পেরুর মহান মাওবাদী নেত্রী কমরেড ‘নোরা’

অগাস্টা লা তোররে কারাস্কো ওরফে কমরেড নোরা(১৯৪৬-১৯৮৮) হচ্ছেন মাওবাদী পেরু কমিউনিস্ট পার্টি, যা Sendero Luminoso (শাইনিং পাথ) নামে পরিচিত, এর অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও নেত্রী ছিলেন। তার অন্য একটা পরিচিতি হল, তিনি পেরু কমিউনিস্ট পার্টির চেয়ারম্যান কমরেড এবিমেল গুজম্যান গণজালোর স্ত্রী ছিলেন। কমরেড নোরা তার কমিউনিস্ট বাবা এবং প্রগতিশীল দাদা’র রাজনীতি দ্বারা প্রভাবিত ছিলেন। তবে তিনি কমরেড গণজালো’র মাধ্যমে মাওবাদী আন্দোলনের প্রতি প্রভাবিত হন।

১৯৬২ সালে ১৭ বছর বয়সে তিনি পেরু কমিউনিস্ট পার্টিতে যোগ দেন। তখন তিনি পেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শনের অধ্যাপক গণজালো’র সাথে পরিচিত হন। ওই সময় রাজনৈতিক কারণে তার বাড়ীতে কমরেড গণজালো’র নিয়মিত যাতায়ত ছিল। এক সময় মতাদর্শগত মিল থাকায় তারা পরস্পরকে বিয়ে করেন। ১৯৭৮ সালে তারা গোপন রাজনৈতিক জীবনে চলে যান। ১৯৮৮ সালের নভেম্বরে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি কমরেড গণজালো’র সাথে পেরুর গণযুদ্ধের সেকেন্ড ইন কমান্ড হিসেবে পার্টি ও জনগণের সেবা করে যান।

তিনি ১৯৮০ সালে শুরু হওয়া পেরুর গণযুদ্ধের সময় গোপনে নারীদের সংগঠিত করে তাদের ব্যাপক অংশগ্রহণে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা অব্যাহত রাখেন। তিনি আলোচনা, লিখিত প্রচারণার মাধ্যমে রাজনৈতিক সচেতনতা তৈরি করে বিপ্লবী আন্দোলনকে নারীদের অংশগ্রহণের জনপ্রিয় কেন্দ্রে পরিণত করেন। তিনি গেরিলা অ্যাকশনের সময় পার্টিতে নারীদের সমঅধিকার নিশ্চিত করেন।

কমরেড 'নোরা'

কমরেড ‘নোরা’

nora

কমরেড নোরা ও কমরেড গণজালো

কমরেড নোরা ও কমরেড গণজালো

কমরেড নোরা ও কমরেড গণজালো

কমরেড নোরা ও কমরেড গণজালো

augusta-wedding-full

abimael-guzman

কমরেড নোরার শবদেহের প্রতি লাল সালাম জানাচ্ছেন কমরেড গণজালো

কমরেড নোরার শবদেহের প্রতি লাল সালাম জানাচ্ছেন কমরেড গণজালো

DIRE220610abima