ভারতঃ মারা গেলেন বিপ্লবী লেখক সংঘ বা ভিরাসমের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ‘চালসানি প্রসাদ’

চালসানি প্রসাদ

বিপ্লবী লেখক কমরেড চালসানি প্রসাদ

বিপ্লবী লেখক সংঘের অনুষ্ঠানে চালসানি প্রসাদ

বিপ্লবী লেখক সংঘের অনুষ্ঠানে চালসানি প্রসাদ

নিজ বাসায় মারা গেলেন কমরেড চালসানি প্রসাদ

নিজ বাসায় মারা গেলেন কমরেড চালসানি প্রসাদ

৮৩ বছর বয়সে মারা গেলেন বিপ্লবী লেখক সংঘ বা ভিরাসমের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা চালসানি প্রসাদ। বিশাখাপত্তনমের সিতাম্মাধারায় এইচ বি কলোনির নিজ বাসায় আজ শনিবার সকাল সাড়ে ১১ নাগাদ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান তিনি। দুই মেয়েকে সাথে নিয়েই থাকতেন তিনি। তার স্ত্রী কয়েক বছর আগেই মারা যান।

বাসায় এ্যাম্বুলেন্স পৌছার আগেই হৃদরোগে তিনি মারা যান।

চালসানি প্রসাদ, কৃষ্ণ জেলার ভাটলাপেনুমাররুতে এক কমিউনিস্ট পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন পুরো জীবনটাই মার্কসবাদী আদর্শে পরিচালিত হন। জরুরী অবস্থা চলাকালীন তিনি আটক হন এবং তার মার্কসবাদী মতাদর্শ ও ঘোষণাগুলোর কারণে বেশ কয়েকবার তাকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। কারণ রাষ্ট্র ভিরাসমকে সিপিআই(মাওবাদী) এর অঙ্গ সংগঠন হিসেবে মনে করে। অবসরপ্রাপ্ত এই কলেজ শিক্ষক আগাগোড়াই মাওবাদী আদর্শে বিশ্বাস করতেন। সিপিআই মাওবাদীরও ঘনিষ্ঠ ছিলেন তিনি।

প্রসাদ বিশাখাপত্তনমে মিসেস এ.ভি.এন এ কলেজ থেকে রাজনীতি প্রভাষক হিসেবে অবসর গ্রহণ করেন। একজন শিক্ষক হিসেবে তিনি নিজেকে ছাত্রদের কাছে প্রিয় বন্ধু হিসেবে তুলে ধরার পাশাপাশি তিনি তাদের ব্যক্তিত্বের উন্নয়নে আগ্রহী ছিলেন। তিনি শ্রী শ্রী, রবি শাস্ত্রী, রাঙ্গানায়াকাম্মা এবং বিভিন্ন জনদের খুব ঘনিষ্ঠ ছিলেন।

একজন উৎসুক পাঠক, চালসানি প্রসাদের এইচ বি কলোনির বাসায় হাজার হাজার বই বস্তাবন্দী অবস্থায় আছে, এগুলোর বেশীর ভাগই দুষ্প্রাপ্য। তিনি অনেক বিষয় নিয়ে গভীর ভাবে আলোচনা করতে পারতেন এবং একজন লেখকের মর্যাদা যাই হোক না কেনো, তিনি যে কোন ভালো লেখার সঠিক মূল্যায়ন করতেন এবং একই সময়ে অন্যান্য সুপ্রতিষ্ঠিত লেখকদের মত যদি তিনি ভুল করতেন বা কিছু লিখতেন তবে সেটা সমাজের স্বার্থবিরোধী হত।

তিনি একজন বামপন্থী হতে পারেন, কিন্তু বিশ্বনদ সত্যনারায়ণের একটি সাহিত্য সভায়ও অনুপস্থিত থাকতেন না, কারণ তিনি তার লেখার জন্যে সবসময় প্রশংসিত হতেন।

সূত্রঃ http://www.thehindu.com/news/national/andhra-pradesh/chalasani-prasad-passes-away/article7464236.ece

Advertisements