কলম্বিয়ায় মার্কসবাদী ইএলএন গেরিলাদের সঙ্গে সংঘর্ষে সেনা কর্মকর্তা নিহত

colombia-eln-guerrillas-train

বোগোটা, ১৭ জুলাই, ২০১৭: কলম্বিয়ায় মার্কসবাদী ইএলএন গেরিলাদের সঙ্গে সংঘর্ষে এক সৈন্য নিহত হয়েছে। রোববার দেশটির সেনাবাহিনী একথা জানিয়েছে।
দেশটির সবচেয়ে বড় বিদ্রোহী গোষ্ঠী ফার্কের সঙ্গে সরকারের শান্তি চুক্তির পর এ ঘটনা ঘটল।

ইএলএন একমাত্র বিদ্রোহী দল যারা এই চুক্তির পরও দেশটিতে বিদ্রোহী তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। খবর এএফপি’র।

সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে জানায়, বাজো কাউকা এলাকায় সেভেনথ আর্মি ইউনিট ফোর্সের সঙ্গে ইএলএন যোদ্ধাদের এ সংঘর্ষ হয়। এতে সেনা কর্মকর্তা জন ফ্রেডি গোমেজ সালাজার নিহত হন।

সূত্রঃ http://www.bssnews.net/bangla/newsDetails.php?cat=3&id=410375&date=2017-07-17

Advertisements

কলম্বিয়ায় বামপন্থি গেরিলা দল ELN এর সর্বশেষ নেতা নিহত

ইএলএন গেরিলা

কলম্বিয়ায় নিরাপত্তা বাহিনীর এক অভিযানে কলম্বিয়ার বামপন্থি গেরিলা দল ‘ লিবারেশন আর্মি-ELN’ এর সর্বশেষ নেতা নিহত হয়েছেন।  ২৩শে মার্চ, বৃহস্পতিবার, দেশটির প্রেসিডেন্ট জুয়ান ম্যানুয়েল সান্তোস একথা জানিয়েছেন।

সান্টোশ টুইটারে লিখেন, ‘ইএলএন এর জোসে এন্তনিও গালান ফ্রন্টের প্রধান নেতা আলভারো গেলভেস ওর্তেগা ওরফে জাইরোকে দমন করায় আমি আমাদের পাবলিক ফোর্সকে অভিনন্দন জানাচ্ছি।’

কলম্বিয়ার জাতীয় পুলিশের পরিচালক জেনারেল জর্জ নিয়েতো টুইটারে লিখেন দেশের উত্তরাঞ্চলীয় বলিভার এলাকার উত্তরে এই অভিযান চালানো হয়। এতে ওর্তেগা নিহত হয়েছেন।

বামপন্থী ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মি (ইএলএন) ও সান্টোশ সরকারের মধ্যে ফেব্রুয়ারি মাস থেকে শান্তি আলোচনা চলছে।

উভয়পক্ষের মধ্যে অস্ত্রবিরতি হয়নি। এর মধ্যেই সান্টোশ আলোচনার মাধ্যমে দেশে ‘সম্পূর্ণ শান্তি’ স্থাপনে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

কলম্বিয়া সরকারের একদিকে শান্তি প্রচেষ্টার নাম, আর অপরদিকে হত্যা করা হয়েছে এই বামপন্থি গেরিলা নেতাকে।

অথচ শান্তির জন্যেই প্রেসিডেন্ট সান্টোশকে নোবেল দেয়া হয়েছিল। আর তিনিই কিনা শান্তি আলোচনার নামে এই বামপন্থি গেরিলা নেতাকে হত্যার নির্দেশনা দিয়েছিলেন।

সূত্রঃ http://www.gulf-times.com/story/539739/ELN-leader-killed-by-Colombian-security-forces


কলম্বিয়ায় ২ সেনাকে মুক্তি দিয়েছে বামপন্থী গেরিলা দল ‘ইএলএন’

eln_guerrillas_s_youtube-770x433

কলম্বিয়ার বামপন্থী গেরিলা দল ইএলএন দুই জন সরকারি সেনাকে মুক্তি দিয়েছে। এরা ২৬ অক্টোবর থেকে তাদের হাতে বন্দি ছিলেন।

কলম্বিয়ার বয়াকা রাজ্যে ২৬ অক্টোবর সরকারি বাহিনীর সাথে ইএলএন সংঘর্ষে ১২ জন সেনার মৃত্যু হয় এবং ২ জনকে ইএলএন গেরিলারা ধরে নিয়ে যায়। সোমবার রেডক্রস এর মধ্যস্থতায় তারা মুক্ত হন।

এদিকে মুক্তির পর দুই জন সেনা রেডক্রসকে ধন্যবাদ জানান, তাদের মুক্তির ব্যাপারে সহযোগিতা করার জন্যে এবং তারা জানিয়েছেন ইএলএন গেরিলারা যুদ্ধবন্দী হিসেবে তাদের সাথে সঠিক ব্যবহার করেছে।

মার্কসবাদে অনুপ্রাণিত বামপন্থী গেরিলা দল ইএলএন কলম্বিয়ার সম্পদ ও জমির অসম বন্টনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য ১৯৬৪ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে কলম্বিয়া সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে যাচ্ছে । হিসাব মতে, বর্তমানে দলটির দুই হাজার যোদ্ধা রয়েছে।


কলম্বিয়ায় মার্কসবাদী গেরিলা(ELN) হামলায় নিহত ১২ সেনা

80952078_80952072

কলম্বিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তর মার্কসবাদী গেরিলা সংগঠন ইএলএন-এর আক্রমনে দেশটির ১২ জন নিরাপত্তাকর্মী নিহত হয়েছে।

সোমবারের ঘটনাটির সত্যতা স্বীকার করে দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ‘বয়কা অঞ্চলটিতে অনুষ্ঠিতব্য ভোটদান কর্মসূচি শেষে ফেরার সময় গেরিলাদের হামলায় এ হতাহতের ঘটনাটি ঘটে।’

প্রতিরক্ষামন্ত্রী লুইস কার্লোস ভিলেগাস বলেন, ‘ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মি বা ইএলএন পাহাড় অধ্যুষিত এলাকাটিতে নিরাপত্তা বাহিনীর গাড়ি লক্ষ্য করে বিস্ফোরণ ঘটিয়ে এবং গুলি করে তাদের হত্যা করে।’

ঘটনাটিতে তিনজন সেনা সদস্য আহত হয়েছে, দুই সেনা, এক পুলিশ সদস্য এবং তিনজন নির্বাচন কর্মকর্তা এখন নিখোঁজ রয়েছে।

সম্প্রতি কলম্বিয়ার বৃহত্তম মার্কসবাদী ফার্ক গেরিলাদের সঙ্গে শান্তি চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছিল দেশটির সরকারের। তারপর এই প্রথম রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে মার্কসবাদীদের হামলা হল।

ইএলএন গেরিলারা কলম্বিয়ার উত্তরের গুইকান প্রদেশ ত্যাগ করার প্রাক্কালে এই হামলা চালায়। কলম্বিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী লুইস কার্লোস ভিলেগাস এ কথা বলে।

১৯৬৪ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে সংগঠনটি সরকারের বিরুদ্ধে প্রায় কয়েক ডজন বার হামলা চালিয়েছে।

গেরিলাদের সাথে সরকারের গত ৫০ বছরের এই দ্বন্দ্বের কারণে প্রায় ২ লক্ষ ২০ হাজার সরকারী নিরাপত্তাবাহিনী, সাংসদ এবং গেরিলা সদস্যরা নিহত হয়েছে।

সূত্রঃ  রয়টার্স