মাওবাদী নেতা RK এখন দণ্ডকারণ্যে, AOB এর নতুন দায়িত্বে গনপতি’র স্ত্রী !

state_on_alert1

মালকানগিরি জেলায় অন্ধ্র প্রদেশ ও উড়িষ্যার যৌথ পুলিশ বাহিনীর সঙ্গে এক এনকাউন্টারে সিপিআই(মাওবাদী)’র ৩১জন গেরিলা ও আদিবাসী নিহত ও তাদের বিভিন্ন শীর্ষ নেতারা আহত হওয়ার পর গত শুক্রবার AOB স্পেশাল জোনাল কমিটির সম্পাদক পদ থেকে কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আক্কিরাজু হরগোপাল ওরফে RK’কে সরিয়ে নিয়েছে সিপিআই(মাওবাদী)।

শুক্রবার একটি অডিও বার্তায় মাওবাদী নেতা ভূমিকা ওরফে পদ্মাক্কা AOBSZC এর নতুন সম্পাদক হিসেবে নিজের পরিচয় দেন। এই মাওবাদী নেত্রীকে সিপিআই(মাওবাদী) সম্পাদক গণপতির স্ত্রী হিসেবে ধারণা করা হয়। পদ্মাক্কা এনকাউন্টারের জন্য প্রতিশোধ নেওয়ার শপথ নেন।

তিনি বলেন, ‘এনকাউন্টারের পর মাওবাদীরা ঐ অঞ্চলে শক্তিশালী হয়ে উঠেছে, স্থানীয়রা আমাদের সাথে আছে কারণ আমরা তাদের জন্যেই যুদ্ধ করে যাচ্ছি’।

এনকাউন্টারের পর নিখোঁজ থাকা RK বর্তমানে নিরাপদ আছেন এবং দন্ডকারণ্য স্পেশাল জোনাল কমিটিতে তাকে স্থানান্তর করা হয়েছে বলে ঐ বার্তায় উল্লেখ করা হয়েছে। মালকানগিরি’র ঐ এনকাউন্টারে RK’র ছেলে মাওবাদী গেরিলা মুন্নাও একইসাথে নিহত হন।

সূত্রঃ http://indianexpress.com/article/india/india-news-india/top-maoist-rk-safe-but-removed-from-post-3737975/


মাওবাদী বনধে মাওবাদী প্রভাবিত এলাকায় জনজীবন স্তব্ধ

maobandh-300x240

৩০জন দলীয় নেতা কর্মীর হত্যার প্রতিবাদে ৫ রাজ্যে বনধের মধ্যেই ওড়িশায় পঞ্চায়েত সদস্যকে গুলি করে হত্যা করল মাওবাদীরা জানাচ্ছে sakhipost। মালকানগিরি, রায়গড়া, কোরাপুট সহ ওড়িশার একাধিক জেলায় বাস চলাচল বনধ। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী রাজ্যের কয়েকটি জায়গায় মাইন পুঁতে পুলিস খবর দেয় মাওবাদীরা। তেলেঙ্গানা ও অন্ধ্রের মাও প্রভাবিত এলাকায় বাস চলাচল বন্ধ।

সূত্রঃ satdin.in


মাওবাদী নেতা RK পুলিসের হেফাজতে নেইঃ আদালতকে জানাল অন্ধ্র সরকার

akiraju-fresh-picture_647_102816091046

সিপিআই(মাওবাদী) কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রামকৃষ্ণ পুলিসের হেফাজতে নেই। হায়দরাবাদ হাইকোর্টকে জানাল অন্ধ্র সরকার। sakshipost এর রিপোর্ট অনুযায়ী  ওই মাওবাদী নেতার  স্ত্রী  অভিযোগ নিজেদের হেফাজতে রেখে  RKকে হত্যার পরিকল্পনা করছে পুলিস। আর তাই হায়দরাবাদ হাইকোর্টে সোমবার হেবিয়াস করপাস দায়ের করেন রামকৃষ্ণের স্ত্রী শীর্ষা। এরপরই সরকারকে RK ও সংঘর্ষ সম্পর্কে বিস্তারিত রিপোর্ট দিতে নির্দেশ দেয় আদালত। এরপর বৃহষ্পতিবার সরকার জানায় RK পুলিসের হেফাজতে নেই। অন্যদিকে রামকৃষ্ণ যে পুলিসি হেফাজতে রয়েছে তার প্রমাণ মাওবাদী নেতার স্ত্রীকে আগামী ২ সপ্তাহের মধ্যে  আদালতে  জানাতে নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি।

