পিকেক ও মাওবাদীসহ ১০টি সংগঠনের “Peoples’ United Revolutionary Movement” প্রতিষ্ঠার ঘোষণা

94dc54329e25f79c8a3f66d37ea38c47_L

কুর্দিস্তান ও তুরস্কের ১০টি বিপ্লবী সংগঠন যৌথ ভাবে ‘Peoples’ United Revolutionary Movement প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দিয়েছে। একটি গেরিলা জোনের মধ্যে এক যৌথ সংবাদ সভায় ১০টি বিপ্লবী সংগঠনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত থেকে তাদের জোটের ঘোষণা দেন। সভায় ফ্যাসিবাদী AKP সরকার ও তুর্কি প্রজাতন্ত্রের বিরুদ্ধে সকল এলাকায় ঐক্যবদ্ধ ভাবে তাদের বিপ্লবী পদক্ষেপ নেওয়ার পাশাপাশি সশস্ত্র সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গিকার ব্যক্ত করা হয়।

এসময় পিকেকে’র নির্বাহী কমিটির সদস্য ‘দুরান কাল্কান’ লিখিত বিবৃতি তুলে ধরেন এবং কুর্দিস্তান ও তুরস্কের ঐক্যবদ্ধ ১০টি বিপ্লবী সংগঠনের নাম ঘোষণা করেন। সংগঠনগুলো হলোঃ TKP/ML, PKK, THKP-C/MLSPB, MKP, TKEP-LENINIST, TEKP, DKP, DEVRÎMCÎ KARARGAH এবং MLKP ।

kurda

কাল্কান বলেন,  AKP যে একটি নতুন ফ্যাসিবাদী একনায়কত্ব প্রতিষ্ঠা করার চেষ্টা করছে তার বিরুদ্ধে বিপ্লব সম্পন্ন করার জন্যে এই ঐক্যবদ্ধ বিপ্লবী বাহিনী গঠন করা হয়েছে।

এ ছাড়া যে সকল বিপ্লবী সংগঠন ও সামাজিক পরিধির সংগঠন সমূহ, যারা ফ্যাসিবাদ বিরোধী লড়াইয়ে অংশ নিতে চান, তাদের এই যৌথ সংগ্রামে যোগদানের জন্য আমন্ত্রণ জানান কাল্কান।

সভায় কাল্কান, যৌথ ঘোষণাটি তুর্কি ও কুর্দি ভাষায় পড়ে শোনান, এতে সমগ্র মানবতার জন্যে হুমকি মধ্যপ্রাচ্যের চলমান যুদ্ধ ও সঙ্কটের প্রতি সকলকে মনোযোগ দিতে বলেন। এতে আরও জোর দিয়ে বলা হয় যে, AKP সরকার- আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক শক্তিগুলো দ্বারা গঠিত কুৎসিততম জোটের শরীক হিসেবে এই রক্তাক্ত যুদ্ধে অংশ নিচ্ছে। যৌথ ঘোষণাপত্রে AKP সরকার আজ দেশের সব জাতি ও বিরোধী দলের বিরুদ্ধে যে সর্বাত্মক যুদ্ধ চালাচ্ছে তার দিকে ইঙ্গিত করা হয়েছে।

kurdc

অনুবাদ সূত্রঃ

http://democracyandclasstruggle.blogspot.com/2016/03/kurdish-and-turkish-organisations.html

Advertisements

ছবির সংবাদঃ অপরাজেয় ‘সিযরে’

২৩ জন বেসামরিক কুর্দি নিহত, ৮ দিনের কারফিউ, বিদ্যুৎ নেই, পানি নেই, ফোন সংযোগ নেই,
কিন্তু ‘সিযিরে‘ অপরাজেয়!

তুরস্ক রাষ্ট্র কমিউনিস্ট কুর্দি ‘পিকেকে’ গেরিলাদের মোকাবিলা করতে তুর্কি কুর্দিস্তানের ‘Cizre/সিযরে শহরে প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে সামরিক হামলা ও আইন জারী করে রেখেছে। তুর্কি রাষ্ট্র কুর্দি জনগণের উপর গত ৪৮ ঘণ্টায় সেনা ও বিমান সহযোগে এই পর্যন্ত ৩০৮বার ভয়াবহ আক্রমণ করেছে। এতে হাজার হাজার কুর্দি জনগণ রাস্তায় নেমে এসে তুর্কি সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ জানাচ্ছে। জনগণ বলছে, এটি আমাদের ‘অস্তিত্ব রক্ষার যুদ্ধ’ ।

cojigqhwgaaj5wa

1

2

সূত্রঃ https://nouvelleturquie.wordpress.com/2015/09/11/cizre-ne-se-rendra-pas/


সুরুক গণহত্যা সম্পর্কে MLSPB (Marxist-Leninist Armed Propaganda Forces)/বিপ্লবী ফ্রন্ট এর বিবৃতি

