রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে ‘বিপ্লবী শ্রমিক আন্দোলন’ চট্টগ্রাম শাখার লিফলেট

 

22815515_1964179510489493_8462280647487882992_n

Advertisements

‘বিপ্লবী শ্রমিক আন্দোলন’ এর মিছিল ও সমাবেশে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের হামলার প্রতিবাদ

12966708_474887776027707_2018866707_n

12966035_474887882694363_1045753701_n

12966057_474887996027685_338866805_n

12969323_474887872694364_567615647_n

12988143_474887912694360_58651443_n


“বিপ্লবী শ্রমিক আন্দোলন” কামরাঙ্গীরচর শাখার সমাবেশ ও মিছিল

12968569_474204659429352_247937336_n

বিপ্লবী শ্রমিক আন্দোলন

কামরাঙ্গীরচর শাখা

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

উন্নয়নের নামে জোরপূর্বক জমি দখল রুখে দাঁড়ান!”

বাঁশখালীতে ধানী জমি-বসতভিটা থেকে উচ্ছেদ ও রাষ্ট্রীয় বাহিনী পুলিশ কর্তৃক কৃষক-জনতার উপর গুলি ও লাশ গুমের প্রতিবাদে আজ ৬ এপ্রিল “বিপ্লবী শ্রমিক আন্দোলন” কামরাঙ্গীরচর শাখার উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত। বিকেল ৫ টার সময় কামরাঙ্গীর চর শাখা শ্রমিক আন্দোলনের সভাপতি কমরেড আব্দুর রাজ্জকের সভাপতিত্বে জাওলাহাটী চৌরাস্তায় সমাবেশ শুরু হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন নয়াগণতান্ত্রিক গণমোর্চার সভাপতি জাফর হোসেনসহ বিপ্লবী ছাত্র-যুব আন্দোলন ও বিপ্লবী শ্রমিক আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ। সভা পরিচালনা করেন বিপ্লবী শ্রমিক আন্দোলনের নেতা কমরেড ফয়সাল আহমেদ। বক্তারা তাদের বক্তব্যের মাধ্যমে বলেন, বাঁশখালীর কৃষক জনতার উপর গুলি চালানো কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। অতীতেও এই রাষ্ট্র তার পুলিশ বাহিনী দিয়ে জনগনের ন্যায়সঙ্গত আন্দোলন দমন করার চেস্টা চালিয়েছে। আমরা দেখেছি ফুলবাড়ি আন্দোলনের সময়ও তারা একই কাজ করেছে। আমিন সালেকিন, তরিকুলদের হত্যা করেছে। আজ রাষ্ট্রীয় ফ্যাসীবাদ উন্নয়নের নামে জনগনের টাকা আত্মসাৎ করছে। বিদ্যুত কেন্দ্রের ভাওতা তুলে জনগনকে ভুমি থেকে উচ্ছেদের পাঁয়তারা করছে আর বাংলাদেশের সম্পদকে বিদেশী দের হাতে তুলে দেয়ার বন্দোবস্ত করছে। এই সবের বিরুদ্ধে জনগন যখন প্রতিবাদ-প্রতিরোধ করছে তখন তাদের দমন করার জন্য গুলি করছে তাদের পেটোয়া বাহিনী। তারা বলেন, রাষ্ট্র একদিকে তার পোষা বাহিনী দ্বারা জনগনের উপর নিপীড়ন চালাচ্ছে একই সাথে সরকার দলীয় গুন্ডা সংঠনগুলো দ্বারাও জনগনকে অত্যাচার করা হচ্ছে। বাঁশখালীর সংগ্রামী জনতাকে লাল সালাম জানিয়ে তারা আরো বলেন, এই রাষ্ট্র সব সময়ই ধনীক শ্রেনীর স্বার্থ রক্ষা করে। যার প্রমান বাঁশখালীর জনগণ জীবন দিয়ে পেয়েছেন। রাষ্ট্র সেখানে সরাসরি এস আলম কোম্পানী ও চাইনা কোম্পানীর পক্ষ নিয়ে জনগনের উপর গুলি চালিয়েছে। যতদিন না এই রাষ্ট্র ব্যবস্থা উচ্ছেদ করে জনগণের রাষ্ট্র ব্যবস্থা কায়েম হচ্ছে ততদিন জনগণের উপর এই নিপীড়ন চলতেই থাকবে। তাই শ্রমিক-কৃষক-ছাত্র-মধ্যবিত্ত ঐক্যবদ্ধ হয়ে সার্বিক মুক্তি ও এই রাষ্ট্র উচ্ছেদের লক্ষ্যে নয়া গনতান্ত্রিক বিপ্লব সম্পন্ন করতে হবে। সভা শেষে একটি মিছিল কামড়াঙ্গীর চরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে কর্মসুচী শেষ হয়।

বার্তা প্রেরক

আব্দুর রাজ্জাক

বিপ্লবী শ্রমিক আন্দোলন

12966097_474204109429407_1642849548_n

12966378_474204386096046_583030465_n

12968613_474204166096068_1030555147_n

12980467_474204299429388_882132890_n


বাংলাদেশঃ ‘আন্দোলন’ পত্রিকার (আগস্ট ২০১৫) সংখ্যা প্রকাশিত –

বিপ্লবী শ্রমিক আন্দোলন বিপ্লবী ছাত্র যুব আন্দোলনের যৌথ মুখপত্র আন্দোলন বুলেটিন বা পত্রিকার (আগস্ট ২০১৫) সংখ্যা প্রকাশিত

 

v

2

3

4

 

সূত্রঃ https://andolonpotrika.wordpress.com/2015/08/22/%E0%A6%86%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%A6%E0%A7%8B%E0%A6%B2%E0%A6%A8-20/