ব্রাজিলঃ আরকুইমেসে কৃষক বিক্ষোভের ভিডিও

logo-transparent

 


তিউনিশিয়ায় চাকরীর দাবিতে বিক্ষোভ, তুমুল সংঘর্ষ, নিহত পুলিশ

y

তিউনিশিয়ায় চাকরির দাবিতে ডাকা বিক্ষোভে সমাবেশে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের তুমুল সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে বিক্ষোভকারীদের হামলায় অন্তত একজন পুলিশ নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র।

বুধবার উত্তর আমেরিকার দেশ তিউনিশিয়ার কাজারেইন শহর যেন পরিণত হয় রণক্ষেত্রে। দেশটির বেকারত্বের হার ১৫ দশমিক ৩ শতাংশ বেড়ে যাওয়ায় জনগণ বিক্ষোভ সমাবেশ ডাকলে মঙ্গলবার কারফিউ জারি করা হয়। বুধবার কারফিউ উপেক্ষা করেই বিক্ষোভকারীরা প্রতিবাদ জানায় এবং পুলিশ স্টেশনে হামলা চালায়। এ ঘটনার পর পুলিশের তাদের তুমুল সংঘর্ষ হয়। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ার গ্যাস ছুড়ে পুলিশ।

z

এক বিক্ষোভকারী বলেন, ‘আমরা আমাদের কাজের অধিকার রক্ষা করার চেষ্টা করছি। এটাই এখন সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণের একমাত্র উপায়। আমরা পাঁচ বছর ধরে আমাদের দাবির বিষয়টি জানিয়ে আসছি কিন্তু তারা কোনো সারা দেননি।’

গত মঙ্গলবার বেকারত্বের কারণে তিউনিসিয়ার এক তরুণ আত্মহত্যা করার ২ দিন পর পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ কাজারেইনে চাকরির দাবিতে আন্দোলনরত বিক্ষুদ্ধ জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ারগ্যাস নিক্ষেপ করেছে পুলিশ।

আরব বসন্তের সূতিকাগার তিউনিসিয়ার কাজারেইন প্রদেশের রাজধানীতে মঙ্গলবার বিক্ষোভকারী ও পুলিশের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষে পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয় বলে তিউনিসিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা ট্যাপ জানিয়েছে।

সংঘর্ষে ৩ পুলিশসহ কমপক্ষে ২৩ জন আহত হয়েছেন বলে ট্যাপ জানিয়েছে। আহতরা অধিকাংশ টিয়ার গ্যাস দ্বারা আক্রান্ত হয়েছেন।
এ ঘটনায় স্থানীয় প্রশাসন মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬ টা থেকে বুধবার ভোর ৫ টা পর্যন্ত কারফিউ জারি করেছে।

x

গত রবিবার কাজারেইন প্রদেশের রিদা ইয়াউয়ি নামের এক তরুণ চাকরিপ্রার্থী সম্ভাব্য সরকারি চাকরি প্রাপ্ত প্রার্থীদের তালিকায় নিজের নাম না থাকার হতাশায় আত্মহত্যা করে।

ইয়াউয়ি একটি বৈদ্যুতিক খাম্বায় উঠে নিজেকে শেষ করার হুমকি দেয়। এরপর খাম্বার বিদ্যুৎ পরিবাহী তারে নিজের শরীর জড়িয়ে আত্মহত্যা করে। সরকার ইয়াউয়ির আত্মহত্যার ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে।

কাসেরিন শহরটি আলজেরিয়া সীমান্তের নিকট জেবেল ইক চাম্বি পর্বতের পাদদেশে অবস্থিত।

বিশ্বব্যাংক জানিয়েছে, বর্তমানে তিউনিসিয়ায় বেকারত্বের হার প্রায় ১৫.৩%। ২০১১ সালে আরব বসন্তের পর এ হার ছিল ১৬.৭%। কিন্তু বিপ্লব পূর্ববর্তী সময়ে তিউনিসিয়ার বেকারত্বের হার ছিল মাত্র ১৩%।

আরব বসন্তের ফলে তিউনিসিয়ার রাষ্ট্রীয় নেতৃত্বে পরিবর্তন আসলেও জনসাধারণের ভাগ্যের খুব একটা পরিবর্তন ঘটেনি। চাকরির দাবিতে তরুণের আত্মহত্যা তিউনিসিয়ার জনগণকে নাড়িয়ে দিয়েছে। বহুবিধ সমস্যায় জর্জরিত তিউনিসিয়ার জনগণ আবারো নিজেদের অধিকার আদায়ে সহিংস হয়ে উঠেছে। আবারো বিক্ষোভে উত্তাল আফ্রিকার দেশটি।