11049608_1461003254223222_1769947793145547153_n

তুরস্ক, কুর্দিস্তান মধ্যপ্রাচ্যের জনগণের প্রতি

সিজিরে ও কোবানি ক্যান্টনের বিজয় ও পুনর্মিলনীর মধ্য দিয়ে রুবার কামিসলো অপারেশন শেষ হবার পর রোজাভা বিপ্লবের তৃতীয় বর্ষপূর্তিতে কোবানির পুনর্গঠনের উদ্যোগ গ্রহণের পরিকল্পনা করা হয়েছিল ও এ উদ্যোগের কথা কয়েকদিন পূর্বে জনগণের কাছে ঘোষণা করা হয়েছিল। আমাদের কমরেডরা রাস্তায় জমায়েত হয়ে “আমরা একত্রে কোবানিকে রক্ষা করেছি! আমরা একত্রে একে গড়ে তুলবো”! স্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠেছিল। এসময় তুর্কি রাষ্ট্র ও সাম্রাজ্যবাদের প্রতিক্রিয়াশীল জঙ্গি গোষ্ঠী; আইএসআইএস ISIS (DAİŞ) তাদের উপর হিংস্র হামলা চালায়। হামলায় অসংখ্য বিপ্লবী সমাজতন্ত্রী শহীদ হয় ও আহত হয়।

সাম্রাজ্যবাদ ও যায়নবাদের দোসর আইএসআইএস তার পুনঃপুনঃ পরাজয় থেকে বেরিয়ে আসার জন্য তুরস্ক ও কুর্দিস্তানের জনগণের উপর হত্যা ও হুমকি চালিয়ে রোজাভা বিপ্লবের অর্জনকে ধ্বংস করার নোংরা ও বর্বরোচিত পন্থা গ্রহণের মাধ্যমে বিজয় ও আধিপত্য অর্জনের চেষ্টা চালাচ্ছে।

তবে মধ্যপ্রাচ্যের ভ্রাতৃপ্রতিম কমিউনিটির বিজয়ী যোদ্ধাদের অদম্য ইচ্ছাশক্তিকে ভেঙ্গে ফেলতে পারবে না আইএসআইএস। YPG/YPJ ও তুরস্কের বিপ্লবী আন্তর্জাতিকতাবাদী গণযোদ্ধারা (Revolutionary Internationalist Warriors of people of Turkey) নিশ্চিতভাবেই এই হিংস্র হামলার প্রতিশোধ নেবে। MLSPB (Marxist Leninist Armed Propaganda Force) / Revolution Front এর পক্ষ থেকে  আরো একবার লড়াই ও বিজয়ের লক্ষ্যে জনগণের প্রতি আমরা আহ্বান জানাই!

মধ্য প্রাচ্যের বিপ্লবী ফ্রন্ট দীর্ঘজীবী হোক!

২১/০৭/২০১৫

MLSPB/ Revolution Front

সূত্রঃ Via Isyandan


তুরস্কঃ হোযাতে মাওবাদী TIKKO এর সশস্ত্র অ্যাকশন

তুরস্কের কমিউনিস্ট পার্টি(মার্কসবাদী-লেনিনবাদী)(TKP-ML) এর সশস্ত্র শাখা TIKKO

তুরস্কের কমিউনিস্ট পার্টি(মার্কসবাদী-লেনিনবাদী)(TKP-ML) এর সশস্ত্র শাখা TIKKO

গত বুধবার বেলা ১.৩০ মিনিটে পূর্ব তুঞ্চেলি প্রদেশের হোযাত জেলায় এক দল অস্ত্রধারী সেনা-পুলিশ বাহিনীর স্টেশনে আক্রমণ করে গুলি চালায়। ভারী অস্ত্র সজ্জিত হয়ে অস্ত্রধারীরা দুটি ভিন্ন পয়েন্ট থেকে গুলি চালায়। এতে তুর্কি সেনা ও অস্ত্রধারীদের মধ্যে গুলি যুদ্ধ শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পরে অস্ত্রধারীরা পার্শ্ববর্তী গভীর বনে গা ঢাকা দেয়।

সংবাদ সংস্থা দোগান দাবী করে- আক্রমণটি “তুরস্কের শ্রমিক ও  কৃষকদের লিবারেশন আর্মি” (তুরস্কে TIKKO হিসাবে সংক্ষেপিত) করে থাকতে পারে। যা মাওবাদী দল হিসেবে পরিচিত তুরস্কের কমিউনিস্ট পার্টি(মার্কসবাদী-লেনিনবাদী)(TKP-ML) এর সশস্ত্র শাখা হিসেবে পরিচিত। এই পার্টি দীর্ঘদিন ধরে নয়া গণতান্ত্রিক বিপ্লবের লক্ষ্যে তুরস্ক সরকারের বিরুদ্ধে গণযুদ্ধ চালিয়ে আসছে। এ ঘটনায় কেউ হতাহতের হয়নি, তবে এলাকায় দুটি হেলিকপ্টার পাঠানো হয় এবং ঐ অঞ্চলের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়।

সূত্রঃ  http://www.dailysabah.com/nation/2015/07/22/terrorists-open-fire-on-gendarmerie-station-in-eastern-turkey