সূত্রঃ satdin.in


মাওবাদী অধ্যুষিত সুকমা জেলায় IED বিস্ফোরণে খতম পুলিশ জওয়ান

1_1462236323

মাওবাদী অধ্যুষিত ছত্তিশগড়ের সুকমা জেলায় জোড়া বিস্ফোরণ৷ বিস্ফোরণে নিহত হয়েছে ডিসট্রিক্ট রিজার্ভ গ্রুপের এক জওয়ান৷

সুকমার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইরফান খান বলেন, ‘‘সোমবার সকাল ১১টা ৪৫ মিনিট নাগাদ মারাইগুড়া থানার কাছে মারাইগুড়া-গোলাপাল্লি রোডের উপর প্রথম বিস্ফোরণটি ঘটে৷ ঘটনার সময় এলাকায় টহল দিচ্ছিল সিআরপিএফ এবং ডিআরজি’র জওয়ানরা৷ সেই সময় রাস্তায় পুঁতে রাখা আইইডি’র উপর পা পড়ে যান অ্যাসিস্ট্যান্ট কনস্টেবল মাদক জোগার৷ গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেখান থেকে তাঁকে তেলেঙ্গানায় বদলি করা হলে, সেখানেই মৃত্যু হয় তাঁর৷

সুত্রঃ http://www.bengali.kolkata24x7.com/jawan-killed-in-ied-blast.html


বনদপ্তরে আক্রমণঃ তেলেঙ্গানা রাজ্যে নকশাল আন্দোলন পুনরূত্থানের ইঙ্গিত

th17-nation-war_17_2817210e

অনূদিতঃ গত শুক্রবার ও শনিবার রাতে তেলেঙ্গানা রাজ্যের ওয়ারঙ্গল জেলার থাডভাই মণ্ডল সদরে তেলেঙ্গানা বনদপ্তরের অতিথি নিবাস এবং একটি সরকারি জিপ পুড়িয়ে দিল নকশালরা। পুলিশ জানিয়েছে, ওয়ারঙ্গল থেকে প্রায় ৮০ কিলোমিটার দূরে তেলেঙ্গানা-ছত্তিশগড় সীমান্তে এই হামলা হয়েছে। রাজ্যের পর্যটনে দর্শনার্থীদের আকৃষ্ট করার জন্যে অতিথি নিবাসটি ও কিছু কুঁড়ে ঘর  কয়েকদিন দিন আগে সংস্কার করা হয়েছিল।

এলাকার এই ঘটনার উপর সিপিআই(মাওবাদী) করিমনগর-খাম্মাম-ওয়ারাঙল জেলার সম্পাদক দামোদর এক নোটে বলেন, এই এলাকায় ‘খনি প্রকল্পের উন্নয়নের নামে আদিবাসীদের পোডূ ভূমি অধিগ্রহণ করা ও “জনগণের আন্দোলন” এ নেতৃত্ব দেয়া জনগণকে গ্রেফতার করা, তেলেঙ্গানা রাজ্য সরকারকে বন্ধ করতে হবে।