সূত্র: আলজাজিরা


মরোক্কো: শিক্ষার্থীদের উপর নৃশংস দমন

instituteurs_stagiaires_2-c2a14

গত বৃহস্পতিবার কাসাব্লাংকা, ফেজে, ওজদা, আযদা এবং অন্যান্য শহরে প্রতিবাদ করার সময় শিক্ষক এবং ছাত্রদের হিংস্রভাবে দমন করে পুলিশ। শান্তিপূর্ণ এই সমাবেশের ওপর পুলিশ খুব নিষ্ঠুর ভাবে হস্তক্ষেপ করে, এতে কয়েক ডজন  বিক্ষোভকারী (কাসাব্লাংকাতে ৪০ ও মাররাকেছে ৩০) আহত হয়।


বিশ্বের বিভিন্ন দেশে জনগণের বিক্ষোভ সংবাদ

5399_154
মঙ্গলবার চিলির রাজধানী সান্টিয়াগোতে উচ্চশিক্ষাকে অবৈতনিক করার দাবিতে চিলি বিশ্ববিদ্যালয়ের দিকে শান্তিপূর্ণ যাত্রা শুরু করে ছাত্র ফেডারেশনের সদস্যরা। এক পর্যায়ে আন্দোলনকারীরা পুলিশের দিকে পাথর ছুঁড়তে শুরু করলে সংঘর্ষ শুরু হয়ে যায়। ছাত্রদের ছত্রভঙ্গ করতে জলকামান নিক্ষেপ করে পুলিশ।

প্রেসিডেন্ট মিশেল ব্যাশেলেট নির্বাচনী প্রচারণার সময় শিক্ষা ব্যবস্থায় পরিবর্তন আনতে শিক্ষকদের বেতন ভাতা বাড়ানো ছাড়াও পাবলিক বিদ্যালয়গুলোকে স্থানীয় কর্তৃপক্ষের হাত থেকে রাষ্ট্রীয় কর্তৃত্বে নেয়া, বিনা বেতনে উচ্চশিক্ষার সুযোগ দেয়া ও দরিদ্র শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহায়তার প্রতিশ্রুতি দেন। তবে ক্ষমতায় আসার পর এক বছর পেরিয়ে গেলেও এসব প্রতিশ্রুতি পূরণে কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা।

আর্জেন্টিনায় বকেয়া বেতন ভাতার দাবিতে আন্দোলনরত একটি পোল্ট্রি প্রতিষ্ঠানের শ্রমিকদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। দাবি আদায়ে মঙ্গলবার রাজধানী বুয়েন্স আয়ার্সের এজেইজা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের প্রবেশপথ অবরোধ করে শ্রমিকরা। পুলিশ তাদের সরিয়ে দিতে গেলে সংঘর্ষ বাধে। স্থানীয় গণমাধ্যম জানায় গত এক সপ্তাহ ধরে সড়কটি অবরোধ করে রেখেছে শ্রমিকরা। আর্জেন্টিনার নতুন প্রেসিডেন্ট মৌরিসিও ম্যাক্রি নির্বাচিত হওয়ার পর দেশটিতে এটাই প্রথম সংঘর্ষের ঘটনা।

বুয়েন্স আয়ার্সেই বড়দিন উপলক্ষে বাড়তি বোনাসের দাবিতে মঙ্গলবার আন্দোলন নামে শ্রমিকরা। নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মৌরিসিও ম্যাক্রি সোমবার দেশের চরম দরিদ্র লোকদের জন্য বড়দিন উপলক্ষে বিশেষ ভাতা দেয়ার ঘোষণা দেন। এর পরপরই পেসোর সাম্প্রতিক অবমূল্যায়নে ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিকদের জন্য একই রকম সুবিধার দাবিতে আন্দোলনে নামে বামপন্থী সংগঠনগুলো।

স্থানীয় গণমাধ্যম জানায়, আন্দোলনকারীরা সাবেক প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিনা ফার্নান্দেজের সমর্থক। তবে আন্দোলনকারীরা জানান, তারা ফার্নান্দেজ ও ম্যাক্রি- দুই সরকারেরই নীতির বিরুদ্ধে।

এ সপ্তাহের শুরুতে প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রি ঘোষণা দেন দেশের অর্থনীতিকে সচল করতে শ্রমিক ও ব্যবসায়ীদের নিয়ে আলোচনায় বসবে তাঁর সরকার। তবে আন্দোলনকারীদের অনেকেই এ আলোচনা প্রত্যাখ্যান করেছেন।


