ভারতঃ কেন আমরা কালাকানুন UAPA এবং NIA অবিলম্বে বাতিলের দাবী করছি-

দানবীয় UAPA আইন ও রাষ্ট্রীয় প্রতিক্রিয়াশীল বাহিনীর অন্যতম কদর্য চেহারা NIAর প্রকৃত চেহারা, গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক আন্দোলনের জন্য সবচেয়ে বড় বিপদ কেন UAPANIA? কেনই বা এদের প্রতিরোধ করা আজ ভারতের গণতান্ত্রিক আন্দোলনের অন্যতম মূখ্য কাজ? লিখছেন মানবাধিকার কর্মী ও দীর্ঘ গণ আন্দোলনের সৈনিক সুজাত ভদ্র

একটি বন্দিমুক্তি কমিটি প্রকাশনা।

11824270_1474017052894305_1973692974_n

Advertisements

দোষী সলমন জামিন পায়, অধ্যাপক জিএন সাইবাবাকে দোষ না করেও জেলে পচতে হয়

yhg

সলমন খান মত্ত অবস্থায় গাড়ি চাপা দিয়ে মানুষ মারায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পরও সাজা না কেটে জেলে থাকেন অথচ দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক জিএন সাইবাবাকে ১ বছর ধরে জেলে পচতে হচ্ছে। গত বছর মে মাসে তাঁর দিল্লির ফ্ল্যাট থেকে কার্যত অপহরণ করে নিয়ে যাওয়া হয় সাইবাবাকে। এর পর জানা যায় মহারাষ্ট্র পুলিস তাঁকে গ্রেফতার করেছে। সাইবাবার বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি কোন মাওবাদী নেতাকে কম্পিউটার চিপ দিয়েছিলেন। অভিযোগ মাত্র, তাঁর বিরুদ্ধে কোন অপরাধ এখনও প্রমাণ  হয়নি। তা সত্ত্বেও ৯০ শতাংশ শারীরিক প্রতিবন্ধী  এই অধ্যাপককে  রাখা হয়েছে কুখ্যাত আন্ডা সেলে। সাইবাবার মত ৩ লক্ষের বেশি বিচারাধীন বন্দি সারা দেশে জেলে পচে মরছেন। এই বিষয় বিস্তারিত একটি লেখা প্রকাশিত হয়েছে কাফিলা(kafila) ওয়েবসাইটে।

সুত্রঃ http://kafila.org/2015/05/10/much-better-to-run-over-the-poor-than-to-speak-up-for-them/#more-25354


রাজ্য রাজি, তবু কেন্দ্রের আপত্তিতে আটকে ভারতের মাওবাদী মুখপাত্রের মুক্তি

 gour-655x360

কেন্দ্রের আপত্তি। তাই রাজ্য রাজি থাকলেও মুক্তি পাচ্ছেন না রাজনৈতিক বন্দি মাওবাদী মুখপাত্র গৌর চক্রবর্তী। বাম আমলের শেষের দিকে UAPA ধারায় গ্রেফতার করা হয়েছিল স্বঘোষিত এই মাওবাদী মুখপাত্রকে। রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পর রাজনৈতিক বন্দির স্বীকৃতি চেয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন গৌর চক্রবর্তী। হাইকোর্টে সেই আবেদনের বিরোধিতা করেছিল রাজ্য। কিন্তু, তারপর পরিস্থিতি বদলেছে,সম্প্রতি গৌর চক্রবর্তীর শারীরিক অবস্থা ও বয়সের কথা উল্লেখ করে তাঁকে মুক্তি দেওয়ার আর্জি জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দেন তাঁর স্ত্রী। একই আর্জি জানিয়ে APDR-র তরফে  চিঠি দেন সুজাত ভদ্র।

গৌর চক্রবর্তী স্ত্রীর আবেদনে সাড়া দিয়ে তাঁকে মুক্তি দেওয়ার বিষয়ে চিন্তাভাবনা শুরু করে রাজ্য। কিন্তু, যেহেতু তাঁকে UAPA ধারায় গ্রেফতার করা হয়েছিল তাই মুক্তি দেওয়ার জন্য কেন্দ্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অনুমতি চেয়ে চিঠি দেয়  রাজ্য সরকার। কিন্তু, রাজি হয়নি কেন্দ্র। কেন্দ্রের যুক্তি, UAPA তে আটক গৌর চক্রবর্তীকে ছেড়ে দিলে তেলেগু দীপক, ছত্রধর মাহাতোর মতো মাওবাদী নেতাদেরও মুক্তি দিতে হবে। যা কার্যত অসম্ভব। ফলে রাজ্যের সদ্দিচ্ছা থাকলেও, আপাতত জটিলতায় আটকে গৌর চক্রবর্তীর মুক্তি।

সুত্র – http://ntcn.in/