এই নোটে একই সাথে জনগণের প্রতি আন্দোলনে যোগ দেয়ার আহবান জানান তিনি।

সূত্রঃ thehindu


ভারতের গণযুদ্ধের সংবাদ- ০৮/০৪/২০১৬ তারিখের

ভারতের গণযুদ্ধের সংবাদ- ০৮/০৪/২০১৬ তারিখের

nax080420161460100814_storyimage

  • লাখীশারাইয়ে পুলিশী হেফাজতে রাজবন্দীকে হত্যা করা হয়েছে।

  • ছত্তিসগড়ে মাওবাদী অধ্যুষিত বিজাপুর জেলার পামেড থানার ঘন জঙ্গলে একটি হেলিপ্যাডের উপর মোতায়েন করা জওয়ানদের লক্ষ্য করে মাওবাদীদের একটি দলের অতর্কিত হামলায় একজন জওয়ান নিহত ও অন্য একজন আহত হয়েছে।

naxal01

  • মধ্যপ্রদেশের বালাঘাটে আদিবাসীদের টেণ্ডূ পাতা তোলার বিষয়ে মাওবাদীরা আদিবাসীদের প্রভাবিত করতে চাইছে। গত বৃহস্পতিবার বালাঘাটে নিরাপত্তা বাহিনীর সাথে সংঘর্ষ হওয়া এই এলাকায় মাওবাদীদের নতুন নিয়োগ পাওয়া দলটি টেণ্ডূ পাতা তোলার কাজ সম্প্রসারণের লক্ষ্যে এই এলাকায় এসেছিল বলে পুলিশ ধারণা করছে। ২০১২ সালের ২৪শে মে এই এলাকায় ২ মাওবাদীকে হত্যা করেছিল পুলিশ, ৪ বছর পর ঠিক একই এলাকায় মাওবাদীরা আবার তাদের কার্যক্রম প্রসার করছে।

  • বৃহস্পতিবার স্থানীয় এক আদালত, গত বছর কোয়েম্বাটুর জেলার কাড়ূমাথামপাত্তি’র একটি বেকারি থেকে গ্রেফতার হওয়া সন্দেহভাজন মাওবাদী নেতা রূপেশ, তার স্ত্রী সাইনা,  তাদের তিন সহযোগী ভিরামনি, কাণ্ণান এবং অনুপ ম্যাথিউ জর্জ এর বিচারিক হেফাজত ২৭শে এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।

অনুবাদ সূত্রঃ 

http://timesofindia.indiatimes.com/city/coimbatore/Judicial-custody-of-5-Maoists-extended/articleshow/51736117.cms

http://www.hindustantimes.com/bhopal/mp-maoists-in-balaghat-wanted-to-influence-tendu-leaf-plucking/story-coNc9C5lKZuCQJP3EUSxsJ.html

http://www.thehindu.com/news/national/other-states/jawan-killed-another-hurt-in-naxal-attack-in-bijapur/article8451976.ece

http://www.livehindustan.com/news/bihar/article1-naxal-killed-in-police-custody-524859.html


ক্যাঙ্গারু আদালতঃ ‘জন আদালতের’ মাধ্যমে স্থানীয়দের শাস্তি প্রদান করছে মাওবাদীরা

Maoists_1
সংক্ষিপ্ত বিরতির পর ভারতের ছত্তিসগড়ে ‘জন আদালতের'( গণ আদালত বা ক্যাঙ্গারু আদালত) মাধ্যমে জনসম্মুখে সন্দেহভাজন রাষ্ট্রীয় গুপ্তচরদের হত্যা করার ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে।
মাওবাদীরা জনগণের ভেতর আভ্যন্তরীণ ন্যায়সঙ্গত বিচার ব্যবস্থা চলমান রাখার জন্য ‘জন আদালতের’ কার্যক্রম বৃদ্ধি করেছে বলে বলছেন বিশেষজ্ঞরা; তাদের বক্তব্য, মাওবাদীদের শক্ত ঘাঁটিগুলোতে নিরাপত্তা বাহিনী হামলা চালাচ্ছে ও স্থানীয়দের মধ্যে রাষ্ট্রীয় চর তৈরি করছে, এ কারণে মাওবাদীরা এই পদক্ষেপ নিতে পারে।
পুলিশের পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, এ বছরের জুলাই পর্যন্ত বস্তার অঞ্চলের বিভিন্ন অংশে মাওবাদীরা ১৩টি জন আদালত বসিয়েছে। গত বছর এই সংখ্যা ছিল ৪।

সূত্রঃ http://www.dnaindia.com/india/report-kangaroo-courts-naxals-punish-locals-through-new-gane-plan-jan-adalat-2121850