সৌদি আরবে বিক্ষোভে থাকায় শিরশ্ছেদ হচ্ছে কিশোরের

Abdullah-al-Zaher

সৌদি আরবে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে অংশ নেওয়ায় এক কিশোরের শিরশ্ছেদ করা হচ্ছে। আবদুল্লাহ আল-জাহের নামের ওই ছেলেটির বাবা সন্তানের মুক্তির জন্য বিশ্ববাসীর কাছে আবেদন জানিয়েছেন।

ব্রিটেনের সংবাদমাধ্যম ডেইলি স্টার জানিয়েছে, বিক্ষোভের ঘটনাটি ঘটে চার বছর আগে। ওই সময় আবদুল্লাহ আল-জাহেরের বয়স ছিল ১৫ বছর। আরো ৫১ জনের সঙ্গে তার শিরশ্ছেদ করা হবে।

আবদুল্লাহ আল-জাহেরের বাবা হাসান আল-জাহের আকুতি জানিয়ে দ্য গার্ডিয়ানকে বলেন, ‘মৃত্যুর মুখে থাকা আমার সন্তানকে বাঁচান। শুধু একটি মিছিলে উপস্থিত থাকার কারণে মৃত্যুদণ্ড তার প্রাপ্য নয়।’

আবদুল্লাহর পরিবারের সদস্যরা জানান, ২০১২ সালের মার্চে তাকে আটক করা হয়। এরপর আবদুল্লাহকে ব্যাপক মারধর করা হয়। এর মাধ্যমে তার কাছ থেকে স্বীকারোক্তি আদায় করা হয়েছে। তাকে কোনো আইনজীবীর সঙ্গে কথা বলতে দেওয়া হয়নি।

গত বছর অক্টোবরে এই কিশোরকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে সৌদি সরকার ১০২ জনের শিরশ্ছেদ করেছে।

সূত্রঃ http://www.theguardian.com/world/2015/dec/17/family-teenage-saudi-protester-abdullah-al-zaher-sentenced-death-appeal-life


কলকাতাঃ আগামী মঙ্গলবার (১/৯/১৫) বন্দী মুক্তি কমিটির বিক্ষোভ

11911049_10207634939657451_992281949_n

ar

প্রেসিডেন্সি জেলে অনশনরত রাজবন্দীদের সংহতিতে ও রাজবন্দীদের প্রতি প্রেসিডেন্সি জেল কর্তৃপক্ষ এবং পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অমানবিক, অগণতান্ত্রিক আচরণের প্রতিবাদে আগামী মঙ্গলবার(১/৯/১৫) প্রেসিডেন্সি জেল গেটে বিক্ষোভ।
-বন্দীমুক্তি কমিটি-


যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ সম্প্রদায়ের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ, পিপার স্প্রে নিক্ষেপ

cleveland27n-3-web

cleveland27n-1-web

cleveland27n-2-web

2dagYwUeER210VLI

cl

DLX91_BgpbWNiBHf

যুক্তরাষ্ট্রের ক্লিভল্যান্ডে কৃষ্ণাঙ্গ সম্প্রদায়ের সঙ্গে অমানবিক আচরণের বিরুদ্ধে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে।

রোববার ভয়াবহ সংঘর্ষের একপর্যায়ে আন্দোলনকারীদের ওপর পিপার স্প্রে নিক্ষেপ করে পুলিশ।

পুলিশের দাবি, সড়ক অবরোধ করে রাখায় বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে পিপার স্প্রে ছোড়ে তারা। অন্যদিকে বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ ফার্গুসন ও বাল্টিমোরের মতোই ক্লিভল্যান্ডে কৃষ্ণাঙ্গদের ওপর নির্যাতন চালিয়েছে পুলিশ।

এদিকে গত সপ্তাহে ক্লিভল্যান্ডের স্টেট ইউনিভার্সিটিতে পুলিশ ও কৃষ্ণাঙ্গদের মধ্যে সংঘাতময় পরিস্থিতি নিয়ে একটি জাতীয় পর্যায়ের সম্মেলন আয়োজন করা হয়। সম্মেলনে অংশ নেয়া দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের সামাজিক আন্দোলন কর্মীরা মার্কিন পুলিশের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ শুরু করে বলে জানায় গণমাধ্যম।

সূত্রঃ http://www.huffingtonpost.com/entry/cops-pepper-spray-black-lives-matter-protestors-in-cleveland-reports_55b55998e4b0a13f9d18e364