাদের আলাদা যোগ্যতার প্রয়োজন নেই। কারণ অস্ত্র চালোনাসহ সব ধরনের সামরিক কাজে পারদর্শী তারা।’

ফিলিপিন্সে আইএস সংশ্লিষ্ট জঙ্গিদের উত্থানের কারণে দক্ষিণ এশিয়ায় আইএসের হুমকি আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে গেছে বলে মনে করেন নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা। সিএনএনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ফিলিপিন্সে সহিংসতা, ইন্দোনেশিয়ায় বোমা হামলা এবং মালয়েশিয়ায় আইএস সন্দেহে ছয় জনকে আটকের ঘটনায় বোঝা যায়, এশীয় অঞ্চলে পাকাপোক্তভাবেই ঘাঁটি গাড়ার চেষ্টা করছে আইএস।

সূত্রঃ  somoynews


ফিলিপাইনঃ মাওবাদীদের সাথে শান্তি আলোচনা স্থগিত করল সরকার

npainternationale12-22-2016-02-800x445

মাওবাদীদের সঙ্গে শান্তি আলোচনা স্থগিত করেছে ফিলিপাইন সরকার। শনিবার নেদারল্যান্ডসে মাওবাদীদের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক শান্তি আলোচনা বাতিলের ঘোষণা দেন সরকার পক্ষের আলোচকরা। সম্প্রতি মাওবাদীদের সশস্ত্র শাখা ‘নিউ পিপলস আর্মি’ (এনপিএ)-র পক্ষ থেকে দেশজুড়ে হামলা জোরদারের প্রেক্ষিতে আলোচনা স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। এর আগে গত ফেব্রুয়ারিতেও আরেকটি শান্তি আলোচনা ভেস্তে যায়। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্য ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স। প্রায় ৫০ বছর ধরে ফিলিপাইনের ভূখণ্ডে নয়া গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে লড়াই চালিয়ে আসছে এনপিএ। সরকারি বাহিনীর সঙ্গে তাদের দীর্ঘ লড়াইয়ে উভয় পক্ষের ৪০ হাজারেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। দীর্ঘ এ সংঘাত থামাতে নরওয়ের মধ্যস্থতায় আলোচনায় সম্মত হয় উভয় পক্ষ। তবে মাওবাদীদের তৎপরতা জোরদারের মুখে সে আলোচনাও ভেস্তে গেলো। নেদারল্যান্ডসের আলোচনায় এনপিএ-র রাজনৈতিক শাখা ন্যাশনাল ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্টের সঙ্গে ফিলিপাইন সরকারের আলোচনায় বসার কথা ছিল। ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা জেসাস দুরেজা বলেন, সরকার আলোচনা স্থগিত করেছে। কারণ মাওবাদীরা প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুয়ার্তে-র শান্তি আলোচনায় সায় দেয়নি।


ভিডিওঃ ফিলিপিনের কমিউনিস্ট পার্টি’র ৪৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন

গত ২৬শে ডিসেম্বর ২০১৬, ফিলিপিনের কমিউনিস্ট পার্টি’র ৪৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন হয়েছে। এতে নেতৃত্ব দেয় পার্টির সশস্ত্র শাখা ‘নিউ পিপলস আর্মি’র পুলাং বাগানি ব্যাটেলিয়ন।


ফিলিপাইনের রাজধানীতে শতশত মাওবাদী গেরিলা, জনগণকে বিপ্লবে যোগ দেয়ার আহবান

গত ২৭শে মার্চ ২০১৭, ফিলিপাইনের কমিউনিস্ট পার্টি’র এর সশস্ত্র শাখা ‘নিউ পিপলস আর্মি’র ৪৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে পার্টির রাজনৈতিক সংগঠন ‘ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট’ এর বিপ্লবী মাওবাদী গেরিলা কর্মীরা রাজধানীতে সমাবেশ ও র‍্যালি বের করে। এসময় শতশত মাওবাদী বিপ্লবীরা- মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী, আমলাতান্ত্রিক পুঁজিবাদ ও সামন্তবাদ বিরোধী বিপ্লবে অংশ নিতে ও ‘নিউ পিপলস আর্মি’তে যোগ দেয়ার জন্যে জনগণের প্রতি আহবান জানান।


ফিলিপাইনঃ প্রতিক্রিয়াশীল সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে মাওবাদীদের গেরিলা অ্যাকশন চলমান রয়েছে

ফিলিপাইনের মাওবাদী গেরিলারা

ফিলিপাইনের মাওবাদী NEP / NPA এক বিবৃতিতে জানিয়েছে যে, তাদের গেরিলারা গত ২৩, ২৪, ২৫ মার্চ প্রতিক্রিয়াশীল সেনাবাহিনী ও বহুজাতিক কোম্পানি Dole-Stanfilco frutera এর বিরুদ্ধে তাদের সশস্ত্র অ্যাকশন অব্যাহত রেখেছে।

মান্দায়া’তে কৃষক জনগণের উপর সেনাবাহিনীর বিমান ও হেলিকপ্টার যোগে সন্ত্রাসী বোমা বর্ষণের প্রত্যুত্তরে মাওবাদী গেরিলারা সেনাবাহিনীর ৬৬তম ইনফান্ট্রি ব্যাটেলিয়নের উপর গেরিলা হামলা চালিয়ে ৫ সেনাকে খতম করে ও অস্ত্রসহ অন্যান্য সামগ্রী জব্দ করে।

অন্যদিকে, কায়াগা, সান ফেরনান্দো ও বুকিদননে সেনাবাহিনীর ৬০তম ইনফান্ট্রি ব্যাটেলিয়নের উপর গেরিলা অ্যাকশন চালিয়ে ২ সেনাকে খতম ও ২ জনকে গুরুতর জখম করে।

২৫শে মার্চ, শ্রমিকদের চাকরি থেকে ছাঁটাই এবং শোষণের প্রতিবাদে মাওবাদী গেরিলারা বহুজাতিক ফল কোম্পানি Dole-Stanfilco frutera এর ৩টি যানবাহন ধ্বংস করে দিয়েছে।